০১:২৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

শাহরুখপুত্র আরিয়ান কোন ধর্মের অনুসারী?

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:৪৪:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৫৯ বার পড়া হয়েছে

দিনটি ছিল ১৯৯১ সালের ২৫ অক্টোবর। সে সময় একজন মুসলিম ছেলের সঙ্গে একজন হিন্দু নারীর বিয়ে তো দূরের কথা, প্রেমের সম্পর্ককেও পাপ হিসেবে গণ্য করা হতো। তবে পাহাড়সম ধর্মবিভেদ আলাদা করতে পারেনি বলিউড বাদশা শাহরুখ খান ও গৌরী খানকে। হিন্দু রীতিতেই গৌরীর গলায় মালা পরিয়েছিলেন কিং খান।

বিয়ের পর নিজের ধর্ম পরিবর্তন করেননি শাহরুখপত্নী। তার ভাষ্যমতে, আমি শাহরুখকে ভালোবেসে বিয়ে করেছি। তার ধর্মকে সম্মান করি। তার মানে এই নয় যে, আমি নিজের ধর্ম ত্যাগ করব। শাহরুখের ভাবনাও একইরকম। আর তাই ঈদ থেকে দীপাবলি, সমস্ত উৎসব পালন করেন শাহরুখ এবং তার পরিবার। শাহরুখ খানের সূত্র ধরে বেশ চর্চায় থাকেন ছেলে আরিয়ান খান। তিনি কোন ধর্মের উপাসক- এটি জানতেও নেটিজেনদের আগ্রহের কমতি নেই।

বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ছেলেমেয়ের ধর্ম নিয়েও প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে বলিউডের এই পাওয়ার কাপলকে। আরিয়ানের ধর্ম প্রসঙ্গে গৌরী বলেছিলেন, আরিয়ান পুরোপুরি বাবার মতো। শাহরুখের সঙ্গে তার ভাব বেশি। তাই বাবার ধর্মকেই আপন করে নিয়েছে আরিয়ান। একই প্রশ্নের জবাবে শাহরুখ জানিয়েছেন, তার বাড়িতে ধর্ম নিয়ে কোনো আলোচনা হয় না। তার সন্তানরা নিজেদের পরিচয় হিন্দু বা মুসলমান নয়, বরং ‘ভারতীয়’ বলেই উল্লেখ করেন। তাদের জন্য এই পরিচয়টাই আদর্শ মনে হয় আমার।

উদাহরণ টেনে বাদশা জানান, ওরা যখন প্রথম স্কুলে যায়, তখন তাদের ধর্মের নাম লেখার প্রয়োজন হয়। আমার মেয়ে ছোট ছিলো, সে এসে আমাকে জিজ্ঞেস করে- বাবা আমরা কোন ধর্মের? আমি তার ফরমে সহজ কথায় লিখে দিই, আমরা ‘ভারতীয়’।ধর্মের বিষয়ে নির্দিষ্টভাবে উল্লেখ না করলেও তিন ছেলেমেয়ের নামের শেষেই শাহরুখের ‘খান’ পদবি যুক্ত রয়েছে। বড় ছেলে আরিয়ান খান, মেয়ে সুহানা খান এবং ছোট ছেলে আবরাম খান। সন্তানদের নামের সঙ্গে ‘খান’ পদবি যুক্ত করা প্রসঙ্গে শাহরুখ জানিয়েছেন, তাদের নামকরণের সময় শুধু মাথায় রেখেছি, নামটি যেন মানুষের মনে গেঁথে যায়, সহজে উচ্চারণ করা যায়।

বলিউডে যেখানে একের পর এক ঘর ভাঙার খবর ভেসে বেড়ায়, সেখানে দীর্ঘদিন এক ছাদের নিচে বসবাস করে ভালোবাসা, পারস্পরিক সমঝোতা এবং বিশ্বস্ততার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন শাহরুখ-গৌরী। তিন সন্তানকে নিয়ে সুখে সংসার করছেন তারা। মাঝে ছেলে আরিয়ান খান মাদককাণ্ডে জড়িয়ে কঠিন সময় পার করলেও সেসব এখন অতীত। ইতোমধ্যে বলিউডেও পা রেখেছেন আরিয়ান।

তবে বাবার মতো ক্যামেরার সামনে নয়, পর্দার পেছনের কাজেই আগ্রহী তিনি। অভিনেতা নয়, পরিচালক হতে চান আরিয়ান। সম্প্রতি আরিয়ানের পরিচালনায় একটি বিজ্ঞাপনের মুখ হয়েছেন শাহরুখ। ফলে পরিচালনার শুরুতেই কিং খানকে অ্যাকশন বলার সুযোগ পেলেন আরিয়ান। শাহরুখ ভক্তদের প্রত্যাশা, খুব শিগগির আরিয়ানের পরিচালনায় সিনেমাও দেখতে পাবেন তারা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শাহরুখপুত্র আরিয়ান কোন ধর্মের অনুসারী?

