০৯:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভিত রচনা করতে পারে : স্পিকার

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৫৫:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • / ৪৭ বার পড়া হয়েছে

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভীত রচনা করতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সোমবার (১ মে) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ‘মহান মে দিবস ২০২৩’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘শ্রমিক মালিক ঐক্য গড়ি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি’।স্পিকার বলেন, শ্রমিকদের বঞ্চিত করে উন্নয়ন সম্ভব নয়। শ্রমিকরা উন্নয়নের প্রাণ। পোশাক শিল্পের পাশাপাশি ঔষধ শিল্প, নির্মাণ শিল্প, চা উৎপাদন ইত্যাদি ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার মাধ্যমে শ্রমিকরা জাতীয় অর্থনীতিকে শক্তিশালী করছে।

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভীত রচনা করতে পারে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন শ্রমজীবী মানুষের অকৃত্রিম বন্ধু। ১৯৭২ সালে তিনি শ্রমনীতি প্রণয়ন করেন। ১৯৭২ সালে জাতির পিতার নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সদস্যপদ লাভ করে বাংলাদেশ।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠার কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিশ্বব্যাপী ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছেন। এই অদম্য অগ্রযাত্রায় শ্রমিকদের অবদান অনস্বীকার্য। বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে টিকে থাকার জন্য সরকারের পাশাপাশি শ্রমিক-মালিকদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় উৎপাদন বৃদ্ধি নিশ্চিতকরণে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান স্পিকার।

এসময় স্পিকার বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের মাঝে আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিল, মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়া, আদিবা আনজুম মিতা, গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার ও বাসন্তী চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভিত রচনা করতে পারে : স্পিকার

আপডেট সময় ০৮:৫৫:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভীত রচনা করতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সোমবার (১ মে) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ‘মহান মে দিবস ২০২৩’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘শ্রমিক মালিক ঐক্য গড়ি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি’।স্পিকার বলেন, শ্রমিকদের বঞ্চিত করে উন্নয়ন সম্ভব নয়। শ্রমিকরা উন্নয়নের প্রাণ। পোশাক শিল্পের পাশাপাশি ঔষধ শিল্প, নির্মাণ শিল্প, চা উৎপাদন ইত্যাদি ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার মাধ্যমে শ্রমিকরা জাতীয় অর্থনীতিকে শক্তিশালী করছে।

শ্রমিক-মালিক সম্প্রীতি স্মার্ট বাংলাদেশের ভীত রচনা করতে পারে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন শ্রমজীবী মানুষের অকৃত্রিম বন্ধু। ১৯৭২ সালে তিনি শ্রমনীতি প্রণয়ন করেন। ১৯৭২ সালে জাতির পিতার নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সদস্যপদ লাভ করে বাংলাদেশ।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠার কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিশ্বব্যাপী ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছেন। এই অদম্য অগ্রযাত্রায় শ্রমিকদের অবদান অনস্বীকার্য। বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে টিকে থাকার জন্য সরকারের পাশাপাশি শ্রমিক-মালিকদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় উৎপাদন বৃদ্ধি নিশ্চিতকরণে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান স্পিকার।

এসময় স্পিকার বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শ্রমিকদের মাঝে আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিল, মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়া, আদিবা আনজুম মিতা, গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার ও বাসন্তী চাকমা উপস্থিত ছিলেন।