০১:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

ইতিহাস গড়ে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে পাকিস্তান

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:৩৮:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ মে ২০২৩
  • / ৬৫ বার পড়া হয়েছে

ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচেও ১০২ রানের বড় জয় পেয়েছে পাকিস্তান। এই জয়ে সিরিজে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল দ্য গ্রিন ম্যানরা। একই সঙ্গে আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়েও প্রথমবারের মতো তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে বাবর আজমের দল।

শুক্রবার (৫ মে) টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক বাবর আজমের সেঞ্চুরিতে ৬ উইকেটে ৩৩৪ রান করে স্বাগতিকরা। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২৩২ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। আর এই জয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডেতে শীর্ষস্থানে জায়গা করে নিয়েছে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এতদিন ১১৩ দশমিক ২৮৬ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে ছিল অস্ট্রেলিয়া। আর ১১২ রেটিং পয়েন্টে দুইয়ে ছিল ভারত।

কিন্তু কিউইদের সঙ্গে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে জয় তুলে নিয়ে ১১৩ দশমিক ৪৮৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে বাবর-রিজওয়ানরা। যদিও এই সিরিজের আগে তালিকার পাঁচে ছিল পাকিস্তান। কিন্তু পাঁচ ম্যাচের সিরিজে চারে চার জয় তুলে নিয়ে ২০০৫ সালে চালু হওয়া র‍্যাঙ্কিং প্রথায় প্রথমবারের মতো শীর্ষে উঠে এলো দলটি। তবে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে ব্ল্যাক ক্যাপসদের সঙ্গে হেরে গেলে আবারও ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে তিনে নেমে যাবে পাকিস্তান।

এদিন করাচিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৩৪ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় দ্য ম্যান ইন গ্রিনরা। ওপেনিংয়ে নেমে ১০ চারে ১১৭ বলে ১০৭ রানের দারুণ এক ইনিংস উপহার দেন বাবর। আর এতে ব্যাটার হিসেবে দ্রুততম ৫ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি। এ ছাড়া ২ ছক্কা ও ৪ চারে ৪৬ বলে ৫৮ রান করেন আঘা সালমান।

অন্যদের মধ্যে শান মাসুদ ৪৪, ইফতিখার ২৮, রিজওয়ান ২৪ রান করেন। এ ছাড়া ৭ বলে ২৩ রানের অপরাজিত এক ক্যামিও ইনিংস খেলেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। কিউইদের হয়ে ১০ ওভারে ৬৫ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন ম্যাট হেনরি। এ ছাড়া বেন লিস্টার ও ইশ সৌধির শিকার একটি করে উইকেট। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক টম লাথামের অনবদ্য এক ইনিংসেও কাঙ্ক্ষিত জয় তুলে নিতে ব্যর্থ হয় সফরকারীরা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৬ রানের ইনিংস খেলেন ল্যাথাম।

এ ছাড়া মার্ক চ্যাপম্যান ৪৬ ও ড্যারিল মিচেল ৩৪ রান করেন। শেষদিকে মিডল-অর্ডারের ব্যর্থতায় মাত্র ৪৩ দশমিক ৪ ওভারে ২৩২ রানেই গুটিয়ে যায় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। পাকিস্তানের হয়ে উসামা মীর চারটি, মোহাম্মদ ওয়াসিম তিনটি, হারিস রউফ দুটি ও শাহীন আফ্রিদি একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ইতিহাস গড়ে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে পাকিস্তান

আপডেট সময় ১১:৩৮:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ মে ২০২৩

ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচেও ১০২ রানের বড় জয় পেয়েছে পাকিস্তান। এই জয়ে সিরিজে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল দ্য গ্রিন ম্যানরা। একই সঙ্গে আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়েও প্রথমবারের মতো তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে বাবর আজমের দল।

শুক্রবার (৫ মে) টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক বাবর আজমের সেঞ্চুরিতে ৬ উইকেটে ৩৩৪ রান করে স্বাগতিকরা। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২৩২ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। আর এই জয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডেতে শীর্ষস্থানে জায়গা করে নিয়েছে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এতদিন ১১৩ দশমিক ২৮৬ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে ছিল অস্ট্রেলিয়া। আর ১১২ রেটিং পয়েন্টে দুইয়ে ছিল ভারত।

কিন্তু কিউইদের সঙ্গে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে জয় তুলে নিয়ে ১১৩ দশমিক ৪৮৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে বাবর-রিজওয়ানরা। যদিও এই সিরিজের আগে তালিকার পাঁচে ছিল পাকিস্তান। কিন্তু পাঁচ ম্যাচের সিরিজে চারে চার জয় তুলে নিয়ে ২০০৫ সালে চালু হওয়া র‍্যাঙ্কিং প্রথায় প্রথমবারের মতো শীর্ষে উঠে এলো দলটি। তবে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে ব্ল্যাক ক্যাপসদের সঙ্গে হেরে গেলে আবারও ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে তিনে নেমে যাবে পাকিস্তান।

এদিন করাচিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৩৪ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় দ্য ম্যান ইন গ্রিনরা। ওপেনিংয়ে নেমে ১০ চারে ১১৭ বলে ১০৭ রানের দারুণ এক ইনিংস উপহার দেন বাবর। আর এতে ব্যাটার হিসেবে দ্রুততম ৫ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি। এ ছাড়া ২ ছক্কা ও ৪ চারে ৪৬ বলে ৫৮ রান করেন আঘা সালমান।

অন্যদের মধ্যে শান মাসুদ ৪৪, ইফতিখার ২৮, রিজওয়ান ২৪ রান করেন। এ ছাড়া ৭ বলে ২৩ রানের অপরাজিত এক ক্যামিও ইনিংস খেলেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। কিউইদের হয়ে ১০ ওভারে ৬৫ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন ম্যাট হেনরি। এ ছাড়া বেন লিস্টার ও ইশ সৌধির শিকার একটি করে উইকেট। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অধিনায়ক টম লাথামের অনবদ্য এক ইনিংসেও কাঙ্ক্ষিত জয় তুলে নিতে ব্যর্থ হয় সফরকারীরা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৬ রানের ইনিংস খেলেন ল্যাথাম।

এ ছাড়া মার্ক চ্যাপম্যান ৪৬ ও ড্যারিল মিচেল ৩৪ রান করেন। শেষদিকে মিডল-অর্ডারের ব্যর্থতায় মাত্র ৪৩ দশমিক ৪ ওভারে ২৩২ রানেই গুটিয়ে যায় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। পাকিস্তানের হয়ে উসামা মীর চারটি, মোহাম্মদ ওয়াসিম তিনটি, হারিস রউফ দুটি ও শাহীন আফ্রিদি একটি করে উইকেট নিয়েছেন।