০৩:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

নতুন রাষ্ট্রপতিকে চীনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:২২:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫৪ বার পড়া হয়েছে

দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেওয়া মো. সাহাবুদ্দিনকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। শনিবার (২৪ এপ্রিল) এক চিঠিতে তিনি নতুন রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিনকে অভিনন্দন জানান।

চিঠিতে শি জিনপিং লিখেছেন, ঐতিহ্যগতভাবে চীন ও বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী। কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার পর থেকে দুই দেশ সর্বদা একে অপরকে সম্মান করেছে। একে অপরের মূল স্বার্থ সম্পর্কিত বিষয়গুলোতে সমর্থন ও সহযোগিতা করেছে, যা বন্ধুত্বপূর্ণ সহাবস্থানের উদাহরণ।

চীন বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়নকে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়। দুই দেশ ঐতিহ্যগত বন্ধুত্বকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যৌথভাবে ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ’ নির্মাণের জন্য নতুন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত। চীন-বাংলাদেশ কৌশলগত অংশীদারিত্বকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়, যেন দুই দেশের জনগণ উপকৃত হয়। চিঠিতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বাংলাদেশের সমৃদ্ধি কামনা করেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে সোমবার (২৪ এপ্রিল) বেলা ১১টায় শপথ নেন মো. সাহাবুদ্দিন। বঙ্গভবনের দরবার হলে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এর আগে, চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন মো. সাহাবুদ্দিন। আর কোনো প্রার্থী না থাকায় তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

নতুন রাষ্ট্রপতিকে চীনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন

আপডেট সময় ০৮:২২:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৩

দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেওয়া মো. সাহাবুদ্দিনকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। শনিবার (২৪ এপ্রিল) এক চিঠিতে তিনি নতুন রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিনকে অভিনন্দন জানান।

চিঠিতে শি জিনপিং লিখেছেন, ঐতিহ্যগতভাবে চীন ও বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী। কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার পর থেকে দুই দেশ সর্বদা একে অপরকে সম্মান করেছে। একে অপরের মূল স্বার্থ সম্পর্কিত বিষয়গুলোতে সমর্থন ও সহযোগিতা করেছে, যা বন্ধুত্বপূর্ণ সহাবস্থানের উদাহরণ।

চীন বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়নকে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়। দুই দেশ ঐতিহ্যগত বন্ধুত্বকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যৌথভাবে ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ’ নির্মাণের জন্য নতুন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত। চীন-বাংলাদেশ কৌশলগত অংশীদারিত্বকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়, যেন দুই দেশের জনগণ উপকৃত হয়। চিঠিতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বাংলাদেশের সমৃদ্ধি কামনা করেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে সোমবার (২৪ এপ্রিল) বেলা ১১টায় শপথ নেন মো. সাহাবুদ্দিন। বঙ্গভবনের দরবার হলে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এর আগে, চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন মো. সাহাবুদ্দিন। আর কোনো প্রার্থী না থাকায় তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।