০৬:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

মাদক মামলায় যে আবেদন করলেন পরী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:৪৭:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মে ২০২৩
  • / ৬১ বার পড়া হয়েছে

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা পরীমণি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় অভিযোগ গঠনের আদেশ ও মামলা চূড়ান্তভাবে স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করা হয়। সোমবার (৮ মে) পরীমণির আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহীনুজ্জামান শাহীন বিষয়টি গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেন।

এর আগে চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ পরীমণির বিরুদ্ধে করা মামলার কার্যক্রম ৬ মাস স্থগিত থাকবে বলে আদেশ দেন। একই সঙ্গে পরীমণির বিরুদ্ধে করা মাদক মামলা বাতিল প্রশ্নে জারি করা রুল ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়।

৬ মাসের মধ্যে রুল নিষ্পত্তি না হলে বিচারিক আদালতে পুনরায় পরীমণির বিরুদ্ধে মাদক মামলা শুরু হবে বলেও জানানো হয়। প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৪ আগস্ট বিকেল ৪টার পরপরই বনানীর ১২ নম্বর রোডে পরীমণির বাসায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। ওই সময় বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের দামি মদ, মদের বোতলসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় বনানী থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে।

৫ আগস্ট পরীমণি ও তার সহযোগীকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। গত ১০ আগস্ট আবার এই দুজনকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। সর্বশেষ গত ১৯ আগস্ট আবার এক দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয় পরীমণিকে। পরবর্তীতে তিনি একই বছরের ৩১ আগস্ট জামিনে বের হয়ে আসেন। মামলাটি বর্তমানে চলমান রয়েছে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

মাদক মামলায় যে আবেদন করলেন পরী

আপডেট সময় ০৯:৪৭:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মে ২০২৩

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা পরীমণি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় অভিযোগ গঠনের আদেশ ও মামলা চূড়ান্তভাবে স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করা হয়। সোমবার (৮ মে) পরীমণির আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহীনুজ্জামান শাহীন বিষয়টি গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেন।

এর আগে চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ পরীমণির বিরুদ্ধে করা মামলার কার্যক্রম ৬ মাস স্থগিত থাকবে বলে আদেশ দেন। একই সঙ্গে পরীমণির বিরুদ্ধে করা মাদক মামলা বাতিল প্রশ্নে জারি করা রুল ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়।

৬ মাসের মধ্যে রুল নিষ্পত্তি না হলে বিচারিক আদালতে পুনরায় পরীমণির বিরুদ্ধে মাদক মামলা শুরু হবে বলেও জানানো হয়। প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ৪ আগস্ট বিকেল ৪টার পরপরই বনানীর ১২ নম্বর রোডে পরীমণির বাসায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। ওই সময় বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের দামি মদ, মদের বোতলসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় বনানী থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে।

৫ আগস্ট পরীমণি ও তার সহযোগীকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। গত ১০ আগস্ট আবার এই দুজনকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। সর্বশেষ গত ১৯ আগস্ট আবার এক দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয় পরীমণিকে। পরবর্তীতে তিনি একই বছরের ৩১ আগস্ট জামিনে বের হয়ে আসেন। মামলাটি বর্তমানে চলমান রয়েছে।