০৩:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের গোপন নথি ফাঁস, গ্রেপ্তার তরুণ সম্পর্কে যা জানা যাচ্ছে

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:১২:৪৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৬৭ বার পড়া হয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিষয়ক কয়েক ডজন অতি গোপনীয় নথি ফাঁস এবং সেসব অনলাইনে ছড়ানোর অভিযোগে সন্দেহভাজন এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই)। নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রেপ্তার তরুণের নাম জ্যাক ডগলাস টাশেরা। মার্কিন বিমানবাহিনীর এয়ার ন্যাশনাল গার্ডের সদস্য তিনি। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক বি গারলান্ড বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, অনুমতি ছাড়া মার্কিন প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত অতি গোপনীয় নথি ফাঁসের ঘটনা তদন্তে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওয়াশিংটনে ইউএস আইন মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মেরিক বলেন, এদিন বিকেলে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করেন এফবিআই সদস্যরা। এ নিয়ে তদন্ত চলছে। তবে এ বিষয়ে কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি তিনি। এফবিআই জানায়, ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের নর্থ ডিগটন শহরের এক বাড়ি থেকে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তাকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা দাবি করেছে, ‘থাগ শাকের সেন্ট্রাল’ নামের অনলাইন গেমিং চ্যাট গ্রুপে গোপনীয় তথ্যগুলো ফাঁস করেছেন টাশেরা। মুহূর্তেই সেসব ভাইরাল হয়ে যায়।

এফবিআই বলছে, গত সপ্তাহের শেষদিকে নথিগুলো ফাঁসের ঘটনা ঘটে। এতে দেশের সঙ্গে বিশ্বাস ঘাতকতা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে ফেলা হয়েছে। এমন ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করে, খুঁজে বের করে জবাবদিহির আওতায় আনা আমাদের প্রতিশ্রুতির দৃষ্টান্ত। তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক ব্যক্তি জানান, ২১ বছর বয়সী টাশেরার বাড়ি থেকে বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তার কাছে একাধিক অস্ত্র ছিল।

ফাঁস হওয়া তথ্য এরইমধ্যে ইন্টারনেট থেকে উধাও হয়েছে। সেসব নথিতে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের মিত্রদের নানা তথ্য থাকতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন জেগেছে, কীভাবে সেসব তথ্যে ঢুকলো টাশেরা। তাহলে কী নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল ছিল?

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

যুক্তরাষ্ট্রের গোপন নথি ফাঁস, গ্রেপ্তার তরুণ সম্পর্কে যা জানা যাচ্ছে

আপডেট সময় ১১:১২:৪৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৩

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিষয়ক কয়েক ডজন অতি গোপনীয় নথি ফাঁস এবং সেসব অনলাইনে ছড়ানোর অভিযোগে সন্দেহভাজন এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই)। নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রেপ্তার তরুণের নাম জ্যাক ডগলাস টাশেরা। মার্কিন বিমানবাহিনীর এয়ার ন্যাশনাল গার্ডের সদস্য তিনি। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক বি গারলান্ড বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, অনুমতি ছাড়া মার্কিন প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত অতি গোপনীয় নথি ফাঁসের ঘটনা তদন্তে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওয়াশিংটনে ইউএস আইন মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মেরিক বলেন, এদিন বিকেলে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করেন এফবিআই সদস্যরা। এ নিয়ে তদন্ত চলছে। তবে এ বিষয়ে কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি তিনি। এফবিআই জানায়, ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের নর্থ ডিগটন শহরের এক বাড়ি থেকে টাশেরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তাকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা দাবি করেছে, ‘থাগ শাকের সেন্ট্রাল’ নামের অনলাইন গেমিং চ্যাট গ্রুপে গোপনীয় তথ্যগুলো ফাঁস করেছেন টাশেরা। মুহূর্তেই সেসব ভাইরাল হয়ে যায়।

এফবিআই বলছে, গত সপ্তাহের শেষদিকে নথিগুলো ফাঁসের ঘটনা ঘটে। এতে দেশের সঙ্গে বিশ্বাস ঘাতকতা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে ফেলা হয়েছে। এমন ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করে, খুঁজে বের করে জবাবদিহির আওতায় আনা আমাদের প্রতিশ্রুতির দৃষ্টান্ত। তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক ব্যক্তি জানান, ২১ বছর বয়সী টাশেরার বাড়ি থেকে বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তার কাছে একাধিক অস্ত্র ছিল।

ফাঁস হওয়া তথ্য এরইমধ্যে ইন্টারনেট থেকে উধাও হয়েছে। সেসব নথিতে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের মিত্রদের নানা তথ্য থাকতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন জেগেছে, কীভাবে সেসব তথ্যে ঢুকলো টাশেরা। তাহলে কী নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল ছিল?