০১:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

‘বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে’

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৫:৪৩:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫১ বার পড়া হয়েছে

বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (১৬ এপ্রিল) সকালে গণভবনে জাতীয় প্রশিক্ষণ কাউন্সিলের (এনটিসি) অষ্টম সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের শাসন যখন ক্যান্টনমেন্টে বন্দি ছিল তখন কোনো উন্নয়ন হয়নি। রাজনৈতিক নেতৃত্ব যখন ছিল তখনই দেশের উন্নয়ন হয়েছে। তিনি বলেন, সঠিক রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের কারণে ২০০৯ থেকে ২০২৩ পর্যন্ত দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার দেশ পরিচালনায় নীতি ও আদর্শ ধরে রাখার কারণে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ সহজ হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি। শতভাগ বিদ্যুৎ দিতে পেরেছি। রাস্তাঘাটসহ দেশের সার্বিক উন্নতি হয়েছে। আগামী দিনেও সেভাবে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে।সরকারপ্রধান বলেন, যেকোনো জাতিকে উন্নত করতে হলে প্রশিক্ষণটা একান্তভাবে অপরিহার্য। পৃথিবী পরিবর্তনশীল, এখন হচ্ছে প্রযুক্তির যুগ। প্রযুক্তির যুগের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করছি, যেখানে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ হবে। এজন্য আমাদের প্রশিক্ষিত কর্মী লাগবে। শেখ হাসিনা বলেন, আমরা চাই জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন এবং দেশকে উন্নত করতে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে। স্বাধীনতার চেতনায় বাংলাদেশকে পরিবর্তন করতে। এ সময় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

‘বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে’

আপডেট সময় ০৫:৪৩:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩

বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (১৬ এপ্রিল) সকালে গণভবনে জাতীয় প্রশিক্ষণ কাউন্সিলের (এনটিসি) অষ্টম সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের শাসন যখন ক্যান্টনমেন্টে বন্দি ছিল তখন কোনো উন্নয়ন হয়নি। রাজনৈতিক নেতৃত্ব যখন ছিল তখনই দেশের উন্নয়ন হয়েছে। তিনি বলেন, সঠিক রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের কারণে ২০০৯ থেকে ২০২৩ পর্যন্ত দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার দেশ পরিচালনায় নীতি ও আদর্শ ধরে রাখার কারণে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ সহজ হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি। শতভাগ বিদ্যুৎ দিতে পেরেছি। রাস্তাঘাটসহ দেশের সার্বিক উন্নতি হয়েছে। আগামী দিনেও সেভাবে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করেই দেশের অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে।সরকারপ্রধান বলেন, যেকোনো জাতিকে উন্নত করতে হলে প্রশিক্ষণটা একান্তভাবে অপরিহার্য। পৃথিবী পরিবর্তনশীল, এখন হচ্ছে প্রযুক্তির যুগ। প্রযুক্তির যুগের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করছি, যেখানে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ হবে। এজন্য আমাদের প্রশিক্ষিত কর্মী লাগবে। শেখ হাসিনা বলেন, আমরা চাই জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন এবং দেশকে উন্নত করতে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে। স্বাধীনতার চেতনায় বাংলাদেশকে পরিবর্তন করতে। এ সময় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।