১০:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

রাজধানীতে আজও তীব্র যানজট

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৪:১৯:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫ বার পড়া হয়েছে

পবিত্র রমজান শুরুর পর সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসেও রাজধানীতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গতকালের তুলনায় মঙ্গলবার রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে গাড়ির চাপ কিছুটা কম হলেও বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট দেখা গেছে।

রাজধানীর উত্তরা, বনানী, মহাখালী, জাহাঙ্গীর গেট, বিজয় সরণি মোড়, ফার্মগেট, শাহবাগ, মৎস্যভবন ও পল্টন সড়কে সকাল থেকে ছিল যানবাহনের চাপ। অফিসগামী যাত্রী ছাড়াও বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়া যাত্রীদের দীর্ঘ সময় যানজটে বসে থাকতে হয়েছে। গতকালের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে নির্ধারিত সময়ের আগে বাসা থেকে বের হয়েও যানজটে আটকে থাকতে হয়েছে অনেককে।

হাতিরঝিলের মহানগর প্রকল্পের সামনের সড়কে খোঁড়াখুঁড়ি করায় যানবাহনের মহানগর প্রকল্পের সামনে থেকে হাতিরঝিলের এফডিসি মোড় পর্যন্ত সড়কে যানবাহনের চাপ বেশি ছিল। এ সময় এফডিসি মোড় থেকে সোনারগাঁও মোড়ের রাস্তাটিতে যানবাহনের তীব্র চাপ দেখা গেছে। এ সড়কে যানবাহনের চাপ বেশি দেখে সাতরাস্তা দিয়ে মেয়র আনিসুল হক সড়ক ঘুরে কারওয়ান বাজার আসতে গিয়েও ব্যাপক যানজটে পড়তে হয়েছে। এ সময় মেয়র আনিসুল হক সড়কের বিসিক ভবনের সামনে থেকে কারওয়ান বাজার রেলগেট পর্যন্ত তীব্র যানজট দেখা গেছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান যানজটের তিনটি কারণের কথা জানিয়েছেন। তার মতে, রমজান মাসে অফিসের সময় কমে যাওয়ায় পুরো ১২ ঘণ্টার চাপ এখন ৮ ঘণ্টায় ঠেকেছে। সংগত কারণেই যানজট বেড়ে গেছে। এর পাশাপাশি রাজধানীতে বিভিন্ন স্থানে চলছে খোঁড়াখুঁড়ির কাজ। এতে যানজট পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে। আর তৃতীয় কারণ হলো, গুলশান বা উত্তরার মতো যেসব সড়কে দ্রুতগতির যান বেশি চলাচল করে, সেখানে হঠাৎ যানজটের সৃষ্টি হলে এর প্রভাব অন্য এলাকাগুলোতেও পড়ে।

ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) ফারুক হোসেন বলেন, রমজান এলে ঢাকা শহরে যানজট বেড়ে যায়। সড়কের উভয় পাশে অবৈধ পার্কিং ও ফুটপাত দখল এবং যত্রতত্র গাড়ি চলাচলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ট্রাফিক পুলিশসহ থানা পুলিশ সদস্যরা যানজট নিরসনে বাড়তি ডিউটি করছেন। কিন্তু ঢাকা শহরের যানজট নিরসন পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। সড়কে চলাচলকারী সবার এ বিষয়ে সহযোগিতা প্রয়োজন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজধানীতে আজও তীব্র যানজট

আপডেট সময় ০৪:১৯:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩

পবিত্র রমজান শুরুর পর সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসেও রাজধানীতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গতকালের তুলনায় মঙ্গলবার রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে গাড়ির চাপ কিছুটা কম হলেও বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট দেখা গেছে।

রাজধানীর উত্তরা, বনানী, মহাখালী, জাহাঙ্গীর গেট, বিজয় সরণি মোড়, ফার্মগেট, শাহবাগ, মৎস্যভবন ও পল্টন সড়কে সকাল থেকে ছিল যানবাহনের চাপ। অফিসগামী যাত্রী ছাড়াও বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়া যাত্রীদের দীর্ঘ সময় যানজটে বসে থাকতে হয়েছে। গতকালের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে নির্ধারিত সময়ের আগে বাসা থেকে বের হয়েও যানজটে আটকে থাকতে হয়েছে অনেককে।

হাতিরঝিলের মহানগর প্রকল্পের সামনের সড়কে খোঁড়াখুঁড়ি করায় যানবাহনের মহানগর প্রকল্পের সামনে থেকে হাতিরঝিলের এফডিসি মোড় পর্যন্ত সড়কে যানবাহনের চাপ বেশি ছিল। এ সময় এফডিসি মোড় থেকে সোনারগাঁও মোড়ের রাস্তাটিতে যানবাহনের তীব্র চাপ দেখা গেছে। এ সড়কে যানবাহনের চাপ বেশি দেখে সাতরাস্তা দিয়ে মেয়র আনিসুল হক সড়ক ঘুরে কারওয়ান বাজার আসতে গিয়েও ব্যাপক যানজটে পড়তে হয়েছে। এ সময় মেয়র আনিসুল হক সড়কের বিসিক ভবনের সামনে থেকে কারওয়ান বাজার রেলগেট পর্যন্ত তীব্র যানজট দেখা গেছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান যানজটের তিনটি কারণের কথা জানিয়েছেন। তার মতে, রমজান মাসে অফিসের সময় কমে যাওয়ায় পুরো ১২ ঘণ্টার চাপ এখন ৮ ঘণ্টায় ঠেকেছে। সংগত কারণেই যানজট বেড়ে গেছে। এর পাশাপাশি রাজধানীতে বিভিন্ন স্থানে চলছে খোঁড়াখুঁড়ির কাজ। এতে যানজট পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে। আর তৃতীয় কারণ হলো, গুলশান বা উত্তরার মতো যেসব সড়কে দ্রুতগতির যান বেশি চলাচল করে, সেখানে হঠাৎ যানজটের সৃষ্টি হলে এর প্রভাব অন্য এলাকাগুলোতেও পড়ে।

ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) ফারুক হোসেন বলেন, রমজান এলে ঢাকা শহরে যানজট বেড়ে যায়। সড়কের উভয় পাশে অবৈধ পার্কিং ও ফুটপাত দখল এবং যত্রতত্র গাড়ি চলাচলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ট্রাফিক পুলিশসহ থানা পুলিশ সদস্যরা যানজট নিরসনে বাড়তি ডিউটি করছেন। কিন্তু ঢাকা শহরের যানজট নিরসন পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। সড়কে চলাচলকারী সবার এ বিষয়ে সহযোগিতা প্রয়োজন।