০৯:১৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি করতে দিচ্ছে না সরকার : খসরু

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৭:৪৭:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪১ বার পড়া হয়েছে

সরকার ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হতে দিচ্ছে না বলে দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে রোববার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

আমীর খসরু বলেন, দেশের রাষ্ট্রপতি থেকে শুরু করে সাধারণ পর্যায়ের মানুষও বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। কিন্তু খালেদা জিয়াকে সেখান থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। ওনাকে চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। মূলত, সরকার ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হতে দিচ্ছে না। তিনি বলেন, সরকার পতনের আন্দোলনে দেশবাসী আজ রাস্তায় নেমেছে। ফ্যাসিস্ট এই সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত কেউ ঘরে ফিরে যাবে না। সব বিরোধী রাজনৈতিক দলের অবস্থান পরিষ্কার হয়ে গেছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণকে বাইরে রেখে তাদের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে জোর করে ক্ষমতা দখল করতে চায়। তাদের পতন ছাড়া এই সমস্যার সমাধান হবে না। সরকারকে পতনে বাধ্য করতে হবে। আমীর খসরু বলেন, একটি নিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করবে। যারা জনগণের কাছে জবাবদিহি করবে। মানুষ বাংলাদেশের মালিকানা ফিরে পাবে।

বৈঠকে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সমন্বয়ক প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের মহাসচিব হারুন আল রশিদ খান, সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. সামছুল আলম, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড হারুন চৌধুরী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও যুগ্ম-মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি করতে দিচ্ছে না সরকার : খসরু

আপডেট সময় ০৭:৪৭:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩

সরকার ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হতে দিচ্ছে না বলে দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে রোববার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

আমীর খসরু বলেন, দেশের রাষ্ট্রপতি থেকে শুরু করে সাধারণ পর্যায়ের মানুষও বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। কিন্তু খালেদা জিয়াকে সেখান থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। ওনাকে চিকিৎসার জন্য বাইরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। মূলত, সরকার ভয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হতে দিচ্ছে না। তিনি বলেন, সরকার পতনের আন্দোলনে দেশবাসী আজ রাস্তায় নেমেছে। ফ্যাসিস্ট এই সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত কেউ ঘরে ফিরে যাবে না। সব বিরোধী রাজনৈতিক দলের অবস্থান পরিষ্কার হয়ে গেছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণকে বাইরে রেখে তাদের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে জোর করে ক্ষমতা দখল করতে চায়। তাদের পতন ছাড়া এই সমস্যার সমাধান হবে না। সরকারকে পতনে বাধ্য করতে হবে। আমীর খসরু বলেন, একটি নিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করবে। যারা জনগণের কাছে জবাবদিহি করবে। মানুষ বাংলাদেশের মালিকানা ফিরে পাবে।

বৈঠকে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সমন্বয়ক প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের মহাসচিব হারুন আল রশিদ খান, সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. সামছুল আলম, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড হারুন চৌধুরী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও যুগ্ম-মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল উপস্থিত ছিলেন।