০৫:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শ্রমিকের অধিকারের মধ্য দিয়েই উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চাই : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৪২:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • / ৬২ বার পড়া হয়েছে

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আমাদের সকলকে ঐক‍্য ধরে রাখতে হবে। বিভিন্ন সমস‍্যা আলোচনার মধ‍্য দিয়ে সমাধান করতে হবে। আলোচনার কোন বিকল্প নাই। কারণ বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ। আর লড়াই করব না। এখন এদেশকে আমরা এগিয়ে নিব। বঙ্গবন্ধু স্বাধীন দেশ দিয়েছেন। এদেশ আর কেউ দখল করতে পারবে না। এদেশ সোনার বাংলা হবে।

২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে একটি মানসম্পন্ন দেশের কাতারে নিয়ে যেতে পারব-তখন মহান মে দিবসের যে তাৎপর্য সেটি বাস্তবায়ন হবে। শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। মহান মে দিবসের অঙ্গিকার বাস্তবায়ন হবে। বর্তমান সরকার সমন্বিত উন্নয়নের লক্ষ‍্যে কাজ করছে। শ্রমিকদের বাদ দিয়ে বাংলাদেশের কোন উন্নয়ন হতে পারে না। শ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবেই। আমরা শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়েই উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চাই। প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা শ্রমিকদের উন্নয়নে যে নীতিমাল তৈরি করেছেন তা অতীতের কোন সরকার করেন নাই।

প্রতিমন্ত্রী সোমবার (১ মে) দিনাজপুরের বোচাগঞ্জস্থ জয়বাংলা ভাস্কর্যের পাদদেশে সম্মিলিত শ্রমিক ঐক্য পরিষদ আয়োজিত মহান মে দিবসের শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেন এর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল, সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. আসলাম. উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আফছার আলী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী তুহিন, শ্রমিক নেতা মানিকুল ইসলাম, মুক্তা, মো. আলমসহ অনেকে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মে দিবসের সংগ্রাম এখনো শেষ হয় নাই। এই সংগ্রাম নীরব। এক সময়ে একজন শ্রমিক এক বেলা ভাতের জন্য সারাদিন পরিশ্রম করেছে। কিন্তু সেই চিত্র এখন আর নেই। দিন বদলে গেছে, বাংলাদেশে বদলে গেছে। এ দিনবদলের অন‍্যতম কারিগর হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মানুষের জীবনযাত্রার মান বাড়ার পাশাপাশি শ্রমিকদেরও মজুরীও বেড়েছে। বাংলাদেশকে বলা হত দরিদ্র পীড়িত দেশ। এই দেশের দারিদ্রতাকে বিক্রি করে নোবেল পুরস্কার নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের দারিদ্রতাকে দূর করতে পারেনি।

বাংলাদেশের দারিদ্রতা দূর করতে হলে বাংলাদেশর মানুষকে ভালবাসতে হবে। দেশের দারিদ্রতার ছবি নিয়ে ইউরোপ আমেরিকায় আমি মহান হব, এই মহানুভবতা আমরা চাই না। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমি প্রধানমন্ত্রীত্ব চাই না, অধিকার চাই। আজকেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন আমরা দেশের মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন চাই। এই জীবনমান উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় একজন প্রবাসীকে তার মায়ের চিঠির জন্য আর অপেক্ষা করতে হয় না, এখন মোবাইলে সকাল-সন্ধ্যা মায়ের খোঁজ খবর নেওয়া যায়।

তিনি দিনাজপুরের একমাত্র ভারি শিল্প সেতাবগঞ্জ চিনিকল দ্রুত সময়ে নতুন ব্যবস্থাপনায় চালু করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, এই চিনিকল নিয়ে অনেক রাজনীতি হয়েছে, আমরা সেই রাজনীতি থেকে বের হয়ে এসেছি। নতুনভাবে এই চিনিকলটি দ্রুত সময়ে চালুর ব্যবস্থা করা হবে। পরে প্রতিমন্ত্রী বোচাগঞ্জ উপজেলা শ্রমিক ট্রেড ঐক‍্য পরিষদ আয়োজিত র‍্যালিতে অংশ নেন।

