০৬:০৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শরীর ঠান্ডা রাখতে ইফতারে রাখুন ৫ শরবত

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩
  • / ৮২ বার পড়া হয়েছে

রোজা রেখে সারাদিনে পানি না খাওয়ায় শরীর পানিশূন্য থাকে এবং প্রচুর ক্লান্তি হয়। তাই ইফতারের সময় পানীয়ের দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। ইফতারে এমন পানীয় খাওয়া উচিত যাতে সারাদিনের ক্লান্তি দূর হয়ে যায় এবং ডিহাইড্রেশনের ঝুঁকি কমে যায়।

জেনে নিন এমন পাঁচ শরবতগুলো সম্পর্কে-

ফলসা শরবত: ইফতারের সময় ফলসা শরবত খেতে পারেন। এটি একটি অত্যন্ত পুষ্টিকর ফল, যা শরীরের নানাভাবে উপকার করে। এই শরবত পান করলে কম পিপাসা পাবে, এটি থেকে প্রচুর শক্তি পাওয়া যাবে। গরমে পেটের জ্বালাপোড়া থেকেও মুক্তি দেয় এই পানীয়।

খুশ শরবত: ইফতারের সময় খুশের শরবতও পান করতে পারেন। এটি শরীরের জন্য খুবই উপকারি, এটি পান করলে শরীর সুস্থ থাকে। এটি দুর্বলতা দূর করে এবং আপনি পরের দিন রোজা রাখার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন।

চন্দন শরবত: চন্দন শরবতও ইফতারির জন্য একটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প। এর খেলে শরীরে শীতলতা আসে। শরীর হাইড্রেটেড থাকে। গরমকালে এটা পান করলে হিট স্ট্রোক এবং পেট সংক্রান্ত রোগ থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়।

মহব্বত শরবত: ইফতারে রুহ আফজা, তরমুজ, দুধ এবং বরফের টুকরো দিয়ে তৈরি মহব্বত শরবতও পান করতে পারেন। এটি একটি সুস্বাদু পানীয়। এটি পান করলে সারাদিনের ক্লান্তি দূর হয় এবং আপনি পুরোপুরি সতেজ থাকেন। প্রতিদিন ইফতারে শরবত পান করতে পারেন। এতে সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, সালফার এবং ফসফরাসের মতো শীতল খনিজ রয়েছে যা স্বস্তি দেয়। এই পানীয় পান করলে রোজা রাখার কারণে শরীরে পানির অভাব দূর হয়।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শরীর ঠান্ডা রাখতে ইফতারে রাখুন ৫ শরবত

আপডেট সময় ১১:০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মার্চ ২০২৩

রোজা রেখে সারাদিনে পানি না খাওয়ায় শরীর পানিশূন্য থাকে এবং প্রচুর ক্লান্তি হয়। তাই ইফতারের সময় পানীয়ের দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। ইফতারে এমন পানীয় খাওয়া উচিত যাতে সারাদিনের ক্লান্তি দূর হয়ে যায় এবং ডিহাইড্রেশনের ঝুঁকি কমে যায়।

জেনে নিন এমন পাঁচ শরবতগুলো সম্পর্কে-

ফলসা শরবত: ইফতারের সময় ফলসা শরবত খেতে পারেন। এটি একটি অত্যন্ত পুষ্টিকর ফল, যা শরীরের নানাভাবে উপকার করে। এই শরবত পান করলে কম পিপাসা পাবে, এটি থেকে প্রচুর শক্তি পাওয়া যাবে। গরমে পেটের জ্বালাপোড়া থেকেও মুক্তি দেয় এই পানীয়।

খুশ শরবত: ইফতারের সময় খুশের শরবতও পান করতে পারেন। এটি শরীরের জন্য খুবই উপকারি, এটি পান করলে শরীর সুস্থ থাকে। এটি দুর্বলতা দূর করে এবং আপনি পরের দিন রোজা রাখার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন।

চন্দন শরবত: চন্দন শরবতও ইফতারির জন্য একটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প। এর খেলে শরীরে শীতলতা আসে। শরীর হাইড্রেটেড থাকে। গরমকালে এটা পান করলে হিট স্ট্রোক এবং পেট সংক্রান্ত রোগ থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়।

মহব্বত শরবত: ইফতারে রুহ আফজা, তরমুজ, দুধ এবং বরফের টুকরো দিয়ে তৈরি মহব্বত শরবতও পান করতে পারেন। এটি একটি সুস্বাদু পানীয়। এটি পান করলে সারাদিনের ক্লান্তি দূর হয় এবং আপনি পুরোপুরি সতেজ থাকেন। প্রতিদিন ইফতারে শরবত পান করতে পারেন। এতে সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, সালফার এবং ফসফরাসের মতো শীতল খনিজ রয়েছে যা স্বস্তি দেয়। এই পানীয় পান করলে রোজা রাখার কারণে শরীরে পানির অভাব দূর হয়।