১০:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

যথাযথ শিক্ষা গ্রহণ ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে রাষ্ট্রকে গর্বিত করুনঃ মেয়র তাপস

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:১১:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩
  • / ৫১ বার পড়া হয়েছে

যথাযথভাবে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করা এবং দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সমাজ ও রাষ্ট্রকে গর্বিত করতে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে নগরীর লক্ষীবাজারস্থ ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের নবীণ বরণ-২০২৩ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এ আহবান জানান।

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আব্রাহাম লিংকন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। একদিন যখন শুয়েছিলেন, তিনি তার খাতায় লিখলেন — আমি শিক্ষা গ্রহণ করব, আমি নিজেকে তৈরি করব এবং হয়তোবা একদিন আমার সুযোগ আসবে। তিনি শিক্ষা গ্রহণ করেছেন, নিজেকে তৈরি করেছেন এবং তার সেই সুযোগটাও একদিন আসলো। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো বৃহৎ জাতিসত্তার একটি রাষ্ট্র গঠন করেছেন।

আপনারা অনেক স্বপ্ন নিয়ে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজে এসেছেন। আপনাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনারা যথাযথ শিক্ষা গ্রহণ করবেন এবং সকল ক্ষেত্রে নিজেদেরকে তৈরি করবেন, প্রতিষ্ঠা করবেন। যাতে করে একদিন আপনাদেরও সেই সুযোগ আসে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন সবাইকে একটি পূর্ণ সুযোগ দেন। কিন্তু সেই সুযোগটা সবাই গ্রহণ করতে পারে না। আমি মনে করি, আপনারা আপনাদেরকে সেভাবে তৈরি করবেন যেন যখনই কোনও সুযোগ আসে সেটাকে গ্রহণ করতে পারেন। অর্জন করতে পারেন। এই সুযোগ গ্রহণের মাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করবেন, পিতা-মাতার স্বপ্ন পূরণ করবেন। তাদেরকে গর্বিত করবেন। দেশপ্রেমে উদ্বেলিত হয়ে সমাজ এবং দেশকে গর্বিত করবেন।

” স্বপ্ন দেখা এবং সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হয় জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “সবকিছুর শুরু হয় একটি স্বপ্ন দিয়ে। আপনারা এখানে এসেছেন আপনাদের নিজের, পিতা-মাতা ও অভিভাবকদের স্বপ্ন পূরণ করতে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার নেতা লুথার কিং জুনিয়রকে ১৯৬৮ সালে হত্যা করা হয়। কৃষাঙ্গ এই নেতা বলেছিলেন — আই হ্যাভ এ ড্রিম। আমার একটি স্বপ্ন আছে। একসময় যুক্তরাষ্ট্রে কৃষাঙ্গদের কোনও অধিকার ছিল না। তাদেরকে ক্রীতদাস হিসেবে ব্যবহার করা হতো। তিনি চেয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ-শ্বেতাঙ্গ সবাই সমান অধিকার পাবে। উনি সেটা পরিপূর্ণভাবে দেখে যেতে পারেননি। কিন্তু তার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে ৫ দশক পরে। ২০০৮ সালে একজন কৃষ্ণাঙ্গ নেতা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। ইতিহাস রচনা করে বারাক ওবামা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হয়েছেন।”

এ সময় নবীনদেরকে স্বাগত জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “আজ আমাদেরকে স্বাগত জানানো হচ্ছে। আসলে বিষয়টি কিন্তু তা নয়। আজ আমরা উপস্থিত হয়েছি আপনাদেরকে স্বাগত জানাতে। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে আপনাদেরকে বরণ করে নিতে। ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরিচালিত একমাত্র কলেজ। আমি এই কলেজে নবাগত শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানাচ্ছি।

” ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর তাহমিনা হকের সভাপতিত্বে এবং সহকারী অধ্যাপক মো. গোলাম রসুলের সঞ্চালনায় নবীব বরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান, করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান ও ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাজি মোহাম্মদ সেলিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

