০৪:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পঞ্চগড়ে ১৬ মামলায় নতুন করে আরও ৮ জন গ্রেপ্তার

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:২০:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মার্চ ২০২৩
  • / ৫৫ বার পড়া হয়েছে

পঞ্চগড়ে কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের সালানা জলসাকে কেন্দ্র করে লুটপাট অগ্নি সংযোগ ও সংঘর্ষের ঘটনায় নতুন করে আরও ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে মোট গ্রেপ্তারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮১ জনে।

পুলিশের ট্রাফিক অফিস ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, সরকারি কাজে বাধা দান, আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও বিস্ফোরণ ঘটানো, বিভিন্ন সরকারি স্থাপনা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, বিশেষ ক্ষমতা আইনসহ বেশ কিছু অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে মোট ১৬টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় মোট আসামী করা হয়েছে নামীয়সহ অজ্ঞাত ১১ হাজার।

শনিবার (১১ মার্চ) এসব তথ্য নিশ্চিত করেন পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা। এদিকে জেলা শহরের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে এখনো পুলিশ, এপিবিএন ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন রয়েছে। অন্যদিকে আহমদীয়া সম্প্রদায়ের দুইটি মসজিদসহ আহমদনগর নতুনবন্দর ফুলতলা শালশিরিসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে পুলিশ ও বিজিবির টহল জোরদার আছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা তৎপরতাও।

পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা বলেন, আমরা এ ঘটনায় আরও মামলা করবো। ভিডিও ফুটেজ দেখে জড়িতদের ধরা হচ্ছে। অযথা কাউকে হয়রানি বা আসামী করা হবে না। সে বিষয়ে আমরা খেয়াল রাখছি। বর্তমানে পঞ্চগড়ের পরিবেশ, পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক রয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে বাড়তি সতর্ক অবস্থায় রয়েছে পুলিশ ও বিজিবি।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

পঞ্চগড়ে ১৬ মামলায় নতুন করে আরও ৮ জন গ্রেপ্তার

আপডেট সময় ১০:২০:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মার্চ ২০২৩

পঞ্চগড়ে কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের সালানা জলসাকে কেন্দ্র করে লুটপাট অগ্নি সংযোগ ও সংঘর্ষের ঘটনায় নতুন করে আরও ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে মোট গ্রেপ্তারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮১ জনে।

পুলিশের ট্রাফিক অফিস ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, সরকারি কাজে বাধা দান, আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও বিস্ফোরণ ঘটানো, বিভিন্ন সরকারি স্থাপনা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, বিশেষ ক্ষমতা আইনসহ বেশ কিছু অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে মোট ১৬টি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় মোট আসামী করা হয়েছে নামীয়সহ অজ্ঞাত ১১ হাজার।

শনিবার (১১ মার্চ) এসব তথ্য নিশ্চিত করেন পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা। এদিকে জেলা শহরের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে এখনো পুলিশ, এপিবিএন ও বিজিবি সদস্য মোতায়েন রয়েছে। অন্যদিকে আহমদীয়া সম্প্রদায়ের দুইটি মসজিদসহ আহমদনগর নতুনবন্দর ফুলতলা শালশিরিসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে পুলিশ ও বিজিবির টহল জোরদার আছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা তৎপরতাও।

পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা বলেন, আমরা এ ঘটনায় আরও মামলা করবো। ভিডিও ফুটেজ দেখে জড়িতদের ধরা হচ্ছে। অযথা কাউকে হয়রানি বা আসামী করা হবে না। সে বিষয়ে আমরা খেয়াল রাখছি। বর্তমানে পঞ্চগড়ের পরিবেশ, পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক রয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে বাড়তি সতর্ক অবস্থায় রয়েছে পুলিশ ও বিজিবি।