০৩:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার শপথ ফখরুলের

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৩৫:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩
  • / ৬৮ বার পড়া হয়েছে

দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার শপথ নিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে রোববার (২৬ মার্চ) সকালে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর তিনি এই শপথের কথা জানান।

ফখরুল বলেন, সরকার দেশে একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। দেশে এখন স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র নেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছে বিএনপি। তিনি বলেন, যে আশা নিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে তা আজ ভূলুণ্ঠিত। দেশে ভোটের অধিকার নেই, কথা বলার অধিকার নেই। আমাদের দুর্ভাগ্য, ৫১ বছর পরও আজ গণতন্ত্রের জন্য প্রাণ দিতে হচ্ছে, লড়াই করতে হচ্ছে। দেশে বর্তমানে কর্তৃত্ববাদী, ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা এখন গণতন্ত্র উদ্ধারে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে লড়াই করছি। গণতন্ত্র চাওয়ার অপরাধে তাকেও আজ বন্দি করে রাখা হয়েছে। তাই, এই মহান দিনে আমরা শপথ গ্রহণ করছি- গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে, চাল-ডাল তেলের দাম সহনীয় পর্যায়ে আনার জন্য ও দেশকে সত্যিকার অর্থে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য আমরা যে সংগ্রাম শুরু করেছি, তা চালিয়ে যাব।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দীন খোকন, খায়রুল কবির খোকন, হাবীব-উন-নবী খান সোহেল, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু আশফাক, সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায়চৌধুরীসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার শপথ ফখরুলের

আপডেট সময় ০৮:৩৫:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩

দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার শপথ নিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে রোববার (২৬ মার্চ) সকালে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর তিনি এই শপথের কথা জানান।

ফখরুল বলেন, সরকার দেশে একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। দেশে এখন স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র নেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছে বিএনপি। তিনি বলেন, যে আশা নিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে তা আজ ভূলুণ্ঠিত। দেশে ভোটের অধিকার নেই, কথা বলার অধিকার নেই। আমাদের দুর্ভাগ্য, ৫১ বছর পরও আজ গণতন্ত্রের জন্য প্রাণ দিতে হচ্ছে, লড়াই করতে হচ্ছে। দেশে বর্তমানে কর্তৃত্ববাদী, ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠা পেয়েছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা এখন গণতন্ত্র উদ্ধারে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে লড়াই করছি। গণতন্ত্র চাওয়ার অপরাধে তাকেও আজ বন্দি করে রাখা হয়েছে। তাই, এই মহান দিনে আমরা শপথ গ্রহণ করছি- গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে, চাল-ডাল তেলের দাম সহনীয় পর্যায়ে আনার জন্য ও দেশকে সত্যিকার অর্থে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য আমরা যে সংগ্রাম শুরু করেছি, তা চালিয়ে যাব।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দীন খোকন, খায়রুল কবির খোকন, হাবীব-উন-নবী খান সোহেল, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু আশফাক, সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায়চৌধুরীসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।