০৫:২৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

যে কারণে জয় বাংলা কনসার্টে ১ মিনিট নীরবতা পালন

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৬:৪০:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩
  • / ৭৭ বার পড়া হয়েছে

করোনার কারণে মাঝে দুই বছর হয়নি দেশের সবচেয়ে বড় সংগীতের আসর ‘জয় বাংলা কনসার্ট’। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ এবং স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ২০১৫ সাল থেকে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে প্রতি বছরই এটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

এবার বুধবার (৮ মার্চ) আর্মি স্টেডিয়ামে ‘জয় বাংলা কনসার্ট ২০২৩’ মাতাতে ‘আর্টসেল’, ‘ক্রিপটিক ফেইট’, ‘চিরকুট’, ‘নেমেসিস’, ‘লালন’, ‘আরেকটা রক ব্যান্ড’, ‘মেঘদল’, ‘অ্যাভয়েড রাফা’ ও ‘কার্নিভাল’। বিষয়টি নিশ্চিত করে মেইনস্প্রিং লিমিটেডের প্রতীক গণমাধ্যমে বলেন, ‘এবার মোট ৯টি ব্যান্ড পারফর্ম করবে। যেহেতু দুই বছর পর হচ্ছে, সে কারণে দর্শকের আগ্রহও অনেক বেশি। এজন্য আমরা অনেক ভেবেচিন্তে পরিকল্পনা সাজিয়েছি। যাতে সবাই নিরাপদে, আনন্দে কনসার্ট উপভোগ করতে পারে।

তিনি আরও জানান, যেহেতু ৮ মার্চ নারী দিবস, তাই কনসার্টে এটিও উদযাপন করা হবে। নারীদের জন্য আলাদা কর্ণার থাকবে। দুপুর ১২টায় কনসার্টের গেট খুলে দেওয়া হয়। এর ঘণ্টাখানেক পর শুরু হয় পারফরম্যান্স। শেষ হবে রাত সাড়ে ১০টায়। তবে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বিকেলে গুলিস্তানের নর্থ-সাউথ রোডের ১৮০/১ হোল্ডিংয়ের সাততলা ভবনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। যে ভবনে বিস্ফোরণ ঘটেছে, তার তিনতলা পর্যন্ত পুরোটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিস্ফোরণে ভবনটির দেয়াল ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি ভেতরের জিনিসপত্র ছিটকে বাইরে গিয়ে পড়ে।

ভবনের উল্টোদিকে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পাশের কয়েকটি ভবনও। বিস্ফোরণের পরই উদ্ধারকাজে অংশ নেয় ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট। বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থল থেকে আহতদের হাসপাতালে নেয়ার কাজ করেছে। এ ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী ও স্থানীয়রাও উদ্ধারকাজে অংশ নেন। বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২০ জন নিহত হয়েছেন।

তাদের স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয় জয় বাংলা কনসার্টে। প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া ঐতিহাসিক ভাষণের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ২০১৫ সাল থেকে প্রতি বছর জয় বাংলা কনসার্টের আয়োজন করে আসছে বাংলাদেশের তরুণদের অন্যতম বড় নেটওয়ার্ক ইয়াং বাংলা। কনসার্টের বড় অংশজুড়ে থাকে মুক্তিযুদ্ধের বার্তা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

যে কারণে জয় বাংলা কনসার্টে ১ মিনিট নীরবতা পালন

আপডেট সময় ০৬:৪০:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩

করোনার কারণে মাঝে দুই বছর হয়নি দেশের সবচেয়ে বড় সংগীতের আসর ‘জয় বাংলা কনসার্ট’। ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ এবং স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ২০১৫ সাল থেকে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে প্রতি বছরই এটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

এবার বুধবার (৮ মার্চ) আর্মি স্টেডিয়ামে ‘জয় বাংলা কনসার্ট ২০২৩’ মাতাতে ‘আর্টসেল’, ‘ক্রিপটিক ফেইট’, ‘চিরকুট’, ‘নেমেসিস’, ‘লালন’, ‘আরেকটা রক ব্যান্ড’, ‘মেঘদল’, ‘অ্যাভয়েড রাফা’ ও ‘কার্নিভাল’। বিষয়টি নিশ্চিত করে মেইনস্প্রিং লিমিটেডের প্রতীক গণমাধ্যমে বলেন, ‘এবার মোট ৯টি ব্যান্ড পারফর্ম করবে। যেহেতু দুই বছর পর হচ্ছে, সে কারণে দর্শকের আগ্রহও অনেক বেশি। এজন্য আমরা অনেক ভেবেচিন্তে পরিকল্পনা সাজিয়েছি। যাতে সবাই নিরাপদে, আনন্দে কনসার্ট উপভোগ করতে পারে।

তিনি আরও জানান, যেহেতু ৮ মার্চ নারী দিবস, তাই কনসার্টে এটিও উদযাপন করা হবে। নারীদের জন্য আলাদা কর্ণার থাকবে। দুপুর ১২টায় কনসার্টের গেট খুলে দেওয়া হয়। এর ঘণ্টাখানেক পর শুরু হয় পারফরম্যান্স। শেষ হবে রাত সাড়ে ১০টায়। তবে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বিকেলে গুলিস্তানের নর্থ-সাউথ রোডের ১৮০/১ হোল্ডিংয়ের সাততলা ভবনে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। যে ভবনে বিস্ফোরণ ঘটেছে, তার তিনতলা পর্যন্ত পুরোটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিস্ফোরণে ভবনটির দেয়াল ভেঙে যাওয়ার পাশাপাশি ভেতরের জিনিসপত্র ছিটকে বাইরে গিয়ে পড়ে।

ভবনের উল্টোদিকে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পাশের কয়েকটি ভবনও। বিস্ফোরণের পরই উদ্ধারকাজে অংশ নেয় ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট। বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থল থেকে আহতদের হাসপাতালে নেয়ার কাজ করেছে। এ ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী ও স্থানীয়রাও উদ্ধারকাজে অংশ নেন। বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২০ জন নিহত হয়েছেন।

তাদের স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয় জয় বাংলা কনসার্টে। প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া ঐতিহাসিক ভাষণের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ২০১৫ সাল থেকে প্রতি বছর জয় বাংলা কনসার্টের আয়োজন করে আসছে বাংলাদেশের তরুণদের অন্যতম বড় নেটওয়ার্ক ইয়াং বাংলা। কনসার্টের বড় অংশজুড়ে থাকে মুক্তিযুদ্ধের বার্তা।