০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

ডিএনসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতার আশ্বাস ফিনল্যান্ডের

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:১৫:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩
  • / ৫৭ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসির) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও বৈঠক করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদি। মঙ্গলবার (২১ মার্চ ) সকালে রাজধানীর গুলশানে নগর ভবনে ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতা প্রদানের আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত। বৈঠকে আলাপকালে ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতকে ডিএনসিসি মেয়র ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অনলাইনে হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় ও ট্রেডলাইসেন্স প্রদান, সবার ঢাকা অ্যাপে সেবা প্রদানসহ অন্যান্য সেবা সম্পর্কে অবগত করে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন সেবা প্রদান করছি।

এ মুহুর্তে আমরা স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। ফিনল্যান্ড প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ফিনল্যান্ড আমাদেরকে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদান করতে পারে। ফলে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে।’ ফিনল্যান্ডের উন্নত বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘ঢাকায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় প্রয়োজনীয় সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন নির্মাণের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা নেই। ঢাকা শহরে ফিনল্যান্ডের মতো আন্ডারগ্রাউন্ড সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন (এসটিএস) নির্মাণের মাধ্যমে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সঠিক সমাধান করা যেতে পারে।’

ডিএনসিসিতে এসটিএস নির্মাণে ফিনল্যান্ডের কারিগরি ও আর্থিক সহযোগিতার আহবান করেন মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। এসময় সুখী দেশের তালিকায় ফিনল্যান্ড আবারও শীর্ষে অবস্থান করায় রাষ্ট্রদূতকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান ডিএনসিসি মেয়র। ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদি ঢাকা শহরের অবকাঠামোগত উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘প্রযুক্তির বিভিন্ন খাতে ফিনল্যান্ডের কাজ করার সুযোগ রয়েছে। স্মার্ট সিটি গড়তে আধুনিক প্রযুক্তি সরবরাহে ফিনল্যান্ড বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে পারে।

টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ফিনল্যান্ড প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদান করবে। নোকিয়াসহ অন্যান্য কোম্পানীও বাংলাদেশে কার্যক্রম প্রসারিত করতে আগ্রহী। নগর ভবনে বৈঠকের শুরুতে ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। বৈঠক শেষে ডিএনসিসি মেয়র এবং ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত একে অপরকে সম্মাননা স্মারক ও উপহারসামগ্রী তুলে দেন।

এসময় ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, নয়াদিল্লির ফিনল্যান্ড দূতাবাসের ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কনসুলার কিমো সিরা, সেকেন্ড সেক্রেটারি রাউলি কোস্টামো, ইকোনমি অ্যান্ড কমার্শিয়াল বিষয়ক উপদেষ্টা রায় চক্রবর্তী, অনারারি কনস্যুলেট জেনারেল অব ফিনল্যান্ড ঢাকার সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার কর্ণেল (অবঃ) জাওয়াদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ডিএনসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতার আশ্বাস ফিনল্যান্ডের

আপডেট সময় ১০:১৫:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসির) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও বৈঠক করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদি। মঙ্গলবার (২১ মার্চ ) সকালে রাজধানীর গুলশানে নগর ভবনে ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতা প্রদানের আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত। বৈঠকে আলাপকালে ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতকে ডিএনসিসি মেয়র ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অনলাইনে হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় ও ট্রেডলাইসেন্স প্রদান, সবার ঢাকা অ্যাপে সেবা প্রদানসহ অন্যান্য সেবা সম্পর্কে অবগত করে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন সেবা প্রদান করছি।

এ মুহুর্তে আমরা স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছি। ফিনল্যান্ড প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ফিনল্যান্ড আমাদেরকে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদান করতে পারে। ফলে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে।’ ফিনল্যান্ডের উন্নত বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন, ‘ঢাকায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় প্রয়োজনীয় সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন নির্মাণের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা নেই। ঢাকা শহরে ফিনল্যান্ডের মতো আন্ডারগ্রাউন্ড সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন (এসটিএস) নির্মাণের মাধ্যমে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সঠিক সমাধান করা যেতে পারে।’

ডিএনসিসিতে এসটিএস নির্মাণে ফিনল্যান্ডের কারিগরি ও আর্থিক সহযোগিতার আহবান করেন মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। এসময় সুখী দেশের তালিকায় ফিনল্যান্ড আবারও শীর্ষে অবস্থান করায় রাষ্ট্রদূতকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান ডিএনসিসি মেয়র। ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদি ঢাকা শহরের অবকাঠামোগত উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘প্রযুক্তির বিভিন্ন খাতে ফিনল্যান্ডের কাজ করার সুযোগ রয়েছে। স্মার্ট সিটি গড়তে আধুনিক প্রযুক্তি সরবরাহে ফিনল্যান্ড বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে পারে।

টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ফিনল্যান্ড প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদান করবে। নোকিয়াসহ অন্যান্য কোম্পানীও বাংলাদেশে কার্যক্রম প্রসারিত করতে আগ্রহী। নগর ভবনে বৈঠকের শুরুতে ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রিতভা কাউক্কু রুনদিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। বৈঠক শেষে ডিএনসিসি মেয়র এবং ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত একে অপরকে সম্মাননা স্মারক ও উপহারসামগ্রী তুলে দেন।

এসময় ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, নয়াদিল্লির ফিনল্যান্ড দূতাবাসের ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কনসুলার কিমো সিরা, সেকেন্ড সেক্রেটারি রাউলি কোস্টামো, ইকোনমি অ্যান্ড কমার্শিয়াল বিষয়ক উপদেষ্টা রায় চক্রবর্তী, অনারারি কনস্যুলেট জেনারেল অব ফিনল্যান্ড ঢাকার সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার কর্ণেল (অবঃ) জাওয়াদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।