০৪:৫১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

রাষ্ট্রচিন্তার দিদারুলের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা স্থগিত

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:৪৮:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩
  • / ৫১ বার পড়া হয়েছে

রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার বিচার কার্যক্রম স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার (৩ মে) বিচারপতি মো. বদরুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মাসুদ হোসাইন দোলনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান।

২০২০ সালের ৫ মে দিদারুলকে নিজ বাসা থেকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি, অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে সেদিনই প্রবাসী সাংবাদিক, কার্টুনিস্টসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রমনা থানায় ওই মামলা করে র‍্যাব। মামলায় ২০২০ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর জামিনের পর কারামুক্তি পান দিদারুল।

এই মামলায় ২০২২ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়াসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে দিদারুলের করা আবেদনও সেদিন খারিজ করা হয়। এর বিরুদ্ধে চলতি বছর হাইকোর্টে আপিল করেন দিদারুল।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

রাষ্ট্রচিন্তার দিদারুলের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা স্থগিত

আপডেট সময় ১০:৪৮:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩

রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার বিচার কার্যক্রম স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার (৩ মে) বিচারপতি মো. বদরুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মাসুদ হোসাইন দোলনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান।

২০২০ সালের ৫ মে দিদারুলকে নিজ বাসা থেকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি, অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে সেদিনই প্রবাসী সাংবাদিক, কার্টুনিস্টসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রমনা থানায় ওই মামলা করে র‍্যাব। মামলায় ২০২০ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর জামিনের পর কারামুক্তি পান দিদারুল।

এই মামলায় ২০২২ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়াসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে দিদারুলের করা আবেদনও সেদিন খারিজ করা হয়। এর বিরুদ্ধে চলতি বছর হাইকোর্টে আপিল করেন দিদারুল।