০৮:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

‘দেশের শ্রমজীবীরা ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে বাধ্য হন’

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৭:৫৫:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৯ বার পড়া হয়েছে

আমাদের দেশের লাখ লাখ শ্রমজীবী মানুষ দৈনিক ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে বাধ্য হন বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা বুকে হাত দিয়ে এ কথা বলতে পারব না যে, বাংলাদেশে দৈনিক আট ঘণ্টার বেশি কোনো শ্রমিককে কাজ করানো হয় না। যদিও আমাদের দেশের শ্রম আইন বলে ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করানো যাবে না।

তিনি বলেন, সরকার অত্যাবশ্যক পরিষেবা আইন করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের চেষ্টা করছে, শ্রমিকদেরও নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে। এর মাধ্যমে দ্রুত সাজা দেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। শ্রমিক দিবসে এসব কালাকানুন বাতিলের দাবি জানানো হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, আগামী পহেলা মে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শোভাযাত্রা ও শ্রমিক সমাবেশ করবে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল। সারাদেশে জেলা ও মহানগর পর্যায়ে একই কর্মসূচি পালিত হবে। আমরা তিনটার মধ্যে সমাবেশ করব, তারপরে শোভাযাত্রা করব বাংলামোটর পর্যন্ত।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

‘দেশের শ্রমজীবীরা ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে বাধ্য হন’

আপডেট সময় ০৭:৫৫:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৩

আমাদের দেশের লাখ লাখ শ্রমজীবী মানুষ দৈনিক ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করতে বাধ্য হন বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা বুকে হাত দিয়ে এ কথা বলতে পারব না যে, বাংলাদেশে দৈনিক আট ঘণ্টার বেশি কোনো শ্রমিককে কাজ করানো হয় না। যদিও আমাদের দেশের শ্রম আইন বলে ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ করানো যাবে না।

তিনি বলেন, সরকার অত্যাবশ্যক পরিষেবা আইন করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের চেষ্টা করছে, শ্রমিকদেরও নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে। এর মাধ্যমে দ্রুত সাজা দেওয়ার ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। শ্রমিক দিবসে এসব কালাকানুন বাতিলের দাবি জানানো হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, আগামী পহেলা মে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে শোভাযাত্রা ও শ্রমিক সমাবেশ করবে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল। সারাদেশে জেলা ও মহানগর পর্যায়ে একই কর্মসূচি পালিত হবে। আমরা তিনটার মধ্যে সমাবেশ করব, তারপরে শোভাযাত্রা করব বাংলামোটর পর্যন্ত।