১২:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার প্রসঙ্গে যা জানালেন আরবাজ

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:৫৩:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫৪ বার পড়া হয়েছে

ভারতীয় সুপারস্টার সালমান খানের চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর নতুন শাখা উদ্বোধন করতে বাংলাদেশে এসেছিলেন অভিনেতার ভাই আরবাজ খান। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকায় এলেন তিনি।

শুক্রবার (৭ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর ফ্যাশন হাউসের দ্বিতীয় শোরুম উদ্বোধন করেন আরবাজ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন অভিনেতার ভাগ্নে অয়ন অগ্নিহোত্রী এবং ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর চীফ অপারেটিং অফিসার ভিভেক সান্দোয়ার। গণমাধ্যমে অভিনেতার বক্তব্য দেওয়ার একপর্যায়ে কথা ওঠে সম্প্রতি ঢাকার বঙ্গবাজারে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের।

সেখানে আগুন লেগে হাজার হাজার কাপড়ের দোকান পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ইতোমধ্যেই জানতেন বলিউডের এই অভিনেতা।২০১২ সালে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে ভারতের মুম্বাইতে শুরু হয় ‘বিইং হিউম্যান’-এর পথচলা। যেহেতু এই প্রতিষ্ঠানের অর্থ অসহায়দের জন্য দেওয়া হয়। তাই প্রশ্ন ওঠে সালমান খানের চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান ‘বিয়িং হিউম্যান’ বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত পোশাক ব্যবসায়ীদের কোনো সহায়তা করবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে আরবাজ জানান, ‘বিয়িং হিউম্যান’ প্রতিষ্ঠানের একজন প্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশে এসেছেন তিনি।

আর এই প্রতিষ্ঠানের মূল দায়িত্বে রয়েছেন অভিনেতার ভাই সালমান খান ও বোন অর্পিতা। তিনি ভারতে ফিরে বঙ্গবাজারের বিষয়টি নিয়ে দুজনের সঙ্গে আলাপ করবেন বলে জানান আরবাজ। সেই সঙ্গে অবশ্যই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার জন্য ভালো কিছু করবেন বলেও আশা ব্যক্ত করেন তিনি।

এর আগে, ২০২২ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর ফ্যাশন হাউসের প্রথম শোরুম উদ্বোধন করেছিলেন সালমান-আরবাজের ছোট ভাই সোহেল খান। এ পর্যন্ত বিশ্বের ১৫টি দেশে এর ৫০০টিরও বেশি আউটলেট খোলা হয়েছে। পোশাকের এই ব্র্যান্ডটির বিক্রয়ের লভ্যাংশের একটা অংশ ব্যয় করা হয় পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীর শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উন্নয়নে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার প্রসঙ্গে যা জানালেন আরবাজ

আপডেট সময় ১০:৫৩:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ এপ্রিল ২০২৩

ভারতীয় সুপারস্টার সালমান খানের চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর নতুন শাখা উদ্বোধন করতে বাংলাদেশে এসেছিলেন অভিনেতার ভাই আরবাজ খান। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকায় এলেন তিনি।

শুক্রবার (৭ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর ফ্যাশন হাউসের দ্বিতীয় শোরুম উদ্বোধন করেন আরবাজ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন অভিনেতার ভাগ্নে অয়ন অগ্নিহোত্রী এবং ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর চীফ অপারেটিং অফিসার ভিভেক সান্দোয়ার। গণমাধ্যমে অভিনেতার বক্তব্য দেওয়ার একপর্যায়ে কথা ওঠে সম্প্রতি ঢাকার বঙ্গবাজারে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের।

সেখানে আগুন লেগে হাজার হাজার কাপড়ের দোকান পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ইতোমধ্যেই জানতেন বলিউডের এই অভিনেতা।২০১২ সালে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে ভারতের মুম্বাইতে শুরু হয় ‘বিইং হিউম্যান’-এর পথচলা। যেহেতু এই প্রতিষ্ঠানের অর্থ অসহায়দের জন্য দেওয়া হয়। তাই প্রশ্ন ওঠে সালমান খানের চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান ‘বিয়িং হিউম্যান’ বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত পোশাক ব্যবসায়ীদের কোনো সহায়তা করবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে আরবাজ জানান, ‘বিয়িং হিউম্যান’ প্রতিষ্ঠানের একজন প্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশে এসেছেন তিনি।

আর এই প্রতিষ্ঠানের মূল দায়িত্বে রয়েছেন অভিনেতার ভাই সালমান খান ও বোন অর্পিতা। তিনি ভারতে ফিরে বঙ্গবাজারের বিষয়টি নিয়ে দুজনের সঙ্গে আলাপ করবেন বলে জানান আরবাজ। সেই সঙ্গে অবশ্যই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার জন্য ভালো কিছু করবেন বলেও আশা ব্যক্ত করেন তিনি।

এর আগে, ২০২২ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর ‘বিয়িং হিউম্যান’-এর ফ্যাশন হাউসের প্রথম শোরুম উদ্বোধন করেছিলেন সালমান-আরবাজের ছোট ভাই সোহেল খান। এ পর্যন্ত বিশ্বের ১৫টি দেশে এর ৫০০টিরও বেশি আউটলেট খোলা হয়েছে। পোশাকের এই ব্র্যান্ডটির বিক্রয়ের লভ্যাংশের একটা অংশ ব্যয় করা হয় পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীর শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উন্নয়নে।