০৩:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

ফখরুল ইমামকে নারীরা খুবই পছন্দ করেন: মুজিবুল হক চুন্নু

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় ০৯:৪০:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৭৩ বার পড়া হয়েছে

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, ‘আমাদের দলের সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামকে নারীরা খুবই পছন্দ করেন। তবে আমাকে আমার স্ত্রী ছাড়া কোনো নারী পছন্দ করেন না।’

বুধবার জাতীয় সংসদে ‘জাতীয় সংসদ (সংরক্ষিত মহিলা আসন) নির্বাচন (সংশোধন) বিল নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে এসব কথা বলেন তিনি।

এর আগে একই দলের সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম বিলটি নিয়ে আলোচনার সময় সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্যদের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। বিলটি বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাবের ওপর বক্তব্যের সময় ফখরুল ইমাম সংসদের বৈঠকে অনুপস্থিত থাকলেও সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর আলোচনাকালে উপস্থিত ছিলেন এবং এ বিষয়ে ফ্লোর পেয়ে বক্তব্য দেন।

ফখরুল ইমাম বলেন, ‘আজকে নারীদের বিল উঠেছে। এই সংসদকে সচল করে রাখা ও কোরাম ধরে রাখার একমাত্র অধিকারী হচ্ছেন আমাদের বোনরা। সংরক্ষিত ৫০ জন এবং নির্বাচিত আরও বোন আছেন। মাননীয় স্পিকার আপনার নেতৃত্বে যতগুলো কনফারেন্স করেছি সেখানে তারা সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। জ্ঞানের দিক থেকে তারা কেউ কারো থেকে কম নন। তারা খুব সুন্দর ভঙ্গিমায় বক্তব্য উপস্থাপন করেন।’

বিলে কোনো আপত্তি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই বিলে ৪৫ দিনের জায়গায় ৯০ দিন করেন। তাদের বেতন বৃদ্ধি করেন। সুযোগ-সুবিধা বাড়ান। নারীর ক্ষমতায়নের উদাহরণ হচ্ছে এই সংসদ।

এসময় সংরক্ষিত আসনের সদস্যরা টেবিল চাপড়ে তাকে ধন্যবাদ দেন।

পরে আলোচনায় অংশ নিয়ে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আমার কলিগ ফখরুল ইমাম বিলে প্রথমে আসেননি। হঠাৎ করে এসেছেন। আমি জানতাম তিনি নারীদের খুব পছন্দ করেন। নারীরাও তাকে পছন্দ করেন। কিন্তু আজকে একটু (প্রশংসা) বেশি বলা হয়ে গেছে মনে হয়। জানি না কেন?

চুন্নুর বক্তব্যের সময় সিটে বসেই মাইক ছাড়াই ফখরুল ইমাম বলেন, এর বাইরে যাওয়ার উপায় নেই। ঘরে গেলে অবস্থা খারাপ।

জবাবে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ঘরের অবস্থা কাহিল! আমার স্ত্রী ছাড়া কোনো নারী আমাকে পছন্দ করেন না। কিন্তু আপনাকে তো অনেকেই পছন্দ করেন। এ সময়ে সংসদে হাসির রোল পড়ে যায়।

পরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও প্রসঙ্গটি নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, আমি সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের সঙ্গে একমত। এই যে সংসদে সংরক্ষিত আসনে এবং সরাসরি নির্বাচিত হয়ে যে নারী সদস্যরা আসছেন, তারা সবাই সংসদকে কার্যকর করার জন্য অবদান রেখেছেন। এটা প্রশংসনীয়। আমি তাদের ধন্যবাদ জানাই। তাদের কার্যক্রমকে অ্যাপ্রিশিয়েট করি। আমি কিন্তু ফখরুল ইমামের মতো হাততালি পাইনি। এ সময় সংসদে হাসির রোল পড়ে যায়। পরে অবশ্য তারা আইনমন্ত্রীকেও টেবিল চাপড়ে ধন্যবাদ জানান।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ফখরুল ইমামকে নারীরা খুবই পছন্দ করেন: মুজিবুল হক চুন্নু

