বরগুনা ০১: শম্ভুর বিপরীতে শক্ত অবস্থান শিহাবের

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেতে মাঠে এবং কেন্দ্রে সরব এখন বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের একাধিক তরুণ প্রার্থী। কেন্দ্র এবার নবীনদের অগ্রাধিকার দেবে- এমন ঘোষণার পর, রাজনৈতিক সংগ্রামের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠিত তরুণ প্রার্থীদের নিয়ে নতুন করে আশার আলো দেখছে সাধারণ জনগন।

পাশাপাশি বিতর্কীত, জনবিচ্ছিন্নদের মনোনয়নের ক্ষেত্রে আর সুযোগ থাকছে না- দলীয় সভাপতি, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার এ হুঁশিয়ারির পর নতুন করে শুরু হয়েছে বরগুনার রাজনীতির সমীকরন। র্দীর্ঘ ২৭ বছরেরও বেশি সময় ধরে বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বরগুনা-০১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি, মাদক বাণিজ্য ও অপরাজনীতির মাধ্যমে শত কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগ এনে তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সব সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। একদিকে অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর অনিয়ম-দুর্নীতি অন্যদিকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সভাপতি থেকে জেলা আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদ পাওয়া একাধিক তরুণ নেতৃবৃন্দের মনোনয়ন দৌড়, সবমিলিয়ে বিগত যেকোন সময়ের চেয়ে এখন অস্থিতিশীল পরিবেশ বিরাজ করছে বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগে।

এ অবস্থায় জেলা আওয়ামীলীগের একাধিক তরুণ প্রার্থীকে ঘিরে আস্থা গড়ে উঠেছে অধিকাংশ তৃণমূল নেতাকর্মী আর সাধারণ জনগনের। বর্তমানে তরুণ প্রার্থীদের মাঝে মনোনয়ন দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে আছেন জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহসম্পাদক , বরগুনা জেলা কৃষক এসোসিয়েশনের সভাপতি এস এম মশিউর রহমান শিহাব। তিনি একাধারে একজন তরুণ রাজনীতিবিদ ও প্রতিষ্ঠিত পাওয়ার প্লান্ট ব্যবসায়ী। দীর্ঘ দেড় যুগের বেশি সময় ধরে বিভিন্ন ঈদুল ফিতর ,ঈদুল আযহা ,পূজা পার্বনে হাজার হাজার গরিব মাঝে শাড়ি-লুঙ্গি বিতরণ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মসজিদ মাদ্রাসা মন্দির ও দরিদ্র অসহায় বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সহ মানুষের মাঝে দান-অনুদান ও সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষের আস্থা কুড়িয়েছেন। বিশেষ করে বরগুনা-০১ নির্বাচনী আসনের বরগুনা সদর, আমতলী ও তালতলী উপজেলার সাধারণ জনগনের মাঝে বিশেষ সুনাম রয়েছে তার। রয়েছে গ্রহনযোগ্যতাও। এমন মূল্যায়ন স্থানীয় নেতাকর্মীদের।

বরগুনার তালতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, বেশিরভাগ নেতাই আসেন নিতে। খুব কম সংখ্যক নেতা দেয়ার মানসিকতা নিয়ে রাজনীতিতে আসেন। মশিউর রহমান শিহাব তাদেরই একজন।বরগুনার আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান জি এম দেলোয়ার বলেন, রাজনীতি এখন একরকম ব্যাবসায় পরিনত হয়েছে। যাদের কোন ব্যবসা বাণিজ্য নেই, নেই কোন চাকরিও। বছরের পর বছর ধরে তারা রাজনীতি করে যাচ্ছেন। বানাচ্ছেন বাড়ি গাড়ি ফ্ল্যাটও। কোথা থেকে আসে এসব তা জনগন এখন বুঝতে পেরেছে। তাই স্বচ্ছল ব্যবসায়ী ও তরুণ রাজনীতিবিদ মশিউর রহমান শিহাবকে ঘিরে এখন সাধারণ জনগনের বিশ্বাস ও আস্থা তৈরী হয়েছে। বরগুনার তালতলী উপজেলার পঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান বলেন, বরগুনা, আমতলী ও তালতলী উপজেলার নিভৃত গ্রামের অধিকাংশ মসজিদ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মশিউর রহমান শিহাবের সরাসরি সহযোগিতা রয়েছে। এছাড়া দরিদ্র শিক্ষার্থীসহ রোগ, শোক আর অভাব অনটনের শিকার বহু ভুক্তভোগী পরিবার মশিউর রহমান শিহাবের কাছে কৃতজ্ঞ।

বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ হুমায়ুন কবীর বলেন, “শত কোটি টাকার মালিক হয়েও একজন এমপি যখন জনগনের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থে ভাগ বসান, জমি দখল করেন, চাকর দেয়ার নামে ঘুষ নেন কিন্তু পরে চাকরি বা টাকা কোনটাই দেন না- তখন আর রাজনীতিবিদদের প্রতি মানুষের আস্থা থাকে না। অনিয়ম দুর্নীতির কারণে ইতোমধ্যেই বর্তমান এমপি শম্ভুর উপর অনাস্থা জানিয়েছে জেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সর্বস্তরের তৃণমূল নেতাকর্মীরা। তিনি বলেন, তরুণ রাজনীতিবিদদের মধ্য থেকে মশিউর রহমান শিহাব সর্বস্তরের সাধারণ মানুষের কাছে এক ধরণের গ্রহনযোগ্যতা তৈরী করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি মনোনয়ন পেলে বরগুনা ও বরগুনাবাসীর উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবেন বলে আমার বিশ্বাস।”

এদিকে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বরগুনা জেলা আওয়ামীলীগের আরও একাধিক তরুণ নেতা মনোনয়ন পেতে কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন। বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় পর্যায়ে গণসংযোগও চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।