১২:৩৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

শাসনতন্ত্র মেনেই আগামী নির্বাচন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৯:১৭:১৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৭৯ বার পড়া হয়েছে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, নির্বাচনের জন্য সব দলের অংশগ্রহণ জরুরি। এ দেশে আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। অন্য কোনো চিন্তা থাকলে তা ভুল। কারণ, আমরা সবসময় সংবিধান ও আইনের শাসনে বিশ্বাসী। বাংলাদেশকে কারও গণতন্ত্র শেখানোর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে দেন তিনি।

বুধবার (৫ এপ্রিল) রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের এক অনুষ্ঠান শেষে এসব মন্তব্য করেন তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, সংবিধান পরিবর্তন কোনোভাবেই সম্ভব না। তবে সরকারের চেষ্টা থাকবে সবার অংশগ্রহণে সুষ্ঠু নির্বাচন। ইতোমধ্যে সব দলকে নির্বাচনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আশা করছি তারা সরকারের ডাকে সাড়া দেবে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণে দেশটির আসন্ন সফর বিষয়ে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র একটি বিষয় প্রায়ই সামনে আনে– বাংলাদেশে একটি অবাধ, স্বচ্ছ ও সুন্দর নির্বাচন চায় তারা। বর্তমান সরকারও স্বচ্ছ, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন চায়। কারণ, আওয়ামী লীগ নির্বাচনের মাধ্যমেই সরকার গঠন করেছে। এখানে তো কোনো ঝগড়া নেই।যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের সবচেয়ে বড় বন্ধু। করোনা মহামারিতে একমাত্র দেশ হিসেবে বিনামূল্যে টিকা দিয়েছে। একক দেশ হিসেবে সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক অংশীদার। একইভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য সবচেয়ে বেশি মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছে যুক্তরাষ্ট্র।

অন্যান্য দেশ শুরুতে অনেক সহায়তা করলেও সম্প্রতি কমিয়ে দিয়েছে। আব্দুল মোমেন বলেন, গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে। ভুয়া ভোট ঠেকাতে বায়োমেট্রিক পরিচয়পত্র ও স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স করা হয়েছে। স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন হয়েছে। গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সরকার অবশ্যই তাদের সহায়তা করবে। তবে শুধু সরকার করলে হবে না; জনগণ, ভোটার, বিরোধী দল, সংবাদমাধ্যমসহ যত রাজনৈতিক দল রয়েছে, সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

এর আগে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-জাপান বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবন নিয়ে জাপানি চিত্রকলা গ্রাফিক্স নোবেল (জাপানিজ ‘মাঙ্গা’ ফর্মে) একটি কমিক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল মোমেন ও জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা, ম্যাক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান ও বুয়েট গ্র্যাজুয়েটস ক্লাবের সভাপতি গোলাম মোহাম্মদ আলমগীর।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শাসনতন্ত্র মেনেই আগামী নির্বাচন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৯:১৭:১৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, নির্বাচনের জন্য সব দলের অংশগ্রহণ জরুরি। এ দেশে আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী। অন্য কোনো চিন্তা থাকলে তা ভুল। কারণ, আমরা সবসময় সংবিধান ও আইনের শাসনে বিশ্বাসী। বাংলাদেশকে কারও গণতন্ত্র শেখানোর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়ে দেন তিনি।

বুধবার (৫ এপ্রিল) রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের এক অনুষ্ঠান শেষে এসব মন্তব্য করেন তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, সংবিধান পরিবর্তন কোনোভাবেই সম্ভব না। তবে সরকারের চেষ্টা থাকবে সবার অংশগ্রহণে সুষ্ঠু নির্বাচন। ইতোমধ্যে সব দলকে নির্বাচনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আশা করছি তারা সরকারের ডাকে সাড়া দেবে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণে দেশটির আসন্ন সফর বিষয়ে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র একটি বিষয় প্রায়ই সামনে আনে– বাংলাদেশে একটি অবাধ, স্বচ্ছ ও সুন্দর নির্বাচন চায় তারা। বর্তমান সরকারও স্বচ্ছ, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন চায়। কারণ, আওয়ামী লীগ নির্বাচনের মাধ্যমেই সরকার গঠন করেছে। এখানে তো কোনো ঝগড়া নেই।যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের সবচেয়ে বড় বন্ধু। করোনা মহামারিতে একমাত্র দেশ হিসেবে বিনামূল্যে টিকা দিয়েছে। একক দেশ হিসেবে সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক অংশীদার। একইভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য সবচেয়ে বেশি মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছে যুক্তরাষ্ট্র।

অন্যান্য দেশ শুরুতে অনেক সহায়তা করলেও সম্প্রতি কমিয়ে দিয়েছে। আব্দুল মোমেন বলেন, গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে। ভুয়া ভোট ঠেকাতে বায়োমেট্রিক পরিচয়পত্র ও স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স করা হয়েছে। স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন হয়েছে। গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সরকার অবশ্যই তাদের সহায়তা করবে। তবে শুধু সরকার করলে হবে না; জনগণ, ভোটার, বিরোধী দল, সংবাদমাধ্যমসহ যত রাজনৈতিক দল রয়েছে, সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

এর আগে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-জাপান বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবন নিয়ে জাপানি চিত্রকলা গ্রাফিক্স নোবেল (জাপানিজ ‘মাঙ্গা’ ফর্মে) একটি কমিক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল মোমেন ও জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা, ম্যাক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান ও বুয়েট গ্র্যাজুয়েটস ক্লাবের সভাপতি গোলাম মোহাম্মদ আলমগীর।