আপডেট সময় ১০:৪৪:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩

দিনটি ছিল ১৯৯১ সালের ২৫ অক্টোবর। সে সময় একজন মুসলিম ছেলের সঙ্গে একজন হিন্দু নারীর বিয়ে তো দূরের কথা, প্রেমের সম্পর্ককেও পাপ হিসেবে গণ্য করা হতো। তবে পাহাড়সম ধর্মবিভেদ আলাদা করতে পারেনি বলিউড বাদশা শাহরুখ খান ও গৌরী খানকে। হিন্দু রীতিতেই গৌরীর গলায় মালা পরিয়েছিলেন কিং খান।

বিয়ের পর নিজের ধর্ম পরিবর্তন করেননি শাহরুখপত্নী। তার ভাষ্যমতে, আমি শাহরুখকে ভালোবেসে বিয়ে করেছি। তার ধর্মকে সম্মান করি। তার মানে এই নয় যে, আমি নিজের ধর্ম ত্যাগ করব। শাহরুখের ভাবনাও একইরকম। আর তাই ঈদ থেকে দীপাবলি, সমস্ত উৎসব পালন করেন শাহরুখ এবং তার পরিবার। শাহরুখ খানের সূত্র ধরে বেশ চর্চায় থাকেন ছেলে আরিয়ান খান। তিনি কোন ধর্মের উপাসক- এটি জানতেও নেটিজেনদের আগ্রহের কমতি নেই।

বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ছেলেমেয়ের ধর্ম নিয়েও প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে বলিউডের এই পাওয়ার কাপলকে। আরিয়ানের ধর্ম প্রসঙ্গে গৌরী বলেছিলেন, আরিয়ান পুরোপুরি বাবার মতো। শাহরুখের সঙ্গে তার ভাব বেশি। তাই বাবার ধর্মকেই আপন করে নিয়েছে আরিয়ান। একই প্রশ্নের জবাবে শাহরুখ জানিয়েছেন, তার বাড়িতে ধর্ম নিয়ে কোনো আলোচনা হয় না। তার সন্তানরা নিজেদের পরিচয় হিন্দু বা মুসলমান নয়, বরং ‘ভারতীয়’ বলেই উল্লেখ করেন। তাদের জন্য এই পরিচয়টাই আদর্শ মনে হয় আমার।

উদাহরণ টেনে বাদশা জানান, ওরা যখন প্রথম স্কুলে যায়, তখন তাদের ধর্মের নাম লেখার প্রয়োজন হয়। আমার মেয়ে ছোট ছিলো, সে এসে আমাকে জিজ্ঞেস করে- বাবা আমরা কোন ধর্মের? আমি তার ফরমে সহজ কথায় লিখে দিই, আমরা ‘ভারতীয়’।ধর্মের বিষয়ে নির্দিষ্টভাবে উল্লেখ না করলেও তিন ছেলেমেয়ের নামের শেষেই শাহরুখের ‘খান’ পদবি যুক্ত রয়েছে। বড় ছেলে আরিয়ান খান, মেয়ে সুহানা খান এবং ছোট ছেলে আবরাম খান। সন্তানদের নামের সঙ্গে ‘খান’ পদবি যুক্ত করা প্রসঙ্গে শাহরুখ জানিয়েছেন, তাদের নামকরণের সময় শুধু মাথায় রেখেছি, নামটি যেন মানুষের মনে গেঁথে যায়, সহজে উচ্চারণ করা যায়।

বলিউডে যেখানে একের পর এক ঘর ভাঙার খবর ভেসে বেড়ায়, সেখানে দীর্ঘদিন এক ছাদের নিচে বসবাস করে ভালোবাসা, পারস্পরিক সমঝোতা এবং বিশ্বস্ততার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন শাহরুখ-গৌরী। তিন সন্তানকে নিয়ে সুখে সংসার করছেন তারা। মাঝে ছেলে আরিয়ান খান মাদককাণ্ডে জড়িয়ে কঠিন সময় পার করলেও সেসব এখন অতীত। ইতোমধ্যে বলিউডেও পা রেখেছেন আরিয়ান।

তবে বাবার মতো ক্যামেরার সামনে নয়, পর্দার পেছনের কাজেই আগ্রহী তিনি। অভিনেতা নয়, পরিচালক হতে চান আরিয়ান। সম্প্রতি আরিয়ানের পরিচালনায় একটি বিজ্ঞাপনের মুখ হয়েছেন শাহরুখ। ফলে পরিচালনার শুরুতেই কিং খানকে অ্যাকশন বলার সুযোগ পেলেন আরিয়ান। শাহরুখ ভক্তদের প্রত্যাশা, খুব শিগগির আরিয়ানের পরিচালনায় সিনেমাও দেখতে পাবেন তারা।