০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

রানবন্যার ম্যাচে বড় জয়ে দুইয়ে উঠে এলো লখনৌ

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:২০:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫৮ বার পড়া হয়েছে

চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ৩৮তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল পাঞ্জাব কিংস ও লখনৌ সুপার জায়ান্টস। রানবন্যার এই ম্যাচে পাঞ্জাবকে ৫৬ রানে হারিয়ে আসরের পঞ্চম জয় তুলে নিয়েছে লখনৌ। এই ম্যাচ জিতে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা রাজস্থানের চেয়ে নেট রানরেটে পিছিয়ে থাকায় তালিকায় দুইয়ে উঠে এসেছে লোকেশ রাহুলের দল।

শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) রাতে মোহালিতে প্রথম ব্যাট হাতে কাইল মায়ার্স ও মার্কাস স্টোইনিসের ফিফটিতে ভর করে আইপিএল ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫৭ রানের বিশাল পুঁজি পায় লখনৌ। জবাবে রান তাড়া করতে নেমে লোকাল ইয়াশ ঠাকুর ও আফগান পেসার নাভিন-উল-হকের বোলিং তোপে ২০১ রানে গুটিয়ে যায় পাঞ্চাবের ইনিংস। এদিন টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে লখনৌ অধিনায়ক রাহুল ১২ রান করে ফিরে যান। আরেক ওপেনার মায়ার্স ২৪ বলে ৫৪ রান করেন।

এরপর তিনে নেমে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় ২৪ বলে ৪৩ রানের ক্যামিও এক ইনিংস খেলেন তরুণ আয়ুশ বাদনি। এরপর ৬ চার ও ৫ ছক্কায় স্টোইনিসের ৭২ এবং ১৯ বলে ক্যারিবীয় উইকেট-কিপার পুরানের অপরাজিত ৪৫ রানে আইপিএলের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫৭ রানে থামে লখনৌর ইনিংস। এর আগে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইলের ১৭৫ রানের সুবাদে রেকর্ড ২৬৩ রান তুলেছিল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। ২০১৩ সালের আসরে পুনে ওয়ারির্সেরর বিপক্ষে এই রেকর্ড গড়ে আরসিবি। বোলিংয়ে পাঞ্জাবের হয়ে ৪ ওভারে ৫৪ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন আর্শদীপ সিং।

৪ ওভারে ৫২ রান দিয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন প্রোটিয়া পেসার রাবাদা। এ ছাড়া একটি করে উইকেট শিকার করেন স্যাম কুরান ও লিয়াম লিভিংস্টোন। বিশাল রান তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লেতেই দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও প্রবিসিমরান সিংয়ের উইকেট হারায় পাঞ্জাব। তৃতীয় উইকেটে তাইদে ও রাজা ৭৮ রানের জুটি গড়েন। তবে রাজা ২২ বলে ৩৬ রান করে বিদায় নেন। তার বিদায়ের পর আইপিএলে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া তাইদেও সাজঘরে ফেরেন। বিদায়ের আগে ৩৬ বলে ৬৬ রান করেন তিনি। এরপর লিভিংস্টোন ২৩, স্যাম কারান ২১ ও জিতেশ শর্মার ২৪ রানের পরও ১৯.৫ ওভারে ২০১ রানে অলরাউট হয়ে যায় কিংস।

ফলে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস ৫৬ রানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। বোলিংয়ে ঈয়াশ ঠাকুর ৩৭ রানে ৪ উইকেট নেন। এছাড়া নাভিন ৩ ও রবি বিষ্ণই ২ উইকেট পান। এ জয়ে দুইয়ে উঠে এল লোকেশ রাহুলের লখনৌ। সমান ১০ পয়েন্ট করে হলেও নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় শীর্ষে আছে রাজস্থান রয়্যালস। আর হারের পরও পয়েন্ট তালিকার ছয়ে রয়ে গেল পাঞ্জাব।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