আপডেট সময় ০৯:৪০:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, ‘আমাদের দলের সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামকে নারীরা খুবই পছন্দ করেন। তবে আমাকে আমার স্ত্রী ছাড়া কোনো নারী পছন্দ করেন না।’

বুধবার জাতীয় সংসদে ‘জাতীয় সংসদ (সংরক্ষিত মহিলা আসন) নির্বাচন (সংশোধন) বিল নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে এসব কথা বলেন তিনি।

এর আগে একই দলের সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম বিলটি নিয়ে আলোচনার সময় সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্যদের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। বিলটি বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাবের ওপর বক্তব্যের সময় ফখরুল ইমাম সংসদের বৈঠকে অনুপস্থিত থাকলেও সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর আলোচনাকালে উপস্থিত ছিলেন এবং এ বিষয়ে ফ্লোর পেয়ে বক্তব্য দেন।

ফখরুল ইমাম বলেন, ‘আজকে নারীদের বিল উঠেছে। এই সংসদকে সচল করে রাখা ও কোরাম ধরে রাখার একমাত্র অধিকারী হচ্ছেন আমাদের বোনরা। সংরক্ষিত ৫০ জন এবং নির্বাচিত আরও বোন আছেন। মাননীয় স্পিকার আপনার নেতৃত্বে যতগুলো কনফারেন্স করেছি সেখানে তারা সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। জ্ঞানের দিক থেকে তারা কেউ কারো থেকে কম নন। তারা খুব সুন্দর ভঙ্গিমায় বক্তব্য উপস্থাপন করেন।’

বিলে কোনো আপত্তি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই বিলে ৪৫ দিনের জায়গায় ৯০ দিন করেন। তাদের বেতন বৃদ্ধি করেন। সুযোগ-সুবিধা বাড়ান। নারীর ক্ষমতায়নের উদাহরণ হচ্ছে এই সংসদ।

এসময় সংরক্ষিত আসনের সদস্যরা টেবিল চাপড়ে তাকে ধন্যবাদ দেন।

পরে আলোচনায় অংশ নিয়ে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আমার কলিগ ফখরুল ইমাম বিলে প্রথমে আসেননি। হঠাৎ করে এসেছেন। আমি জানতাম তিনি নারীদের খুব পছন্দ করেন। নারীরাও তাকে পছন্দ করেন। কিন্তু আজকে একটু (প্রশংসা) বেশি বলা হয়ে গেছে মনে হয়। জানি না কেন?

চুন্নুর বক্তব্যের সময় সিটে বসেই মাইক ছাড়াই ফখরুল ইমাম বলেন, এর বাইরে যাওয়ার উপায় নেই। ঘরে গেলে অবস্থা খারাপ।

জবাবে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ঘরের অবস্থা কাহিল! আমার স্ত্রী ছাড়া কোনো নারী আমাকে পছন্দ করেন না। কিন্তু আপনাকে তো অনেকেই পছন্দ করেন। এ সময়ে সংসদে হাসির রোল পড়ে যায়।

পরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও প্রসঙ্গটি নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, আমি সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের সঙ্গে একমত। এই যে সংসদে সংরক্ষিত আসনে এবং সরাসরি নির্বাচিত হয়ে যে নারী সদস্যরা আসছেন, তারা সবাই সংসদকে কার্যকর করার জন্য অবদান রেখেছেন। এটা প্রশংসনীয়। আমি তাদের ধন্যবাদ জানাই। তাদের কার্যক্রমকে অ্যাপ্রিশিয়েট করি। আমি কিন্তু ফখরুল ইমামের মতো হাততালি পাইনি। এ সময় সংসদে হাসির রোল পড়ে যায়। পরে অবশ্য তারা আইনমন্ত্রীকেও টেবিল চাপড়ে ধন্যবাদ জানান।