০৩:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

এবার মুখোমুখি শাকিব-নিশো

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:০৬:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩
  • / ৫৫ বার পড়া হয়েছে

প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় আসতে চলেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশো। যিনি ইতোমধ্যেই নিজের অভিনয়ের দক্ষতা শুধু টিভিতেই সীমাবদ্ধ রাখেননি বরং ওটিটিতে এসে তার অভিনয়ে দশর্ক পেয়েছেন দেশের বাইরেও।

এবার তার বড় পর্দায় অভিষেক হতে যাচ্ছে। আর তিনি মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন বড় পর্দার সুপারস্টার শাকিব খানের। অন্তত এই দুই অভিনেতার ছবি মুক্তির তারিখ লক্ষ করলে তেমনটাই চোখে পড়বে। আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে শাকিব খান অভিনীত ‘প্রিয়তমা’। ইতোমধ্যে সিনেমাটির শুটিং শুরু হয়ে গেছে।

এ উপলক্ষে (১০ মে) এর ফার্স্টলুক পোস্টার প্রকাশ্যে আসে। যেখানে লম্বা চুলে ধরা দেন শাকিব, পেছনে ঝুঁটি বাঁধা। গলায় হাত রেখে সুদূরে বিষণ্ণ দৃষ্টি। বৃষ্টিতে ঠোঁটের ফাঁকে জ্বলন্ত সিগারেট। পোস্টারজুড়ে রহস্যের আভাস। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্টারটি শেয়ার করে ক্যাপশনে শাকিব লেখেন, ‘প্রিয়তমা’র যাত্রা শুরু’ সঙ্গে হ্যাশট্যাগে মুক্তির তারিখ জুড়ে দেন, ঈদুল আজহা-২০২৩।

হিমেল আশরাফের পরিচালনায় ‘প্রিয়তমা’ এ সিনেমার কাহিনি লিখেছেন প্রয়াত ফারুক হোসেন। যৌথভাবে চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন ফারুক হোসেন ও হিমেল আশরাফ। প্রযোজনা করছেন আরশাদ আদনান। এতে শাকিবের বিপরীতে নায়িকা চরিত্রে আছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইধিকা পাল।

অন্যদিকে, বুধবার (১০ মে) একই দিনে আফরান নিশো অভিনীত ‘সুড়ঙ্গ’ সিনেমার ফার্স্টলুক টিজার অন্তর্জালে প্রকাশ পেয়েছে। প্রায় দেড় মিনিটের এই টিজারজুড়ে রহস্যের গন্ধ। বাইরে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে, নির্জন বাড়িতে ঢেকে রাখা সুড়ঙ্গে নেমে পড়েন নিশো।

এরপর এগিয়ে যান সুড়ঙ্গের অপর প্রান্তে! পুরো টিজারে ছিল না কোনো সংলাপ। ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকে রোমাঞ্চের পারদ যখন চরমে তখনই শেষ দিকে স্ক্রিনে লেখা ওঠে, ‘প্রেক্ষাগৃহে দেখা হচ্ছে ঈদুল আজহায়।’

চলতি বছরের ২৮ মার্চ ‘সুড়ঙ্গ’ ছবির শুভ মহরত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মার্চের প্রথম সপ্তাহেই শুটিং শুরু করেন নির্মাতা রায়হান রাফী। চরকি ও আলফা আই স্টুডিওজ লিমিডেটের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত সিনেমাটিতে নিশোর বিপরীতে জুটি বেঁধেছেন তমা মির্জা।

প্রসঙ্গত, ঈদুল আজহায় এই দুই জনপ্রিয় তারকার প্রেক্ষাগৃহ যুদ্ধ দেখতে মুখিয়ে আছেন তাদের ভক্ত-দর্শকেরা। সবার প্রত্যাশা, মানসম্পন্ন নির্মাণ ও সুস্থ প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাবে ঢাকাই সিনেমা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

