০৮:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারদের বৈকালিক সেবা চালু

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:০৫:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০২৩
  • / ৬২ বার পড়া হয়েছে

দেশের সরকারি হাসপাতালে ফি দিয়ে এখন থেকে রোগীরা ডাক্তারদের থেকে বৈকালিক সেবা পাবেন। প্রাথমিকভাবে জেলা পর্যায়ে ১০টি এবং উপজেলা পর্যায়ে ২০টি হাসপাতালে এ সেবা চালু করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) বিকেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে, ‌‘সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের বৈকালিক চেম্বার’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।এসময় তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা ১২টি জেলায় এবং ৩৯টি উপজেলায় পাইলট প্রকল্পের আওতায় ইনস্টিটিউশনাল প্র্যাকটিস শুরু করতে যাচ্ছি।

এ সেবার মাধ্যমে দেশের জনগণ বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের থেকে চিকিৎসাসেবা পাবেন। এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, একজন জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকের (অধ্যাপক) ৫০০ টাকা ফি (ভিজিট), তার মধ্য থেকে তিনি পাবেন ৪০০ টাকা। সিনিয়র কনসালটেন্ট পাবেন ৩০০ টাকা। সহকারী অধ্যাপক পাবেন ২০০ টাকা। তাকে যারা সহযোগিতা করবেন, তারা পাবেন ৫০ টাকা করে।

উদ্বোধনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব ড. মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার খুরশিদ আলম, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. টিটো মিয়া প্রমুখ।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারদের বৈকালিক সেবা চালু

আপডেট সময় ১১:০৫:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০২৩

দেশের সরকারি হাসপাতালে ফি দিয়ে এখন থেকে রোগীরা ডাক্তারদের থেকে বৈকালিক সেবা পাবেন। প্রাথমিকভাবে জেলা পর্যায়ে ১০টি এবং উপজেলা পর্যায়ে ২০টি হাসপাতালে এ সেবা চালু করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) বিকেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে, ‌‘সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের বৈকালিক চেম্বার’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।এসময় তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা ১২টি জেলায় এবং ৩৯টি উপজেলায় পাইলট প্রকল্পের আওতায় ইনস্টিটিউশনাল প্র্যাকটিস শুরু করতে যাচ্ছি।

এ সেবার মাধ্যমে দেশের জনগণ বিকেল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের থেকে চিকিৎসাসেবা পাবেন। এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, একজন জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকের (অধ্যাপক) ৫০০ টাকা ফি (ভিজিট), তার মধ্য থেকে তিনি পাবেন ৪০০ টাকা। সিনিয়র কনসালটেন্ট পাবেন ৩০০ টাকা। সহকারী অধ্যাপক পাবেন ২০০ টাকা। তাকে যারা সহযোগিতা করবেন, তারা পাবেন ৫০ টাকা করে।

উদ্বোধনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব ড. মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার খুরশিদ আলম, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. টিটো মিয়া প্রমুখ।