০৯:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

চ্যাম্পিয়নস লিগে উত্তাপ ছড়ানোর অপেক্ষায় মিলান ডার্বি

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:৪৬:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫১ বার পড়া হয়েছে

বেনফিকার মাঠে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ২-০ গোলের জয়ে সেমির পথটা আগেই সুগম করে রেখেছিল ইন্টার মিলান। বুধবার (১৯ এপ্রিল) দ্বিতীয় লেগে কাজটা আরও সহজ করে নিলো ইন্টার। দ্বিতীয় লেগে ড্র করে প্রত্যাশিতভাবেই সেমিফাইনালে উঠেছে তারা।

যদিও পুরো ম্যাচজুড়েই চোখ রাঙিয়েছে বেনফিকা। এদিন সান সিরোতে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে উঠে পুরো ম্যাচ। শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোল ব্যবধানে শেষ হয় ম্যাচ। এর মধ্য দিয়ে প্রথম লেগে এগিয়ে থাকায় ৫-৩ গোলের অগ্রগামিতায় পর্তুগিজ ক্লাবটিকে বিদায় করেছে ইন্টার। এদিকে ফুটবল ভক্তরা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে মিলান ডার্বির দেখা পেতে যাচ্ছেন।

কারণ, শেষ আটের আরেক ম্যাচে নাপোলিকে হারিয়ে শেষ চারে উঠেছে এসি মিলান। সেমিফাইনালের দুই লেগে আগামী ৯ ও ১৬ মে মাঠে নামবে দল দুটি। আর এরই মধ্য দিয়ে প্রায় আট বছর পর কোনো ইতালিয়ান দলকে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে দেখা যাবে। সবশেষ ২০১৭ সালে ফাইনাল খেলেছিল জুভেন্টাস, সেবার রিয়ালের কাছে হেরে রানার্সআপ হয়েছিল তারা।

ম্যাচের ১৩তম মিনিটে বক্সের মধ্যে বল পেয়ে ইন্টারকে লিড এনে দেন নিকোলো বারেল্লা। তবে প্রথমার্ধের শেষ দিকে হেড থেকে গোল করে বেনফিকাকে সমতায় ফেরান ফ্রেডরিক অর্সনেস। বিরতির পরেই দুই গোল ব্যবধানে এগিয়ে যায় ইন্টার। আর্জেন্টাইন লাউতারো মার্তিনেস ও বদলি হিসেবে নামা জোয়াকিন কোরেয়ার গোলে লিড নেয় ইতালিয়ান ক্লাবটি।

কিন্তু কিছু সময় পরই গোল শোধ করে দেন বেনফিকার ডিফেন্ডার আন্তোনিও সিলভা এবং পিটার মুসা। এতে অবশ্য ইন্টারের সেমিফাইনালের দরজা বন্ধ হয়নি। ২০১০ সালের পর আবারও শেষ চারে উঠেছে দলটি। সেবার ফাইনালে খেলেছি ইন্টার, আর বায়ার্নকে হারিয়ে তৃতীয় শিরোপাও ঘরে তুলেছিল তারা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

চ্যাম্পিয়নস লিগে উত্তাপ ছড়ানোর অপেক্ষায় মিলান ডার্বি

আপডেট সময় ০৯:৪৬:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩

বেনফিকার মাঠে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ২-০ গোলের জয়ে সেমির পথটা আগেই সুগম করে রেখেছিল ইন্টার মিলান। বুধবার (১৯ এপ্রিল) দ্বিতীয় লেগে কাজটা আরও সহজ করে নিলো ইন্টার। দ্বিতীয় লেগে ড্র করে প্রত্যাশিতভাবেই সেমিফাইনালে উঠেছে তারা।

যদিও পুরো ম্যাচজুড়েই চোখ রাঙিয়েছে বেনফিকা। এদিন সান সিরোতে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে উঠে পুরো ম্যাচ। শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোল ব্যবধানে শেষ হয় ম্যাচ। এর মধ্য দিয়ে প্রথম লেগে এগিয়ে থাকায় ৫-৩ গোলের অগ্রগামিতায় পর্তুগিজ ক্লাবটিকে বিদায় করেছে ইন্টার। এদিকে ফুটবল ভক্তরা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে মিলান ডার্বির দেখা পেতে যাচ্ছেন।

কারণ, শেষ আটের আরেক ম্যাচে নাপোলিকে হারিয়ে শেষ চারে উঠেছে এসি মিলান। সেমিফাইনালের দুই লেগে আগামী ৯ ও ১৬ মে মাঠে নামবে দল দুটি। আর এরই মধ্য দিয়ে প্রায় আট বছর পর কোনো ইতালিয়ান দলকে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে দেখা যাবে। সবশেষ ২০১৭ সালে ফাইনাল খেলেছিল জুভেন্টাস, সেবার রিয়ালের কাছে হেরে রানার্সআপ হয়েছিল তারা।

ম্যাচের ১৩তম মিনিটে বক্সের মধ্যে বল পেয়ে ইন্টারকে লিড এনে দেন নিকোলো বারেল্লা। তবে প্রথমার্ধের শেষ দিকে হেড থেকে গোল করে বেনফিকাকে সমতায় ফেরান ফ্রেডরিক অর্সনেস। বিরতির পরেই দুই গোল ব্যবধানে এগিয়ে যায় ইন্টার। আর্জেন্টাইন লাউতারো মার্তিনেস ও বদলি হিসেবে নামা জোয়াকিন কোরেয়ার গোলে লিড নেয় ইতালিয়ান ক্লাবটি।

কিন্তু কিছু সময় পরই গোল শোধ করে দেন বেনফিকার ডিফেন্ডার আন্তোনিও সিলভা এবং পিটার মুসা। এতে অবশ্য ইন্টারের সেমিফাইনালের দরজা বন্ধ হয়নি। ২০১০ সালের পর আবারও শেষ চারে উঠেছে দলটি। সেবার ফাইনালে খেলেছি ইন্টার, আর বায়ার্নকে হারিয়ে তৃতীয় শিরোপাও ঘরে তুলেছিল তারা।