০৩:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:২৮:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৭ বার পড়া হয়েছে

কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে জমির পাকা ধান কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন শরীয়তপুরের কৃষক রহমান বেপারী। বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে অসহায় কৃষকের পাশে দাঁড়ান ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পি।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) বাপ্পির নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ওই কৃষকের ৮০ শতক জমির পাকা ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেন। এতে শরীয়তপুরের পালং উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়নের মাকসাহার গ্রামের কৃষক রহমান বেপারীর মুখে হাসি ফুটেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পি বলেন, জমির ধান কাটা নিয়ে কৃষক রহমান বেপারী খুবই দুশ্চিন্তায় ছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে আমি নিজ খরচে পাঁচজন শ্রমিক এবং ছাত্রলীগের ৩০ জন নেতাকর্মীকে নিয়ে তার জমির ধান কেটে দেই। আমরা কৃষকের ৮০ শতক জমির ধান কেটে ক্ষেতেই মাড়াই করে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছি।

এতে কৃষক খুবই খুশি হয়েছেন। তার চোখে-মুখে আনন্দ ফুটে ওঠেছিল। গতবারও তিনি ধান কাটা নিয়ে সমস্যায় পড়েছিলেন, তখনও আমরা তার পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আহ্বানে সাড়া দিয়ে গত বছরের মতো এবারও দেশের সব জেলায় গরিব ও অসহায় কৃষকের পাকা ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিচ্ছে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলেন ছাত্রলীগ নেতা

আপডেট সময় ১০:২৮:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩

কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে জমির পাকা ধান কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন শরীয়তপুরের কৃষক রহমান বেপারী। বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে অসহায় কৃষকের পাশে দাঁড়ান ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পি।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) বাপ্পির নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ওই কৃষকের ৮০ শতক জমির পাকা ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেন। এতে শরীয়তপুরের পালং উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়নের মাকসাহার গ্রামের কৃষক রহমান বেপারীর মুখে হাসি ফুটেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পি বলেন, জমির ধান কাটা নিয়ে কৃষক রহমান বেপারী খুবই দুশ্চিন্তায় ছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে আমি নিজ খরচে পাঁচজন শ্রমিক এবং ছাত্রলীগের ৩০ জন নেতাকর্মীকে নিয়ে তার জমির ধান কেটে দেই। আমরা কৃষকের ৮০ শতক জমির ধান কেটে ক্ষেতেই মাড়াই করে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছি।

এতে কৃষক খুবই খুশি হয়েছেন। তার চোখে-মুখে আনন্দ ফুটে ওঠেছিল। গতবারও তিনি ধান কাটা নিয়ে সমস্যায় পড়েছিলেন, তখনও আমরা তার পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আহ্বানে সাড়া দিয়ে গত বছরের মতো এবারও দেশের সব জেলায় গরিব ও অসহায় কৃষকের পাকা ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দিচ্ছে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।