০৮:০৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ নিয়ে যে তথ্য দিলো ভারতের আবহাওয়া বিভাগ

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:৪৩:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩
  • / ৫৫ বার পড়া হয়েছে

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে কোথায় আঘাত হানবে এবং এর গতিপথ কোন দিকে যাচ্ছে, এনিয়ে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন আবহাওয়াবিদরা।

ভারতের আবহাওয়া বিভাগ বলছে, আগামী ৬ মে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। পরের দিন এটি নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে এবং ৮ মে এটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। এরপরই বোঝা যাবে ‘মোখা’র গতিবিধি। ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে সেটি কোথায় আঘাত হানবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার বিষয়টি এখনও নিশ্চিত না হলেও ভারতের আবহায়াদিবরা বলছেন, তামিলনাড়ু, চেন্নাই, অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়তে পারে। তবে, ‘মোখা’ যদি আঘাত না হানে তাহলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী ৭ মে দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যা পরবর্তীতে আরও ঘণীভূত হতে পারে। এ ছাড়া আপাতত আর কোনো তথ্য দিতে পারেনি বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ নিয়ে যে তথ্য দিলো ভারতের আবহাওয়া বিভাগ

আপডেট সময় ১০:৪৩:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে কোথায় আঘাত হানবে এবং এর গতিপথ কোন দিকে যাচ্ছে, এনিয়ে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন আবহাওয়াবিদরা।

ভারতের আবহাওয়া বিভাগ বলছে, আগামী ৬ মে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। পরের দিন এটি নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে এবং ৮ মে এটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। এরপরই বোঝা যাবে ‘মোখা’র গতিবিধি। ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে সেটি কোথায় আঘাত হানবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার বিষয়টি এখনও নিশ্চিত না হলেও ভারতের আবহায়াদিবরা বলছেন, তামিলনাড়ু, চেন্নাই, অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়তে পারে। তবে, ‘মোখা’ যদি আঘাত না হানে তাহলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী ৭ মে দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যা পরবর্তীতে আরও ঘণীভূত হতে পারে। এ ছাড়া আপাতত আর কোনো তথ্য দিতে পারেনি বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর।