০৫:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সংসদ সদস্য পদ হারালেন রাহুল গান্ধী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৮:৪৫:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩
  • / ৬২ বার পড়া হয়েছে

মোদি পদবি নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের দায়ে দুই বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত রাহুল গান্ধী এবার সংসদ সদস্য পদ হারালেন। শুক্রবার (২৪ মার্চ) দেশটির সংবিধান অনুযায়ী লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা তার পার্লামেন্ট সদস্য পদ বাতিল করেন। লোকসভা সচিবালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কর্নাটকে প্রচারে গিয়ে রাহুল প্রশ্ন তুলেছিলেন, সব চোরদের পদবি ‘মোদি’ হয় কেন? আইপিএল কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত ললিত মোদি, ব্যাংক-ঋণ মামলায় ‘পলাতক’ নীরব মোদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তুলনা টেনেছিলেন তিনি।

ওই ঘটনায় রাহুলের বিরুদ্ধে ‘পদবি অবমাননার’ অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৯ এবং ৫০০ ধারায় গুজরাটে মানহানির মামলা করেছিলেন বিজেপি নেতা পূর্ণেশ মোদি। ওই মামলায় বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) গুজরাটে সুরাট জেলা আদালত রাহুলকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন।

সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় ভারতীয় সংবিধানের ১০২(১)-ই অনুচ্ছেদ ও জনপ্রতিনিধিত্ব আইন (১৯৫১)-র ৮ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাহুলের সংসদ সদস্য পদ বাতিল করা হয়। আইন অনুযায়ী, এখন তিনি অন্তত আগামী ৬ বছর কোনো নির্বাচনে লড়তে পারবেন না।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সংসদ সদস্য পদ হারালেন রাহুল গান্ধী

আপডেট সময় ০৮:৪৫:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩

মোদি পদবি নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের দায়ে দুই বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত রাহুল গান্ধী এবার সংসদ সদস্য পদ হারালেন। শুক্রবার (২৪ মার্চ) দেশটির সংবিধান অনুযায়ী লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা তার পার্লামেন্ট সদস্য পদ বাতিল করেন। লোকসভা সচিবালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কর্নাটকে প্রচারে গিয়ে রাহুল প্রশ্ন তুলেছিলেন, সব চোরদের পদবি ‘মোদি’ হয় কেন? আইপিএল কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত ললিত মোদি, ব্যাংক-ঋণ মামলায় ‘পলাতক’ নীরব মোদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তুলনা টেনেছিলেন তিনি।

ওই ঘটনায় রাহুলের বিরুদ্ধে ‘পদবি অবমাননার’ অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৯ এবং ৫০০ ধারায় গুজরাটে মানহানির মামলা করেছিলেন বিজেপি নেতা পূর্ণেশ মোদি। ওই মামলায় বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) গুজরাটে সুরাট জেলা আদালত রাহুলকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন।

সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় ভারতীয় সংবিধানের ১০২(১)-ই অনুচ্ছেদ ও জনপ্রতিনিধিত্ব আইন (১৯৫১)-র ৮ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাহুলের সংসদ সদস্য পদ বাতিল করা হয়। আইন অনুযায়ী, এখন তিনি অন্তত আগামী ৬ বছর কোনো নির্বাচনে লড়তে পারবেন না।