০১:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয়ে যা বললেন শাকিব খান

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:১২:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩
  • / ৬৯ বার পড়া হয়েছে

চিত্রনায়ক শাকিব খান বলেছেন, বাটপার রহমত উল্লাহ শুধু আমার সঙ্গে প্রতারণা করেনি, গোটা চলচ্চিত্রের মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। আমাকে পছন্দ করে এমন দেশের লাখো-কোটি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। এ সময় প্রযোজক রহমত উল্লাহকে ভুয়া ও বাটপার বলেও আখ্যা দেন তিনি।

রোববার রাতে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয় সাংবাদিকদের সামনে তিনি এসব কথা বলেন। শাকিব খান জানান, রোববার রাতে সেই রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অভিযোগ দেওয়ার জন্য গিয়েছিলেন কিন্তু থানা পুলিশ তার অভিযোগ আমলে নেয়নি। এজন্য তিনি ওসিকে বুঝিয়েছেন কিন্তু কোনোভাবে ওসি তার মামলা নেয়নি। এর পর অপারগ হয়ে তিনি থানা থেকে বেরিয়ে আসেন।

প্রযোজক রহমত উল্লাহ শুধু তার সঙ্গে নয়, গোটা চলচ্চিত্র জগতের মানুষের সঙ্গে প্রতারণার পাশাপাশি তার সারাদেশে থাকা ভক্তদের সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের কোটি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। ভুয়া সংবাদগুলো সবার মধ্যে ছড়িয়েছে। আমার মনে হয় শুধু রহমত উল্লাহ একা ছিলেন না, রহমত উল্লাহর পেছনে আরও অনেক লোক ছিলেন।

না হলে এই বাটপার রহমতুল্লাহ এফডিসির ভেতরে গিয়ে আমাদের তিন থেকে চারটি ভাইটাল অ্যাসোসিয়েশনের কাছে প্রযোজক সেজে ভুয়া তথ্যগুলো দিয়ে ভুয়া বিচার চেয়েছে এবং আপনাদের মিডিয়ার কাছে কিন্তু বারবার একটি কথাই বলছে আমাকে টাকা দিয়ে দিক, আমি চলে যাব। আমাকে টাকা দিয়ে দিক, আমি উইথড্র করে নেব এবং আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য কিন্তু সে মরিয়া হয়ে গেছে। অপু বিশ্বাসকে দিয়ে সে আমার সঙ্গে একবার দেখা করেছে। ছবিও তুলেছে। সেখানে কিন্তু সে বলেছে আস্তে করে বলেছে টাকাটা দিয়ে দেন চলে যাব। আপনি আপস করতে চেয়েছিলেন বলে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি সেটাই বলছি এটাও কিন্তু তার আরেকটা প্রতারণার ফাঁদ ছিল।

সে আমার সঙ্গে ছবি তুলে প্রকাশ করে তাৎক্ষণিকভাবে বলেছে যে আমার কাছে এসেছিল, তিনশ টাকার স্ট্যাম্প নিয়ে এসেছিল, সে আমার সঙ্গে সমঝোতা করতে এসেছিল আমি এখনো আপোষ করিনি। এই প্রতারক যে দিনের পর দিন সবার সঙ্গে প্রতারণা করে গেছে, আপনাদের গতকাল বলেছি আপনারা যদি মিডিয়া ওইখানে গিয়ে প্রযোজক সমিতিতে চেক করে দেখতে তাহলে দেখতে পারতেন ২০১৬ সাল থেকে আজ পর্যন্ত এই ছবির প্রযোজনা সংস্থা পারটেক্স মিডিয়া ও তার কর্ণধার হচ্ছে আরেকজন। জানে আলম শাহ। এই কোনো প্রযোজকই না, তার সঙ্গে আমার ও পরিচালকসহ কারও কোনো ধরনের ডিল নেই।

সম্প্রতি শাকিব খানের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধরনের অনিয়মের অভিযোগ এনে শিল্পী সমিতিসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি সমিতিতে লিখিত অভিযোগ জমা দেন ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ ছবির অন্যতম প্রযোজক রহমত উল্লাহ। গত বৃহস্পতিবার বিকালে বিষয়টি নিয়ে মীমাংসার জন্য এক টেবিলে বসে দুই পক্ষ। শাকিব মীমাংসা চাইলেও অনড় অবস্থানে রয়েছেন সেই প্রযোজক। আশিকুর রহমানের পরিচালনায় ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে নায়িকা ছিলেন নবাগত সিবা আলী খান। ওই সময় ছবিটির টিজার অন্তর্জালে বেশ ঝড় তোলে। ছবিটি ঘিরে ভক্ত-দর্শকের আলাদা উন্মাদনা থাকলেও পরে আর আলোর মুখ দেখেনি ছবিটি।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয়ে যা বললেন শাকিব খান

