০৮:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

কর্নেল শহীদের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৫০:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩
  • / ৬৬ বার পড়া হয়েছে

অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল শহীদ উদ্দীন খান ও তার স্ত্রী-সন্তানের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিলের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাদের বিরুদ্ধে ৩৯ কোটি ৭৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ দখলের অভিযোগ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ মে) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ের সময় দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন এসব তথ্য জানান। দুদক সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, কর্নেল (অব.) শহীদ উদ্দীন খান, তার স্ত্রী ফারজানা আঞ্জুম খান, কন্যা শেহতাজ মুনাসী খান এবং কন্যা পারিসা পিনাজ খানের বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ২৮ এপ্রিল মামলাটি করেন দুদকের উপ-পরিচালক জালাল উদ্দিন আহাম্মদ।

মামলাটি তদন্ত করেন দুদকের আরেক উপপরিচালক নাজমুল হুসাইন। তদন্তে অসঙ্গতিপূর্ণভাবে অর্জিত ৩৯ কোটি ৭৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার সম্পদ রাখার সুনির্দিষ্ট তথ্য ওঠে আসে। পরে চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয়। শিগগিরই তা আদালতে দাখিল করা হবে বলে জানান তিনি। চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, কর্নেল অব. শহীদ উদ্দীন খান ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ২০১০ সালে কর্নেল পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ১৯৮৯ সালে ফারজানা আঞ্জুম খানকে বিয়ে করেন। তাদের দুই কন্যা শেহতাজ মুনাসী খান ও পারিসা পিনাজ খান। তিনি সপরিবারে বর্তমানে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দুদক সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, কর্নেল (অব.) শহীদ ইউটিউবে কী বলছেন না বলছেন, সেটা দুদকের বিষয় না। দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়টি স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দেশে মিউচুয়াল লিগ্যাল অ্যাসিসটেন্ট রিকোয়েস্ট (এমএলএআর) পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

কর্নেল শহীদের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট

আপডেট সময় ০৮:৫০:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩

অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল শহীদ উদ্দীন খান ও তার স্ত্রী-সন্তানের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিলের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাদের বিরুদ্ধে ৩৯ কোটি ৭৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ দখলের অভিযোগ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ মে) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ের সময় দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন এসব তথ্য জানান। দুদক সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, কর্নেল (অব.) শহীদ উদ্দীন খান, তার স্ত্রী ফারজানা আঞ্জুম খান, কন্যা শেহতাজ মুনাসী খান এবং কন্যা পারিসা পিনাজ খানের বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ২৮ এপ্রিল মামলাটি করেন দুদকের উপ-পরিচালক জালাল উদ্দিন আহাম্মদ।

মামলাটি তদন্ত করেন দুদকের আরেক উপপরিচালক নাজমুল হুসাইন। তদন্তে অসঙ্গতিপূর্ণভাবে অর্জিত ৩৯ কোটি ৭৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার সম্পদ রাখার সুনির্দিষ্ট তথ্য ওঠে আসে। পরে চার্জশিট দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয়। শিগগিরই তা আদালতে দাখিল করা হবে বলে জানান তিনি। চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, কর্নেল অব. শহীদ উদ্দীন খান ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ২০১০ সালে কর্নেল পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন। ১৯৮৯ সালে ফারজানা আঞ্জুম খানকে বিয়ে করেন। তাদের দুই কন্যা শেহতাজ মুনাসী খান ও পারিসা পিনাজ খান। তিনি সপরিবারে বর্তমানে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দুদক সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, কর্নেল (অব.) শহীদ ইউটিউবে কী বলছেন না বলছেন, সেটা দুদকের বিষয় না। দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়টি স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দেশে মিউচুয়াল লিগ্যাল অ্যাসিসটেন্ট রিকোয়েস্ট (এমএলএআর) পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।