০৮:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

‘রিজভীর কারামুক্তিতে বাধা নেই’

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:০২:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫৮ বার পড়া হয়েছে

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর বিরুদ্ধে দায়ের করা সবগুলো মামলাই জামিন দিয়েছেন আদালত। ফলে তার কারামুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেজবাহ।

মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) মানহানি মামলায় রিজভীর জামিন মঞ্জুর করেন গোপালগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। এ জামিননামা কারাগারে পৌঁছালেই কারামুক্ত হতে পারবেন বলে জানান রিজভীর এ আইনজীবী। জয়নুল আবেদীন মেজবাহ বলেন, ২০২২ সালের ৭ ডিসেম্বর রুহুল কবির রিজভী গ্রেপ্তার হন। এরপর ঢাকাসহ সারাদেশে ৫০টি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সব মামলায় তার জামিন মঞ্জুর হয়েছে।

ফলে তার মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই। গোপালগঞ্জের মামলা সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের ২১ নেতাকর্মীসহ গোপালগঞ্জ জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি দেলোয়ার ও তার বাবা হাসেম সরদারের নাম উল্লেখ করে ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে রিজভী তাদের রাজাকার, পাকিস্তানিদের দোসর ও যুদ্ধাপরাধী বলে উল্লেখ করেন। এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি আইনজীবী দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০২১ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে সিআইডি। এ মামলায় জামিন পেয়েছেন রিজভী।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

‘রিজভীর কারামুক্তিতে বাধা নেই’

আপডেট সময় ০৯:০২:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৩

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর বিরুদ্ধে দায়ের করা সবগুলো মামলাই জামিন দিয়েছেন আদালত। ফলে তার কারামুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেজবাহ।

মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) মানহানি মামলায় রিজভীর জামিন মঞ্জুর করেন গোপালগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। এ জামিননামা কারাগারে পৌঁছালেই কারামুক্ত হতে পারবেন বলে জানান রিজভীর এ আইনজীবী। জয়নুল আবেদীন মেজবাহ বলেন, ২০২২ সালের ৭ ডিসেম্বর রুহুল কবির রিজভী গ্রেপ্তার হন। এরপর ঢাকাসহ সারাদেশে ৫০টি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সব মামলায় তার জামিন মঞ্জুর হয়েছে।

ফলে তার মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই। গোপালগঞ্জের মামলা সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের ২১ নেতাকর্মীসহ গোপালগঞ্জ জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি দেলোয়ার ও তার বাবা হাসেম সরদারের নাম উল্লেখ করে ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে রিজভী তাদের রাজাকার, পাকিস্তানিদের দোসর ও যুদ্ধাপরাধী বলে উল্লেখ করেন। এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি আইনজীবী দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০২১ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে সিআইডি। এ মামলায় জামিন পেয়েছেন রিজভী।