০৩:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

গুলশানে বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন, মেয়র আতিক

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৭:৩৬:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩
  • / ১৩০ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ-কোরিয়া বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে KOICA (কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি) এর উদ্যোগে গুলশানে ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কে বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (০২ মার্চ) বিকালে রাজধানীর গুলশানে ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কে ডিএনসিসি মেয়র বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন। মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশ ও কোরিয়ার মধ্যে সৌহার্দ্য ও ভাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যামান।

KOICA (কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি) এর বৃক্ষ রোপণের উদ্যোগ দুই দেশের সম্পর্ককে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে আর্থিক ও সাংস্কৃতিক সুসম্পর্ক রয়েছে। এ ধরনের কার্যক্রমে ভবিষ্যতে ডিএনসিসি সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে।’ পরিবেশের জন্য গাছের গুরুত্ব অপরিসীম উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘গাছ পরিবেশের অপরিহার্য উপাদান। অথচ ঢাকা শহরে গাছের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। ঢাকা শহরে যে অল্পকিছু গাছ আছে সেগুলোও কেটে স্থাপনা গড়ে তোলা হচ্ছে।

ঢাকার তাপমাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে। গাছপালা না থাকায় তাপমাত্রার অনুভূত হয় অনেক বেশি। ঢাকাকে বাঁচাতে হলে গাছ লাগাতে হবে।’ উল্লেখ্য, ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কের উন্নয়ন কার্যক্রম প্রায় শেষ পর্যায়ে। সহজ পরিচর্যা বিবেচনায় এই পার্কে দেশীয় ফলদ, বনজ বৃক্ষ, ঔষধি ও ফুলের গাছসহ প্রায় ৪৮০টি গাছ রোপণের প্রভিশন রয়েছে। ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট জোনে KOICA এর উদ্যোগে ৮৫টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপণ করা হবে এবং সংগঠনটি ৬ মাস পর্যন্ত উহার পরিচর্যা করার দায়িত্ব নিবে। এসময় ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন ডিএনসিসি মেয়রের বিভিন্ন ধরনের পরিবেশের উন্নয়ন বিষয়ক, জনসচেতনতা ও জনসেবামূলক কাজের প্রশংসা করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কোরিয়া বাংলাদেশ অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য (সচিব) মোসাঃ নাসিমা বেগম, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ. আমিরুল ইসলাম, ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

গুলশানে বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন, মেয়র আতিক

আপডেট সময় ০৭:৩৬:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩

বাংলাদেশ-কোরিয়া বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে KOICA (কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি) এর উদ্যোগে গুলশানে ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কে বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (০২ মার্চ) বিকালে রাজধানীর গুলশানে ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কে ডিএনসিসি মেয়র বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন। মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশ ও কোরিয়ার মধ্যে সৌহার্দ্য ও ভাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যামান।

KOICA (কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি) এর বৃক্ষ রোপণের উদ্যোগ দুই দেশের সম্পর্ককে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে আর্থিক ও সাংস্কৃতিক সুসম্পর্ক রয়েছে। এ ধরনের কার্যক্রমে ভবিষ্যতে ডিএনসিসি সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে।’ পরিবেশের জন্য গাছের গুরুত্ব অপরিসীম উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘গাছ পরিবেশের অপরিহার্য উপাদান। অথচ ঢাকা শহরে গাছের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। ঢাকা শহরে যে অল্পকিছু গাছ আছে সেগুলোও কেটে স্থাপনা গড়ে তোলা হচ্ছে।

ঢাকার তাপমাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে। গাছপালা না থাকায় তাপমাত্রার অনুভূত হয় অনেক বেশি। ঢাকাকে বাঁচাতে হলে গাছ লাগাতে হবে।’ উল্লেখ্য, ডাঃ ফজলে রাব্বি পার্কের উন্নয়ন কার্যক্রম প্রায় শেষ পর্যায়ে। সহজ পরিচর্যা বিবেচনায় এই পার্কে দেশীয় ফলদ, বনজ বৃক্ষ, ঔষধি ও ফুলের গাছসহ প্রায় ৪৮০টি গাছ রোপণের প্রভিশন রয়েছে। ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট জোনে KOICA এর উদ্যোগে ৮৫টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপণ করা হবে এবং সংগঠনটি ৬ মাস পর্যন্ত উহার পরিচর্যা করার দায়িত্ব নিবে। এসময় ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং কিউন ডিএনসিসি মেয়রের বিভিন্ন ধরনের পরিবেশের উন্নয়ন বিষয়ক, জনসচেতনতা ও জনসেবামূলক কাজের প্রশংসা করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কোরিয়া বাংলাদেশ অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ও পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য (সচিব) মোসাঃ নাসিমা বেগম, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ. আমিরুল ইসলাম, ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।