যথাযথ শিক্ষা গ্রহণ ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে রাষ্ট্রকে গর্বিত করুনঃ মেয়র তাপস

আপডেট সময় ১০:১১:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩

যথাযথভাবে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করা এবং দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সমাজ ও রাষ্ট্রকে গর্বিত করতে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে নগরীর লক্ষীবাজারস্থ ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের নবীণ বরণ-২০২৩ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এ আহবান জানান।

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আব্রাহাম লিংকন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। একদিন যখন শুয়েছিলেন, তিনি তার খাতায় লিখলেন — আমি শিক্ষা গ্রহণ করব, আমি নিজেকে তৈরি করব এবং হয়তোবা একদিন আমার সুযোগ আসবে। তিনি শিক্ষা গ্রহণ করেছেন, নিজেকে তৈরি করেছেন এবং তার সেই সুযোগটাও একদিন আসলো। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো বৃহৎ জাতিসত্তার একটি রাষ্ট্র গঠন করেছেন।

আপনারা অনেক স্বপ্ন নিয়ে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজে এসেছেন। আপনাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনারা যথাযথ শিক্ষা গ্রহণ করবেন এবং সকল ক্ষেত্রে নিজেদেরকে তৈরি করবেন, প্রতিষ্ঠা করবেন। যাতে করে একদিন আপনাদেরও সেই সুযোগ আসে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন সবাইকে একটি পূর্ণ সুযোগ দেন। কিন্তু সেই সুযোগটা সবাই গ্রহণ করতে পারে না। আমি মনে করি, আপনারা আপনাদেরকে সেভাবে তৈরি করবেন যেন যখনই কোনও সুযোগ আসে সেটাকে গ্রহণ করতে পারেন। অর্জন করতে পারেন। এই সুযোগ গ্রহণের মাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করবেন, পিতা-মাতার স্বপ্ন পূরণ করবেন। তাদেরকে গর্বিত করবেন। দেশপ্রেমে উদ্বেলিত হয়ে সমাজ এবং দেশকে গর্বিত করবেন।

” স্বপ্ন দেখা এবং সেই স্বপ্নের বাস্তবায়নে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হয় জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “সবকিছুর শুরু হয় একটি স্বপ্ন দিয়ে। আপনারা এখানে এসেছেন আপনাদের নিজের, পিতা-মাতা ও অভিভাবকদের স্বপ্ন পূরণ করতে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার নেতা লুথার কিং জুনিয়রকে ১৯৬৮ সালে হত্যা করা হয়। কৃষাঙ্গ এই নেতা বলেছিলেন — আই হ্যাভ এ ড্রিম। আমার একটি স্বপ্ন আছে। একসময় যুক্তরাষ্ট্রে কৃষাঙ্গদের কোনও অধিকার ছিল না। তাদেরকে ক্রীতদাস হিসেবে ব্যবহার করা হতো। তিনি চেয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ-শ্বেতাঙ্গ সবাই সমান অধিকার পাবে। উনি সেটা পরিপূর্ণভাবে দেখে যেতে পারেননি। কিন্তু তার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে ৫ দশক পরে। ২০০৮ সালে একজন কৃষ্ণাঙ্গ নেতা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। ইতিহাস রচনা করে বারাক ওবামা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হয়েছেন।”

এ সময় নবীনদেরকে স্বাগত জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “আজ আমাদেরকে স্বাগত জানানো হচ্ছে। আসলে বিষয়টি কিন্তু তা নয়। আজ আমরা উপস্থিত হয়েছি আপনাদেরকে স্বাগত জানাতে। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে আপনাদেরকে বরণ করে নিতে। ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরিচালিত একমাত্র কলেজ। আমি এই কলেজে নবাগত শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানাচ্ছি।

” ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর তাহমিনা হকের সভাপতিত্বে এবং সহকারী অধ্যাপক মো. গোলাম রসুলের সঞ্চালনায় নবীব বরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান, করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান ও ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাজি মোহাম্মদ সেলিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।