০৬:৫১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

বরযাত্রীবাহী ট্রলারডুবি : নিখোঁজ ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:২৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • / ৭৮ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় তেঁতুলিয়া নদীতে বরযাত্রী নিয়ে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চারজনের মরদেহ উদ্ধার শেষে অভিযান সমাপ্তি ঘোষণা করেছে ফায়ার সার্ভিস। সোমবার (১ মে) ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ও আভিযানিক দলের টিম লিডার রেজওয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, রোববার (৩০ এপ্রিল) সকালে বর রাব্বি ও তার মা সেলিনা আক্তারের মরদেহ বদনার চর নামক জায়গায় পাওয়া যায়। পরে একই দিন সকাল ১০টায় লতারচর নামকস্থান থেকে শিশু খাদিজার (৫) মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। অন্যদিকে দুপুর ২টার দিকে সময় বদনার চর জায়গা থেকে আরেক শিশু মানসুরার (৮) মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

টিম লিডার রেজওয়ান জানান, ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চারজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে রোববার বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। উল্লেখ্য, শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার রনগোপালদী ইউনিয়নের আউলিয়াপুর এলাকার বরযাত্রী নিয়ে তেঁতুলিয়া নদীতে ট্রলারে করে ১৪ জন যাত্রী নিয়ে নদী পার হচ্ছিল। এ সময় পথে অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই ট্রলারটি মাঝনদীতে বন্ধ হয়ে পানি উঠে ডুবে যায়। অনেকে সাঁতার কেটে বেঁচে ভেসে থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় বেঁচে ফিরলেও নারী ও শিশুসহ চারজন পানিতে ডুবে যান।

পরে সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে নদীতে তল্লাশি করেন। এতে আউলিয়াপুর এলাকার মনির হাওলাদারের ছেলে (বর) রাব্বি হাওলাদার (২০) ও তার মা স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৪০), উত্তর রনগোপালদী এলাকার ধলু হাওলাদারের মেয়ে খাদিজা (৫) এবং উত্তর চর শাহজালাল এলাকার বেল্লাল মুন্সির মেয়ে মানসুরা (৮) নিখোঁজ হন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

বরযাত্রীবাহী ট্রলারডুবি : নিখোঁজ ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার

আপডেট সময় ১০:২৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় তেঁতুলিয়া নদীতে বরযাত্রী নিয়ে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চারজনের মরদেহ উদ্ধার শেষে অভিযান সমাপ্তি ঘোষণা করেছে ফায়ার সার্ভিস। সোমবার (১ মে) ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ও আভিযানিক দলের টিম লিডার রেজওয়ান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, রোববার (৩০ এপ্রিল) সকালে বর রাব্বি ও তার মা সেলিনা আক্তারের মরদেহ বদনার চর নামক জায়গায় পাওয়া যায়। পরে একই দিন সকাল ১০টায় লতারচর নামকস্থান থেকে শিশু খাদিজার (৫) মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। অন্যদিকে দুপুর ২টার দিকে সময় বদনার চর জায়গা থেকে আরেক শিশু মানসুরার (৮) মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

টিম লিডার রেজওয়ান জানান, ট্রলারডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চারজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে রোববার বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। উল্লেখ্য, শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার রনগোপালদী ইউনিয়নের আউলিয়াপুর এলাকার বরযাত্রী নিয়ে তেঁতুলিয়া নদীতে ট্রলারে করে ১৪ জন যাত্রী নিয়ে নদী পার হচ্ছিল। এ সময় পথে অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই ট্রলারটি মাঝনদীতে বন্ধ হয়ে পানি উঠে ডুবে যায়। অনেকে সাঁতার কেটে বেঁচে ভেসে থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় বেঁচে ফিরলেও নারী ও শিশুসহ চারজন পানিতে ডুবে যান।

পরে সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে নদীতে তল্লাশি করেন। এতে আউলিয়াপুর এলাকার মনির হাওলাদারের ছেলে (বর) রাব্বি হাওলাদার (২০) ও তার মা স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৪০), উত্তর রনগোপালদী এলাকার ধলু হাওলাদারের মেয়ে খাদিজা (৫) এবং উত্তর চর শাহজালাল এলাকার বেল্লাল মুন্সির মেয়ে মানসুরা (৮) নিখোঁজ হন।