দুপুরে প্রতিমন্ত্রী দিনাজপুরের বিরল বাজারে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস ও মহান মে দিবস উপলক্ষ‍্যে বিরল উপজেলার সকল সম্মিলিত শ্রমিক সংগঠন আয়োজিত শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। তিনি বিরলে উপজেলা সম্মিলিত শ্রমিক সংগঠন আয়োজিত র‍্যালিতে অংশ নেন। প্রতিমন্ত্রী বিকেলে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জে মহেশপুর আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সাঁওতাল বিদ্রোহের স্মৃতি ভাস্কর্য ‘সিধু-কানু’ উদ্বোধন করেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শ্রমিকের অধিকারের মধ্য দিয়েই উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চাই : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৮:৪২:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আমাদের সকলকে ঐক‍্য ধরে রাখতে হবে। বিভিন্ন সমস‍্যা আলোচনার মধ‍্য দিয়ে সমাধান করতে হবে। আলোচনার কোন বিকল্প নাই। কারণ বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ। আর লড়াই করব না। এখন এদেশকে আমরা এগিয়ে নিব। বঙ্গবন্ধু স্বাধীন দেশ দিয়েছেন। এদেশ আর কেউ দখল করতে পারবে না। এদেশ সোনার বাংলা হবে।

২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে একটি মানসম্পন্ন দেশের কাতারে নিয়ে যেতে পারব-তখন মহান মে দিবসের যে তাৎপর্য সেটি বাস্তবায়ন হবে। শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। মহান মে দিবসের অঙ্গিকার বাস্তবায়ন হবে। বর্তমান সরকার সমন্বিত উন্নয়নের লক্ষ‍্যে কাজ করছে। শ্রমিকদের বাদ দিয়ে বাংলাদেশের কোন উন্নয়ন হতে পারে না। শ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবেই। আমরা শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়েই উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চাই। প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা শ্রমিকদের উন্নয়নে যে নীতিমাল তৈরি করেছেন তা অতীতের কোন সরকার করেন নাই।

প্রতিমন্ত্রী সোমবার (১ মে) দিনাজপুরের বোচাগঞ্জস্থ জয়বাংলা ভাস্কর্যের পাদদেশে সম্মিলিত শ্রমিক ঐক্য পরিষদ আয়োজিত মহান মে দিবসের শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সৈয়দ হোসেন এর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল, সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. আসলাম. উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আফছার আলী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী তুহিন, শ্রমিক নেতা মানিকুল ইসলাম, মুক্তা, মো. আলমসহ অনেকে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মে দিবসের সংগ্রাম এখনো শেষ হয় নাই। এই সংগ্রাম নীরব। এক সময়ে একজন শ্রমিক এক বেলা ভাতের জন্য সারাদিন পরিশ্রম করেছে। কিন্তু সেই চিত্র এখন আর নেই। দিন বদলে গেছে, বাংলাদেশে বদলে গেছে। এ দিনবদলের অন‍্যতম কারিগর হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মানুষের জীবনযাত্রার মান বাড়ার পাশাপাশি শ্রমিকদেরও মজুরীও বেড়েছে। বাংলাদেশকে বলা হত দরিদ্র পীড়িত দেশ। এই দেশের দারিদ্রতাকে বিক্রি করে নোবেল পুরস্কার নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের দারিদ্রতাকে দূর করতে পারেনি।

বাংলাদেশের দারিদ্রতা দূর করতে হলে বাংলাদেশর মানুষকে ভালবাসতে হবে। দেশের দারিদ্রতার ছবি নিয়ে ইউরোপ আমেরিকায় আমি মহান হব, এই মহানুভবতা আমরা চাই না। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমি প্রধানমন্ত্রীত্ব চাই না, অধিকার চাই। আজকেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন আমরা দেশের মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন চাই। এই জীবনমান উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় একজন প্রবাসীকে তার মায়ের চিঠির জন্য আর অপেক্ষা করতে হয় না, এখন মোবাইলে সকাল-সন্ধ্যা মায়ের খোঁজ খবর নেওয়া যায়।

তিনি দিনাজপুরের একমাত্র ভারি শিল্প সেতাবগঞ্জ চিনিকল দ্রুত সময়ে নতুন ব্যবস্থাপনায় চালু করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, এই চিনিকল নিয়ে অনেক রাজনীতি হয়েছে, আমরা সেই রাজনীতি থেকে বের হয়ে এসেছি। নতুনভাবে এই চিনিকলটি দ্রুত সময়ে চালুর ব্যবস্থা করা হবে। পরে প্রতিমন্ত্রী বোচাগঞ্জ উপজেলা শ্রমিক ট্রেড ঐক‍্য পরিষদ আয়োজিত র‍্যালিতে অংশ নেন।

দুপুরে প্রতিমন্ত্রী দিনাজপুরের বিরল বাজারে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস ও মহান মে দিবস উপলক্ষ‍্যে বিরল উপজেলার সকল সম্মিলিত শ্রমিক সংগঠন আয়োজিত শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। তিনি বিরলে উপজেলা সম্মিলিত শ্রমিক সংগঠন আয়োজিত র‍্যালিতে অংশ নেন। প্রতিমন্ত্রী বিকেলে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জে মহেশপুর আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সাঁওতাল বিদ্রোহের স্মৃতি ভাস্কর্য ‘সিধু-কানু’ উদ্বোধন করেন।