০৫:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই : ত্রাণমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০২:২৪:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ মে ২০২৩
  • / ৪৮ বার পড়া হয়েছে

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, ভাটা শুরু হওয়ায় ঘূর্ণিঝড় মোখার প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই। তবে অন্য বছরের থেকে আমাদের এবারের প্রস্তুতি ও ব্যবস্থাপনা সবচেয়ে ভালো।

রবিবার (১৪ মে) দুপুরে সচিবালয়ের নিজ দপ্তরে সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান। ডা. এনামুর রহমান বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ আর রোববার দুপুর ২টার মধ্যে কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করবে। আর বেলা ৩টার মধ্যে পুরো ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করে চলে যাবে। তিনি বলেন, উপকূলীয় এলাকায় এ পর্যন্ত সাড়ে সাত লাখের বেশি মানুষ বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে উঠেছেন।

এছাড়া যেকোনও পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস প্রস্তুত আছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষতির তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রতিমন্ত্রী জানান, এরইমধ্যে দুর্গত মানুষের জন্য ২০ লাখ টাকা, ২০০ টন চাল, ১৪ টন বিস্কুট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই : ত্রাণমন্ত্রী

আপডেট সময় ০২:২৪:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ মে ২০২৩

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, ভাটা শুরু হওয়ায় ঘূর্ণিঝড় মোখার প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা নেই। তবে অন্য বছরের থেকে আমাদের এবারের প্রস্তুতি ও ব্যবস্থাপনা সবচেয়ে ভালো।

রবিবার (১৪ মে) দুপুরে সচিবালয়ের নিজ দপ্তরে সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান। ডা. এনামুর রহমান বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ আর রোববার দুপুর ২টার মধ্যে কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করবে। আর বেলা ৩টার মধ্যে পুরো ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করে চলে যাবে। তিনি বলেন, উপকূলীয় এলাকায় এ পর্যন্ত সাড়ে সাত লাখের বেশি মানুষ বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে উঠেছেন।

এছাড়া যেকোনও পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস প্রস্তুত আছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষতির তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রতিমন্ত্রী জানান, এরইমধ্যে দুর্গত মানুষের জন্য ২০ লাখ টাকা, ২০০ টন চাল, ১৪ টন বিস্কুট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।