০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শিশুকে ধর্ষণ, রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় ০৭:১১:৩৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অক্টোবর ২০২৩
  • / ২৭১ বার পড়া হয়েছে

ভোলার লালমোহনে ১০ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার শিশুকে রক্তাক্ত অবস্থায় লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় লালমোহন থানায় মামলা করে শিশুটির ফুফু। ঘটনার পর পরই ধর্ষণকারী হোসেনকে আটক করা হয়।

ভুক্তভোগীর স্বজন জানান, তার ভাতিজি জন্মের পর পরই ওর বাবা নিখোঁজ হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। তার মায়ের পরে অন্য জায়গায় বিয়ে হয়। শিশুটি ছোটবেলা থেকেই তার চাচার কাছে থাকে। চাচাকেই বাবা বলে ডাকে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ির পাশে খালপাড়ে যায় সে। এ সময় নসুর ছেলে হোসেন তাকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে শিশুটি তার ফুফুকে ঘটনা জানালে হোসেনকে আটক করে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ হোসেনকে গ্রেফতার করে।

লালমোহন থানার ওসি এসএম মাহবুব-উল আলম জানান, ধর্ষণের ঘটনায় তার ফুফু বাদী হয়ে মামলা করেছে। যেহেতু আসামি হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৫ দিনের মধ্যেই এ মামলার চার্জশিট দেওয়া হবে। শিশুর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভোলায় পাঠানো হবে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শিশুকে ধর্ষণ, রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

আপডেট সময় ০৭:১১:৩৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অক্টোবর ২০২৩

ভোলার লালমোহনে ১০ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার শিশুকে রক্তাক্ত অবস্থায় লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় লালমোহন থানায় মামলা করে শিশুটির ফুফু। ঘটনার পর পরই ধর্ষণকারী হোসেনকে আটক করা হয়।

ভুক্তভোগীর স্বজন জানান, তার ভাতিজি জন্মের পর পরই ওর বাবা নিখোঁজ হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। তার মায়ের পরে অন্য জায়গায় বিয়ে হয়। শিশুটি ছোটবেলা থেকেই তার চাচার কাছে থাকে। চাচাকেই বাবা বলে ডাকে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ির পাশে খালপাড়ে যায় সে। এ সময় নসুর ছেলে হোসেন তাকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে শিশুটি তার ফুফুকে ঘটনা জানালে হোসেনকে আটক করে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ হোসেনকে গ্রেফতার করে।

লালমোহন থানার ওসি এসএম মাহবুব-উল আলম জানান, ধর্ষণের ঘটনায় তার ফুফু বাদী হয়ে মামলা করেছে। যেহেতু আসামি হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১৫ দিনের মধ্যেই এ মামলার চার্জশিট দেওয়া হবে। শিশুর মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভোলায় পাঠানো হবে।