এবার মুখোমুখি শাকিব-নিশো

আপডেট সময় ০৯:০৬:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩

প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় আসতে চলেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশো। যিনি ইতোমধ্যেই নিজের অভিনয়ের দক্ষতা শুধু টিভিতেই সীমাবদ্ধ রাখেননি বরং ওটিটিতে এসে তার অভিনয়ে দশর্ক পেয়েছেন দেশের বাইরেও।

এবার তার বড় পর্দায় অভিষেক হতে যাচ্ছে। আর তিনি মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন বড় পর্দার সুপারস্টার শাকিব খানের। অন্তত এই দুই অভিনেতার ছবি মুক্তির তারিখ লক্ষ করলে তেমনটাই চোখে পড়বে। আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে শাকিব খান অভিনীত ‘প্রিয়তমা’। ইতোমধ্যে সিনেমাটির শুটিং শুরু হয়ে গেছে।

এ উপলক্ষে (১০ মে) এর ফার্স্টলুক পোস্টার প্রকাশ্যে আসে। যেখানে লম্বা চুলে ধরা দেন শাকিব, পেছনে ঝুঁটি বাঁধা। গলায় হাত রেখে সুদূরে বিষণ্ণ দৃষ্টি। বৃষ্টিতে ঠোঁটের ফাঁকে জ্বলন্ত সিগারেট। পোস্টারজুড়ে রহস্যের আভাস। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্টারটি শেয়ার করে ক্যাপশনে শাকিব লেখেন, ‘প্রিয়তমা’র যাত্রা শুরু’ সঙ্গে হ্যাশট্যাগে মুক্তির তারিখ জুড়ে দেন, ঈদুল আজহা-২০২৩।

হিমেল আশরাফের পরিচালনায় ‘প্রিয়তমা’ এ সিনেমার কাহিনি লিখেছেন প্রয়াত ফারুক হোসেন। যৌথভাবে চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন ফারুক হোসেন ও হিমেল আশরাফ। প্রযোজনা করছেন আরশাদ আদনান। এতে শাকিবের বিপরীতে নায়িকা চরিত্রে আছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইধিকা পাল।

অন্যদিকে, বুধবার (১০ মে) একই দিনে আফরান নিশো অভিনীত ‘সুড়ঙ্গ’ সিনেমার ফার্স্টলুক টিজার অন্তর্জালে প্রকাশ পেয়েছে। প্রায় দেড় মিনিটের এই টিজারজুড়ে রহস্যের গন্ধ। বাইরে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে, নির্জন বাড়িতে ঢেকে রাখা সুড়ঙ্গে নেমে পড়েন নিশো।

এরপর এগিয়ে যান সুড়ঙ্গের অপর প্রান্তে! পুরো টিজারে ছিল না কোনো সংলাপ। ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকে রোমাঞ্চের পারদ যখন চরমে তখনই শেষ দিকে স্ক্রিনে লেখা ওঠে, ‘প্রেক্ষাগৃহে দেখা হচ্ছে ঈদুল আজহায়।’

চলতি বছরের ২৮ মার্চ ‘সুড়ঙ্গ’ ছবির শুভ মহরত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মার্চের প্রথম সপ্তাহেই শুটিং শুরু করেন নির্মাতা রায়হান রাফী। চরকি ও আলফা আই স্টুডিওজ লিমিডেটের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত সিনেমাটিতে নিশোর বিপরীতে জুটি বেঁধেছেন তমা মির্জা।

প্রসঙ্গত, ঈদুল আজহায় এই দুই জনপ্রিয় তারকার প্রেক্ষাগৃহ যুদ্ধ দেখতে মুখিয়ে আছেন তাদের ভক্ত-দর্শকেরা। সবার প্রত্যাশা, মানসম্পন্ন নির্মাণ ও সুস্থ প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাবে ঢাকাই সিনেমা।