১২:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে মাকে পিটিয়ে জখম

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:০০:৪২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩
  • / ৭৯ বার পড়া হয়েছে

গাজীপুরের উপজেলার বলেয়াদী বকশী বাড়ী এলাকায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাসহ তিনজনকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় সুমন বকশী বাদী হয়ে বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) বিকেলে উপজেলার বকশিবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। আহতরা হলেন- উপজেলার বকশি বাড়ি গ্রামের ওয়াছেল বকশীর স্ত্রী লাইলী বেগম (৮০), মিন্টু বকশি (৫২) ও জেসমিন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা বকশিবাড়ী এলাকায় জমি নিয়ে বড় ভাই ফারুক বকশির সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। ওই ঘটনায় নিয়ে এলাকায় কয়েকবার বৈঠক হলেও কোনো সমাধান আসেননি বড় ভাই ফারক বকশী। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার বিকেলে ফারুক বকশী নেতৃত্বে ৫-৬ জন লোক নিয়ে ওই জমিতে দখল ও জমির চারপাশে বাউন্ডারি করতে যান।

খবর পেয়ে সুমন বকশী, ভাই মিন্টু, তার স্ত্রীর জেসমিন ও মা লাইলী বেগম বাধা দিতে গেলে ফারুক বকশীর লোকজন তাদের উপর চড়াও হয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে। এ সময় সুমনের স্ত্রীর গলায় থাকা এক ভরি স্বর্ণের চেইন ও মিন্টু বকশীর পকেট থেকে ২৫ হাজার টাকা রাজিব ও রাহাত লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। পরে তাদের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে। ফারুক বকশি ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সুমন বাদী হয়ে শুক্রবার বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তবে বিবাদী ফারুক বকশী জানান, আমার বিক্রি জমি বুঝিয়ে দিতে গেলে সুমনসহ কয়েকজন আমার উপর আক্রমণ করে। আমাকে পিটিয়ে আহত করেছেন। কালিয়াকৈর থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক ফেন্সি জুয়েল জানান, জমি সংক্রান্ত ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে মাকে পিটিয়ে জখম

আপডেট সময় ১০:০০:৪২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩

গাজীপুরের উপজেলার বলেয়াদী বকশী বাড়ী এলাকায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাসহ তিনজনকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় সুমন বকশী বাদী হয়ে বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) বিকেলে উপজেলার বকশিবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। আহতরা হলেন- উপজেলার বকশি বাড়ি গ্রামের ওয়াছেল বকশীর স্ত্রী লাইলী বেগম (৮০), মিন্টু বকশি (৫২) ও জেসমিন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা বকশিবাড়ী এলাকায় জমি নিয়ে বড় ভাই ফারুক বকশির সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। ওই ঘটনায় নিয়ে এলাকায় কয়েকবার বৈঠক হলেও কোনো সমাধান আসেননি বড় ভাই ফারক বকশী। তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার বিকেলে ফারুক বকশী নেতৃত্বে ৫-৬ জন লোক নিয়ে ওই জমিতে দখল ও জমির চারপাশে বাউন্ডারি করতে যান।

খবর পেয়ে সুমন বকশী, ভাই মিন্টু, তার স্ত্রীর জেসমিন ও মা লাইলী বেগম বাধা দিতে গেলে ফারুক বকশীর লোকজন তাদের উপর চড়াও হয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে। এ সময় সুমনের স্ত্রীর গলায় থাকা এক ভরি স্বর্ণের চেইন ও মিন্টু বকশীর পকেট থেকে ২৫ হাজার টাকা রাজিব ও রাহাত লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। পরে তাদের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে। ফারুক বকশি ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এলাকাবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সুমন বাদী হয়ে শুক্রবার বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তবে বিবাদী ফারুক বকশী জানান, আমার বিক্রি জমি বুঝিয়ে দিতে গেলে সুমনসহ কয়েকজন আমার উপর আক্রমণ করে। আমাকে পিটিয়ে আহত করেছেন। কালিয়াকৈর থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক ফেন্সি জুয়েল জানান, জমি সংক্রান্ত ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।