০৪:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মাঠের বাইরে আরও একটি স্বপ্ন পূরণ সাকিবের

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৩:৪১:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মার্চ ২০২৩
  • / ৬২ বার পড়া হয়েছে

বিশ্ব ক্রিকেটে কিংবদন্তি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। মাঠের ২২ গজের ক্রিকেটে সবসময় তিনি অনন্য। ব্যাটে-বলে সাকিবের অসাধারণ পারফরম্যান্সে অসংখ্য ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে টাইগাররা। গতকালই আইরিশদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ঝলক দেখিয়ে ৯৩ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলের জয়ে বড় অবদান রেখেছেন টাইগার পোস্টারবয়।

তবে এবার মাঠের বাইরের সাকিব আরও একটি স্বপ্ন পূরণ করলেন, অর্জন করলেন ভিন্ন এক কীর্তি। আজ রোববার (১৯ মার্চ) নিজ বিশ্ববিদ্যালয় আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এআইইউবি) সমাবর্তন থেকে গ্র্যাজুয়েশন সনদ গ্রহণ করেন তিনি। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০৯-১০ সেশন থেকে বিবিএ ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

এআইইউবির সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. আবদুল হামিদের সদয় সম্মতিক্রমে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি সকল গ্র্যাজুয়েটদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন। এ সময় শিক্ষামন্ত্রী সাকিব আল হাসানকে মেডেল পরিয়ে দেন। সমাবর্তনে অংশ নিয়ে সাকিব জানান, ‘ক্রিকেটে যখন আমার অভিষেক হয়, ক্যাপটা যখন হাতে পেয়েছিলাম তখন যেমন মনেছিল, এত বছর পর আজ সেই একই অনুভূতি কাজ করছে। ২০০৯ সালের দিকে আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের তিন বছর হয়ে যাওয়ার পরও আম্মা যখন ফোন করতেন, তখন জিজ্ঞেস করতেন- আমার পড়াশোনার কী অবস্থা।’

তাই শিক্ষাক্ষেত্রে এই অর্জনে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন সাকিব। এ সময় তিনি অনেক আনন্দিত বোধ করছেন বলেও জানান। সাকিব বলেন, ‌‌‘আজকে আমি খুশি, খুবই আনন্দিত এবং গর্বিত। অবশেষে আমার এই স্বপ্ন পূরণ হলো। খেলার মাঠে হয়তো আমার কিছু অর্জন আছে, তবে এটা সবসময় আমার স্বপ্ন ছিল।’কোচ-টিচারদের ধন্যবাদ জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমার সকল কোচ-টিচারকে আমি ধন্যবাদ জানাই। তাদের সাপোর্ট ছাড়া এটা সম্ভব হতে না। এআইইউবিকে ধন্যবাদ জানাই, তারা সবসময় আমাকে সমর্থন করেছে।

শুধু আমাকে না, আমাদের ক্রিকেট দলের অনেকেই এখানে পড়াশোনা করছে।’ সাকিব আরও যোগ করেন, ‘খুব বেশি কিছু বলার নেই। সবাইকে দেখে খুব ভালো লাগছে। আশা করি সবার জীবন সামনে এগিয়ে যাবে। শুধু একটা কথাই বলব, যখন আপনারা স্বপ্ন দেখবেন, স্বপ্নটা বড় দেখবেন। লক্ষ্য নির্ধারণ করে সততার সাথে কাজ করবেন, আমি নিশ্চিত আপনাদের সবার স্বপ্ন পূরণ হবে। আমরা সবাই বাংলাদেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাব।

’ এদিকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামীকাল (২০ মার্চ) মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ২টায়। আজ কোনো ম্যাচ না থাকায় বিশ্রামে রয়েছে উভয় দল। এরই ফাঁকে নিজের বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে অংশ নেন টাইগার অলরাউন্ডার।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

মাঠের বাইরে আরও একটি স্বপ্ন পূরণ সাকিবের

আপডেট সময় ০৩:৪১:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মার্চ ২০২৩

বিশ্ব ক্রিকেটে কিংবদন্তি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। মাঠের ২২ গজের ক্রিকেটে সবসময় তিনি অনন্য। ব্যাটে-বলে সাকিবের অসাধারণ পারফরম্যান্সে অসংখ্য ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে টাইগাররা। গতকালই আইরিশদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ঝলক দেখিয়ে ৯৩ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে দলের জয়ে বড় অবদান রেখেছেন টাইগার পোস্টারবয়।

তবে এবার মাঠের বাইরের সাকিব আরও একটি স্বপ্ন পূরণ করলেন, অর্জন করলেন ভিন্ন এক কীর্তি। আজ রোববার (১৯ মার্চ) নিজ বিশ্ববিদ্যালয় আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (এআইইউবি) সমাবর্তন থেকে গ্র্যাজুয়েশন সনদ গ্রহণ করেন তিনি। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০৯-১০ সেশন থেকে বিবিএ ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

এআইইউবির সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. আবদুল হামিদের সদয় সম্মতিক্রমে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি সকল গ্র্যাজুয়েটদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন। এ সময় শিক্ষামন্ত্রী সাকিব আল হাসানকে মেডেল পরিয়ে দেন। সমাবর্তনে অংশ নিয়ে সাকিব জানান, ‘ক্রিকেটে যখন আমার অভিষেক হয়, ক্যাপটা যখন হাতে পেয়েছিলাম তখন যেমন মনেছিল, এত বছর পর আজ সেই একই অনুভূতি কাজ করছে। ২০০৯ সালের দিকে আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের তিন বছর হয়ে যাওয়ার পরও আম্মা যখন ফোন করতেন, তখন জিজ্ঞেস করতেন- আমার পড়াশোনার কী অবস্থা।’

তাই শিক্ষাক্ষেত্রে এই অর্জনে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন সাকিব। এ সময় তিনি অনেক আনন্দিত বোধ করছেন বলেও জানান। সাকিব বলেন, ‌‌‘আজকে আমি খুশি, খুবই আনন্দিত এবং গর্বিত। অবশেষে আমার এই স্বপ্ন পূরণ হলো। খেলার মাঠে হয়তো আমার কিছু অর্জন আছে, তবে এটা সবসময় আমার স্বপ্ন ছিল।’কোচ-টিচারদের ধন্যবাদ জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমার সকল কোচ-টিচারকে আমি ধন্যবাদ জানাই। তাদের সাপোর্ট ছাড়া এটা সম্ভব হতে না। এআইইউবিকে ধন্যবাদ জানাই, তারা সবসময় আমাকে সমর্থন করেছে।

শুধু আমাকে না, আমাদের ক্রিকেট দলের অনেকেই এখানে পড়াশোনা করছে।’ সাকিব আরও যোগ করেন, ‘খুব বেশি কিছু বলার নেই। সবাইকে দেখে খুব ভালো লাগছে। আশা করি সবার জীবন সামনে এগিয়ে যাবে। শুধু একটা কথাই বলব, যখন আপনারা স্বপ্ন দেখবেন, স্বপ্নটা বড় দেখবেন। লক্ষ্য নির্ধারণ করে সততার সাথে কাজ করবেন, আমি নিশ্চিত আপনাদের সবার স্বপ্ন পূরণ হবে। আমরা সবাই বাংলাদেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাব।

’ এদিকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামীকাল (২০ মার্চ) মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ২টায়। আজ কোনো ম্যাচ না থাকায় বিশ্রামে রয়েছে উভয় দল। এরই ফাঁকে নিজের বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে অংশ নেন টাইগার অলরাউন্ডার।