রানবন্যার ম্যাচে বড় জয়ে দুইয়ে উঠে এলো লখনৌ

আপডেট সময় ১১:২০:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৩

চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ৩৮তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল পাঞ্জাব কিংস ও লখনৌ সুপার জায়ান্টস। রানবন্যার এই ম্যাচে পাঞ্জাবকে ৫৬ রানে হারিয়ে আসরের পঞ্চম জয় তুলে নিয়েছে লখনৌ। এই ম্যাচ জিতে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা রাজস্থানের চেয়ে নেট রানরেটে পিছিয়ে থাকায় তালিকায় দুইয়ে উঠে এসেছে লোকেশ রাহুলের দল।

শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) রাতে মোহালিতে প্রথম ব্যাট হাতে কাইল মায়ার্স ও মার্কাস স্টোইনিসের ফিফটিতে ভর করে আইপিএল ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫৭ রানের বিশাল পুঁজি পায় লখনৌ। জবাবে রান তাড়া করতে নেমে লোকাল ইয়াশ ঠাকুর ও আফগান পেসার নাভিন-উল-হকের বোলিং তোপে ২০১ রানে গুটিয়ে যায় পাঞ্চাবের ইনিংস। এদিন টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে লখনৌ অধিনায়ক রাহুল ১২ রান করে ফিরে যান। আরেক ওপেনার মায়ার্স ২৪ বলে ৫৪ রান করেন।

এরপর তিনে নেমে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় ২৪ বলে ৪৩ রানের ক্যামিও এক ইনিংস খেলেন তরুণ আয়ুশ বাদনি। এরপর ৬ চার ও ৫ ছক্কায় স্টোইনিসের ৭২ এবং ১৯ বলে ক্যারিবীয় উইকেট-কিপার পুরানের অপরাজিত ৪৫ রানে আইপিএলের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫৭ রানে থামে লখনৌর ইনিংস। এর আগে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইলের ১৭৫ রানের সুবাদে রেকর্ড ২৬৩ রান তুলেছিল রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। ২০১৩ সালের আসরে পুনে ওয়ারির্সেরর বিপক্ষে এই রেকর্ড গড়ে আরসিবি। বোলিংয়ে পাঞ্জাবের হয়ে ৪ ওভারে ৫৪ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন আর্শদীপ সিং।

৪ ওভারে ৫২ রান দিয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন প্রোটিয়া পেসার রাবাদা। এ ছাড়া একটি করে উইকেট শিকার করেন স্যাম কুরান ও লিয়াম লিভিংস্টোন। বিশাল রান তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লেতেই দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও প্রবিসিমরান সিংয়ের উইকেট হারায় পাঞ্জাব। তৃতীয় উইকেটে তাইদে ও রাজা ৭৮ রানের জুটি গড়েন। তবে রাজা ২২ বলে ৩৬ রান করে বিদায় নেন। তার বিদায়ের পর আইপিএলে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া তাইদেও সাজঘরে ফেরেন। বিদায়ের আগে ৩৬ বলে ৬৬ রান করেন তিনি। এরপর লিভিংস্টোন ২৩, স্যাম কারান ২১ ও জিতেশ শর্মার ২৪ রানের পরও ১৯.৫ ওভারে ২০১ রানে অলরাউট হয়ে যায় কিংস।

ফলে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস ৫৬ রানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। বোলিংয়ে ঈয়াশ ঠাকুর ৩৭ রানে ৪ উইকেট নেন। এছাড়া নাভিন ৩ ও রবি বিষ্ণই ২ উইকেট পান। এ জয়ে দুইয়ে উঠে এল লোকেশ রাহুলের লখনৌ। সমান ১০ পয়েন্ট করে হলেও নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় শীর্ষে আছে রাজস্থান রয়্যালস। আর হারের পরও পয়েন্ট তালিকার ছয়ে রয়ে গেল পাঞ্জাব।