০৭:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

রিপোর্ট পর্যালোচনা শেষে খালেদা জিয়ার বাসায় ফেরার সিদ্ধান্ত

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৫৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩
  • / ৭২ বার পড়া হয়েছে

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার কিছু রিপোর্ট পর্যালোচনা করা হয়েছে। বাকি রিপোর্টগুলো বুধবার (৩ মে) পর্যালোচনা করা হবে। এরপর তার বাসায় ফেরার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে তার স্বাস্থ্যের অবনতি কিংবা উন্নতি কোনটিই নেই। তিনি আগের মতোই আছেন। এবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বিভিন্ন পরীক্ষা করানোর জন্য। যেসব পরীক্ষা বাসায় রেখে করানো সম্ভব ছিল না। বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ম্যাডামের অবস্থা আগের মতোই আছেন। নতুন করে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

আগামীকাল হয়তো জানা যাবে ম্যাডাম কবে বাসায় ফিরবেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একজন চিকিৎসক নেতা বলেন, আমি যতটুকু খোঁজ নিয়েছি ম্যাডামের অবস্থা মোটামুটি ভালো। তার পুরনো যেসব রোগ, সেগুলো তো আগের মতোই আছে। ওষুধ দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করে রাখা হয়েছে। দেশে এসব রোগের পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা নেই। দেশের বাইরে ছাড়া তার পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা সম্ভব নয়।

এর আগে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জে এম জাহিদ হোসেন বলেছিলেন, তার কিছু অসুস্থতা ছিল, কিছু উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। যার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে অনুযায়ী তাকে এখানে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, সেই চিকিৎসায় তিনি মোটামুটি রেসপন্স করছেন। উল্লেখ্য, ৭৮ বছর বয়সী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, লিভার ও কিডনি জটিলতা ভুগছেন। এর মধ্যে হার্টে ব্লক ধরা পড়লে অপারেশন করা হয়।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

রিপোর্ট পর্যালোচনা শেষে খালেদা জিয়ার বাসায় ফেরার সিদ্ধান্ত

আপডেট সময় ০৮:৫৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার কিছু রিপোর্ট পর্যালোচনা করা হয়েছে। বাকি রিপোর্টগুলো বুধবার (৩ মে) পর্যালোচনা করা হবে। এরপর তার বাসায় ফেরার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে তার স্বাস্থ্যের অবনতি কিংবা উন্নতি কোনটিই নেই। তিনি আগের মতোই আছেন। এবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বিভিন্ন পরীক্ষা করানোর জন্য। যেসব পরীক্ষা বাসায় রেখে করানো সম্ভব ছিল না। বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ম্যাডামের অবস্থা আগের মতোই আছেন। নতুন করে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

আগামীকাল হয়তো জানা যাবে ম্যাডাম কবে বাসায় ফিরবেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একজন চিকিৎসক নেতা বলেন, আমি যতটুকু খোঁজ নিয়েছি ম্যাডামের অবস্থা মোটামুটি ভালো। তার পুরনো যেসব রোগ, সেগুলো তো আগের মতোই আছে। ওষুধ দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করে রাখা হয়েছে। দেশে এসব রোগের পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা নেই। দেশের বাইরে ছাড়া তার পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা সম্ভব নয়।

এর আগে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জে এম জাহিদ হোসেন বলেছিলেন, তার কিছু অসুস্থতা ছিল, কিছু উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। যার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে অনুযায়ী তাকে এখানে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, সেই চিকিৎসায় তিনি মোটামুটি রেসপন্স করছেন। উল্লেখ্য, ৭৮ বছর বয়সী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, লিভার ও কিডনি জটিলতা ভুগছেন। এর মধ্যে হার্টে ব্লক ধরা পড়লে অপারেশন করা হয়।