আপডেট সময় ০৮:১২:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩

চিত্রনায়ক শাকিব খান বলেছেন, বাটপার রহমত উল্লাহ শুধু আমার সঙ্গে প্রতারণা করেনি, গোটা চলচ্চিত্রের মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। আমাকে পছন্দ করে এমন দেশের লাখো-কোটি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। এ সময় প্রযোজক রহমত উল্লাহকে ভুয়া ও বাটপার বলেও আখ্যা দেন তিনি।

রোববার রাতে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয় সাংবাদিকদের সামনে তিনি এসব কথা বলেন। শাকিব খান জানান, রোববার রাতে সেই রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অভিযোগ দেওয়ার জন্য গিয়েছিলেন কিন্তু থানা পুলিশ তার অভিযোগ আমলে নেয়নি। এজন্য তিনি ওসিকে বুঝিয়েছেন কিন্তু কোনোভাবে ওসি তার মামলা নেয়নি। এর পর অপারগ হয়ে তিনি থানা থেকে বেরিয়ে আসেন।

প্রযোজক রহমত উল্লাহ শুধু তার সঙ্গে নয়, গোটা চলচ্চিত্র জগতের মানুষের সঙ্গে প্রতারণার পাশাপাশি তার সারাদেশে থাকা ভক্তদের সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের কোটি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। ভুয়া সংবাদগুলো সবার মধ্যে ছড়িয়েছে। আমার মনে হয় শুধু রহমত উল্লাহ একা ছিলেন না, রহমত উল্লাহর পেছনে আরও অনেক লোক ছিলেন।

না হলে এই বাটপার রহমতুল্লাহ এফডিসির ভেতরে গিয়ে আমাদের তিন থেকে চারটি ভাইটাল অ্যাসোসিয়েশনের কাছে প্রযোজক সেজে ভুয়া তথ্যগুলো দিয়ে ভুয়া বিচার চেয়েছে এবং আপনাদের মিডিয়ার কাছে কিন্তু বারবার একটি কথাই বলছে আমাকে টাকা দিয়ে দিক, আমি চলে যাব। আমাকে টাকা দিয়ে দিক, আমি উইথড্র করে নেব এবং আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য কিন্তু সে মরিয়া হয়ে গেছে। অপু বিশ্বাসকে দিয়ে সে আমার সঙ্গে একবার দেখা করেছে। ছবিও তুলেছে। সেখানে কিন্তু সে বলেছে আস্তে করে বলেছে টাকাটা দিয়ে দেন চলে যাব। আপনি আপস করতে চেয়েছিলেন বলে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি সেটাই বলছি এটাও কিন্তু তার আরেকটা প্রতারণার ফাঁদ ছিল।

সে আমার সঙ্গে ছবি তুলে প্রকাশ করে তাৎক্ষণিকভাবে বলেছে যে আমার কাছে এসেছিল, তিনশ টাকার স্ট্যাম্প নিয়ে এসেছিল, সে আমার সঙ্গে সমঝোতা করতে এসেছিল আমি এখনো আপোষ করিনি। এই প্রতারক যে দিনের পর দিন সবার সঙ্গে প্রতারণা করে গেছে, আপনাদের গতকাল বলেছি আপনারা যদি মিডিয়া ওইখানে গিয়ে প্রযোজক সমিতিতে চেক করে দেখতে তাহলে দেখতে পারতেন ২০১৬ সাল থেকে আজ পর্যন্ত এই ছবির প্রযোজনা সংস্থা পারটেক্স মিডিয়া ও তার কর্ণধার হচ্ছে আরেকজন। জানে আলম শাহ। এই কোনো প্রযোজকই না, তার সঙ্গে আমার ও পরিচালকসহ কারও কোনো ধরনের ডিল নেই।

সম্প্রতি শাকিব খানের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধরনের অনিয়মের অভিযোগ এনে শিল্পী সমিতিসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি সমিতিতে লিখিত অভিযোগ জমা দেন ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ ছবির অন্যতম প্রযোজক রহমত উল্লাহ। গত বৃহস্পতিবার বিকালে বিষয়টি নিয়ে মীমাংসার জন্য এক টেবিলে বসে দুই পক্ষ। শাকিব মীমাংসা চাইলেও অনড় অবস্থানে রয়েছেন সেই প্রযোজক। আশিকুর রহমানের পরিচালনায় ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে নায়িকা ছিলেন নবাগত সিবা আলী খান। ওই সময় ছবিটির টিজার অন্তর্জালে বেশ ঝড় তোলে। ছবিটি ঘিরে ভক্ত-দর্শকের আলাদা উন্মাদনা থাকলেও পরে আর আলোর মুখ দেখেনি ছবিটি।