০৬:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

জাতিসংঘের সিএসডব্লিউ’র সদস্য হলো বাংলাদেশ

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:৩৪:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৮০ বার পড়া হয়েছে

কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অব উইমেনের (সিএসডব্লিউ) ২০২৪-২০২৮ মেয়াদের জন্য সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ। বুধবার (৫ এপ্রিল) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সর্বসম্মতিক্রমে বাংলাদেশ সদস্য পদ লাভ করে।

নির্বাচনে বাংলাদেশ ছাড়াও বেলজিয়াম, শ্রীলঙ্কা, নেদারল্যান্ডস, মালি, বলিভিয়া, রোমানিয়া, ব্রাজিল ও কলম্বিয়া এ সংস্থার সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। এক প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মোহাম্মাদ আব্দুল মুহিত সংবাদমাধ্যমকে বলেন, লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের রোল মডেল বাংলাদেশ। এ বিজয় লিঙ্গ সমতা, নারীর অধিকার ও ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের অর্জনের স্বীকৃতি।জাতিসংঘের প্রধান বৈশ্বিক আন্তঃসরকারি সংস্থা হলো কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অব উইমেন।

এটি ৪৫টি সদস্য দেশ নিয়ে গঠিত। সংস্থাটি লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের জন্য বিশেষভাবে কাজ করে থাকে। জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রতি বছর এ অঙ্গসংস্থার সপ্তাহব্যাপী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সদস্য রাষ্ট্রগুলো, সুশীল সমাজ ও অন্যান্য অংশীজনরা বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা অর্জনের অগ্রগতি মূল্যায়নের ক্ষেত্রে বিদ্যমান চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করে বৈশ্বিক মান নির্ধারণ ও বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা এবং নারীর ক্ষমতায়নে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন করে থাকে।

উল্লেখ্য, ২০১৯-২০২৩ মেয়াদেও বাংলাদেশ এই কমিশনের সদস্য হিসেবে কাজ করেছে।স্থায়ী মিশন বলছে, লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন কর্মসূচিকে আরও এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সিএসডব্লিউ’র সদস্য হিসেবে বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের অর্জন তুলে ধরা এবং অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রের সঙ্গে সর্বোত্তম অনুশীলনগুলো ভাগ করার জন্য এটি একটি অনবদ্য প্ল্যাটফর্ম।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

জাতিসংঘের সিএসডব্লিউ’র সদস্য হলো বাংলাদেশ

আপডেট সময় ০৯:৩৪:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অব উইমেনের (সিএসডব্লিউ) ২০২৪-২০২৮ মেয়াদের জন্য সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ। বুধবার (৫ এপ্রিল) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সর্বসম্মতিক্রমে বাংলাদেশ সদস্য পদ লাভ করে।

নির্বাচনে বাংলাদেশ ছাড়াও বেলজিয়াম, শ্রীলঙ্কা, নেদারল্যান্ডস, মালি, বলিভিয়া, রোমানিয়া, ব্রাজিল ও কলম্বিয়া এ সংস্থার সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। এক প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মোহাম্মাদ আব্দুল মুহিত সংবাদমাধ্যমকে বলেন, লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের রোল মডেল বাংলাদেশ। এ বিজয় লিঙ্গ সমতা, নারীর অধিকার ও ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের অর্জনের স্বীকৃতি।জাতিসংঘের প্রধান বৈশ্বিক আন্তঃসরকারি সংস্থা হলো কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অব উইমেন।

এটি ৪৫টি সদস্য দেশ নিয়ে গঠিত। সংস্থাটি লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের জন্য বিশেষভাবে কাজ করে থাকে। জাতিসংঘ সদর দপ্তরে প্রতি বছর এ অঙ্গসংস্থার সপ্তাহব্যাপী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সদস্য রাষ্ট্রগুলো, সুশীল সমাজ ও অন্যান্য অংশীজনরা বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা অর্জনের অগ্রগতি মূল্যায়নের ক্ষেত্রে বিদ্যমান চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করে বৈশ্বিক মান নির্ধারণ ও বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা এবং নারীর ক্ষমতায়নে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন করে থাকে।

উল্লেখ্য, ২০১৯-২০২৩ মেয়াদেও বাংলাদেশ এই কমিশনের সদস্য হিসেবে কাজ করেছে।স্থায়ী মিশন বলছে, লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন কর্মসূচিকে আরও এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সিএসডব্লিউ’র সদস্য হিসেবে বিশ্বব্যাপী লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের অর্জন তুলে ধরা এবং অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রের সঙ্গে সর্বোত্তম অনুশীলনগুলো ভাগ করার জন্য এটি একটি অনবদ্য প্ল্যাটফর্ম।