০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

‘ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেট চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৩০:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৯ বার পড়া হয়েছে

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, রাজধানী ঢাকার ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেটগুলো চিহ্নিত করে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর যে সুপারিশ করেছে তা বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ আইন ও শক্তি প্রয়োগ করা হবে।

সোমবার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ঈদুল ফিতরের ছুটি শেষে প্রথম কর্মদিবসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেট নিয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর জরিপ করে যে সুপারিশ দিয়েছে তা বাস্তবায়নের জন্য সর্বোচ্চ আইন ও শক্তি প্রয়োগ করা হবে। এখন ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা ও সামর্থ্য বেড়েছে। উন্নত বিশ্বেও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষয়ক্ষতি হয়।

হতাশ হওয়ার কিছু নেই। উন্নত দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমাদের সক্ষমতাও বাড়ছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গববাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ফায়ার সার্ভিসসহ বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষের সহায়তায় ছয় ঘণ্টায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়েছে। সেখানে ফায়ার সার্ভিসের ৪৮টি ইউনিট ও ৭২২ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী আগুন নেভানোর কাজ করেছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব মন্দা ও আর্থিক সংকটের মধ্যেও দেশের মানুষের সামর্থ্য বেড়েছে। এটা আমাকে আনন্দ দিয়েছে। এবার ঈদের জামাতের পর কোলাকুলির দীর্ঘ লাইন ছিল। এতো লম্বা লাইন আগে কখনও দেখিনি। বোঝা গেলো এবার সবার মনে আনন্দ আছে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

‘ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেট চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’

আপডেট সময় ০৮:৩০:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, রাজধানী ঢাকার ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেটগুলো চিহ্নিত করে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর যে সুপারিশ করেছে তা বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ আইন ও শক্তি প্রয়োগ করা হবে।

সোমবার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ঈদুল ফিতরের ছুটি শেষে প্রথম কর্মদিবসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ মার্কেট নিয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর জরিপ করে যে সুপারিশ দিয়েছে তা বাস্তবায়নের জন্য সর্বোচ্চ আইন ও শক্তি প্রয়োগ করা হবে। এখন ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা ও সামর্থ্য বেড়েছে। উন্নত বিশ্বেও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষয়ক্ষতি হয়।

হতাশ হওয়ার কিছু নেই। উন্নত দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমাদের সক্ষমতাও বাড়ছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গববাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ফায়ার সার্ভিসসহ বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষের সহায়তায় ছয় ঘণ্টায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়েছে। সেখানে ফায়ার সার্ভিসের ৪৮টি ইউনিট ও ৭২২ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী আগুন নেভানোর কাজ করেছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব মন্দা ও আর্থিক সংকটের মধ্যেও দেশের মানুষের সামর্থ্য বেড়েছে। এটা আমাকে আনন্দ দিয়েছে। এবার ঈদের জামাতের পর কোলাকুলির দীর্ঘ লাইন ছিল। এতো লম্বা লাইন আগে কখনও দেখিনি। বোঝা গেলো এবার সবার মনে আনন্দ আছে।