০৪:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

রাজা তৃতীয় চার্লসের রাজ্যাভিষেক আজ

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:৪৯:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ মে ২০২৩
  • / ৮০ বার পড়া হয়েছে

আজ লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অভিষেক হচ্ছে রাজা তৃতীয় চার্লসের। ব্রিটেনের ৪০তম রাজা এবং মা দ্বিতীয় এলিজাবেথের উত্তরসূরি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে সিংহাসনে আরোহণ করছেন তিনি।

স্থানীয় সময় শনিবার (৬ মে) বেলা ১১টায় শুরু হবে অভিষেকের এ আনুষ্ঠানিকতা। আনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে রাজাকে বহনকারী গাড়িবহর বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে অভিমুখে যাত্রা শুরু করবে। এর আগে, শুক্রবার রাজা তৃতীয় চার্লস জনসাধারণের সাথে দেখা করেন। তিনি ট্রাফালগার স্কোয়ার এবং বাকিংহাম প্রাসাদের মাঝের সড়ক দিয়ে হেঁটে যান এবং পথের দুই ধারে সারিবদ্ধ লোকদের সঙ্গে দেখা করেন।

অভিষেক অনুষ্ঠানের পরপরই ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে থেকে প্রাসাদ অভিমুখে অভিষেক মিছিলের আয়োজন করা হবে। বিকালে রাজা এবং রানি বাকিংহাম প্রাসাদের ব্যালকনি থেকে জনতার উদ্দেশে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাবেন। ৭০ বছরের মধ্যে প্রথম এ অভিষেক অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে সেন্ট্রাল লন্ডনের মল, হোয়াইট হল এবং পার্লামেন্ট স্কোয়ার ঘিরে হাজার হাজার জনতা এবং রাজপরিবারের ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষী ভিড় করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ধর্মীয় এই আচার-অনুষ্ঠানে রয়েছে, স্বীকৃতি, শপথ, পবিত্র তেলে সিক্ত করা, সিংহাসনে আরোহণ, রাজমুকুট পরিয়ে দেওয়া ও সংবর্ধনা বা রাজার প্রতি আনুগত্য প্রদর্শন। এরপর আসে রাজাকে স্বীকৃতি দানের পালা। এবার শুধু প্রিন্স উইলিয়ামই একমাত্র রয়্যাল ডিউক হিসেবে হাঁটু গেড়ে সম্মান প্রদর্শন করবেন। রাজ্যাভিষেকের অনুষ্ঠানে রয়েছে বেশ কয়েকটি উপকরণ– যেমন রাজমুকুট, রাজ গোলক, রাজদণ্ড, আংটি ও অন্যান্য পবিত্র ও প্রতিকী অলংকার। যা দিয়ে রাজাকে ভূষিত করা হয়।

এরমধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপকরণটি হচ্ছে সেইন্ট এডওয়ার্ডের রাজমুকুট। এটা অভিষেকের কেন্দ্রীয় ভূমিকায় থাকে। কারণ, অভিষেকের মুহূর্তে এই রাজমুকুটটি পরিয়ে দেওয়া হয়। সোনায় গড়া এই রাজমুকুট বেগুনি মখমলের টুপি ও আরমাইন ব্যান্ডে দিয়ে সজ্জিত। তাতে খচিত আছে ৪৪৪টি মূল্যবান পাথর, যার মধ্যে আছে পান্না, নীলা, নীলকান্ত মনির মত রত্ন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

রাজা তৃতীয় চার্লসের রাজ্যাভিষেক আজ

আপডেট সময় ১১:৪৯:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ মে ২০২৩

আজ লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অভিষেক হচ্ছে রাজা তৃতীয় চার্লসের। ব্রিটেনের ৪০তম রাজা এবং মা দ্বিতীয় এলিজাবেথের উত্তরসূরি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে সিংহাসনে আরোহণ করছেন তিনি।

স্থানীয় সময় শনিবার (৬ মে) বেলা ১১টায় শুরু হবে অভিষেকের এ আনুষ্ঠানিকতা। আনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে রাজাকে বহনকারী গাড়িবহর বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে অভিমুখে যাত্রা শুরু করবে। এর আগে, শুক্রবার রাজা তৃতীয় চার্লস জনসাধারণের সাথে দেখা করেন। তিনি ট্রাফালগার স্কোয়ার এবং বাকিংহাম প্রাসাদের মাঝের সড়ক দিয়ে হেঁটে যান এবং পথের দুই ধারে সারিবদ্ধ লোকদের সঙ্গে দেখা করেন।

অভিষেক অনুষ্ঠানের পরপরই ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে থেকে প্রাসাদ অভিমুখে অভিষেক মিছিলের আয়োজন করা হবে। বিকালে রাজা এবং রানি বাকিংহাম প্রাসাদের ব্যালকনি থেকে জনতার উদ্দেশে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাবেন। ৭০ বছরের মধ্যে প্রথম এ অভিষেক অনুষ্ঠান সরাসরি দেখতে সেন্ট্রাল লন্ডনের মল, হোয়াইট হল এবং পার্লামেন্ট স্কোয়ার ঘিরে হাজার হাজার জনতা এবং রাজপরিবারের ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষী ভিড় করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ধর্মীয় এই আচার-অনুষ্ঠানে রয়েছে, স্বীকৃতি, শপথ, পবিত্র তেলে সিক্ত করা, সিংহাসনে আরোহণ, রাজমুকুট পরিয়ে দেওয়া ও সংবর্ধনা বা রাজার প্রতি আনুগত্য প্রদর্শন। এরপর আসে রাজাকে স্বীকৃতি দানের পালা। এবার শুধু প্রিন্স উইলিয়ামই একমাত্র রয়্যাল ডিউক হিসেবে হাঁটু গেড়ে সম্মান প্রদর্শন করবেন। রাজ্যাভিষেকের অনুষ্ঠানে রয়েছে বেশ কয়েকটি উপকরণ– যেমন রাজমুকুট, রাজ গোলক, রাজদণ্ড, আংটি ও অন্যান্য পবিত্র ও প্রতিকী অলংকার। যা দিয়ে রাজাকে ভূষিত করা হয়।

এরমধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপকরণটি হচ্ছে সেইন্ট এডওয়ার্ডের রাজমুকুট। এটা অভিষেকের কেন্দ্রীয় ভূমিকায় থাকে। কারণ, অভিষেকের মুহূর্তে এই রাজমুকুটটি পরিয়ে দেওয়া হয়। সোনায় গড়া এই রাজমুকুট বেগুনি মখমলের টুপি ও আরমাইন ব্যান্ডে দিয়ে সজ্জিত। তাতে খচিত আছে ৪৪৪টি মূল্যবান পাথর, যার মধ্যে আছে পান্না, নীলা, নীলকান্ত মনির মত রত্ন।