০৭:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

আ.লীগ আবারও সাজানো নির্বাচনের আয়োজন করছে : ফখরুল

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৩২:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩
  • / ৭৯ বার পড়া হয়েছে

আওয়ামী লীগ আবারও সাজানো নির্বাচনের আয়োজন করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তামাশার নির্বাচন বিএনপি হতে দেবে না।

শনিবার (৪ মার্চ) রাজধানীর উত্তরায় পদযাত্রা পূর্ববর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সংবিধান কাটাছেঁড়া করে একটি সাজানো নির্বাচন আয়োজনের জন্য সবকিছু গুছিয়ে নিয়েছে। এই সরকারের অধীনে কখনও নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না।

তিনি বলেন, এবার আর তামাশার নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। এ জন্য শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন হচ্ছে। আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকব। যতই বাধা আসুক, তা অতিক্রম করে এগিয়ে যাব। এ সময় আগামী ১১ মার্চ দেশের সব মহানগর ও জেলায় মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফার দাবির সঙ্গে গ্যাস-বিদ্যুৎসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে এই কর্মসূচি পালিত হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তরা-পর্ব থানা বিএনপির আহ্বায়ক শাহ আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, জয়নুল আবদিন ফারুক, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, কৃষক দলের সভাপতি হাসান জাফির তুহিন ও ছাত্রদল সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ প্রমুখ।

এদিন রাজধানী ঢাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন মহানগরের আরও ৪৯টি স্থানে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। এতে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যসহ জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্য নেতারা নেতৃত্ব দেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

আ.লীগ আবারও সাজানো নির্বাচনের আয়োজন করছে : ফখরুল

আপডেট সময় ০৮:৩২:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩

আওয়ামী লীগ আবারও সাজানো নির্বাচনের আয়োজন করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তামাশার নির্বাচন বিএনপি হতে দেবে না।

শনিবার (৪ মার্চ) রাজধানীর উত্তরায় পদযাত্রা পূর্ববর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সংবিধান কাটাছেঁড়া করে একটি সাজানো নির্বাচন আয়োজনের জন্য সবকিছু গুছিয়ে নিয়েছে। এই সরকারের অধীনে কখনও নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না।

তিনি বলেন, এবার আর তামাশার নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। এ জন্য শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন হচ্ছে। আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকব। যতই বাধা আসুক, তা অতিক্রম করে এগিয়ে যাব। এ সময় আগামী ১১ মার্চ দেশের সব মহানগর ও জেলায় মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফার দাবির সঙ্গে গ্যাস-বিদ্যুৎসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে এই কর্মসূচি পালিত হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তরা-পর্ব থানা বিএনপির আহ্বায়ক শাহ আলমের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, জয়নুল আবদিন ফারুক, ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, কৃষক দলের সভাপতি হাসান জাফির তুহিন ও ছাত্রদল সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ প্রমুখ।

এদিন রাজধানী ঢাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন মহানগরের আরও ৪৯টি স্থানে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। এতে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যসহ জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্য নেতারা নেতৃত্ব দেন।