০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

সাকিব-এবাদতের জোড়া আঘাতে চাপে ইংল্যান্ড

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৬:৪৩:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩
  • / ৭৫ বার পড়া হয়েছে

রান তাড়া করতে নেমে প্রথম পাওয়ার প্লেতে উড়ন্ত সূচনা পেয়েছিল ইংল্যান্ড। জেসন রয় কিছুটা রয়েসয়ে ব্যাটিং করলেও ফিল সল্টের তাণ্ডবে বিনা উইকেটে দলের রান পঞ্চাশও ছাড়িয়ে গিয়েছিল। ফলে ঘরের মাটিতে সহজেই হোয়াইটওয়াশ হয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়েছিল বাংলাদেশ। তবে টানা তিন ওভারে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরিয়েছিল সাকিব আল হাসান ও পেসার এবাদত হোসেন।

কিন্তু চতুর্থ উইকেটে আবারও বাংলাদেশের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠছিল জেমস ভিন্স-স্যাম কারান জুটি। টাইগার বোলারদের প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে দলের রান একশোও ছাড়িয়ে গিয়েছিল এই জুটি। অবশেষে কারানের উইকেট তুলে নিলেন অফ স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। এরপর আবারও সাকিব ও এবাদত জোড়া আঘাতে হেনেছে ইংল্যান্ড শিবিরে। ফলে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের আশা করছে তামিম ইকবালের দল।

সোমবার (৬ মার্চ) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডারে ব্যর্থতার পরও নাজমুল হোসেন শান্তর ৫৩, মুশফিকুর রহিম ৭০ ও সাকিব আল হাসানের ৭৫ রানে ভর করে ২৪৬ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ।বোলিংয়ে ইংল্যান্ডের পক্ষে পেসার জোফরা আর্চার একাই ৩ উইকেট শিকার করেন। আদিল রশিদ ও স্যাম কারান নেন ২ টি করে উইকেট। এ ছাড়া ক্রিস ওকস আর অভিষিক্ত রেহান আহমেদ লাভ করেন ১টি করে উইকেট। জবাবে রান তাড়া করতে নেমে ইংলিশদের ওপেনিং জুটিটাই বড় একটা ঝড় বইয়ে দেয় বাংলাদেশি বোলারদের ওপর। তবে এরপর দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরেছে টাইগাররা।

নবম ওভারে সাকিব আল হাসান ভাঙেন ৫৪ বলে ৫৪ রানের মারকুটে ওপেনিং জুটি। ২৫ বলে ৩৫ করে কভারে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ দেন সল্ট। এরপরের ওভারে এবাদত হোসেন হানেন আঘাত। মিডঅনে মাহমুদউল্লাহর হাতেই ক্যাচ দেন মালান (০)। এরপর সাকিবের দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড সেট ব্যাটার জেসন রয় (৩৩ বলে ১৯)। ৫৪ থেকে ৫৫, এক রানের মধ্যে ইংল্যান্ডের তিন উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ। কিন্তু প্রমোশন পেয়ে ওপরে উঠা স্যাম কারান আর জেমস ভিন্স ফের প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। চতুর্থ উইকেটে তাদের ৪৯ রানের জুটিটি অবশেষে ভাঙলেন মেহেদি হাসান মিরাজ।

মিরাজকে তুলে মারতে গিয়ে লংঅফ বাউন্ডারিতে লিটন দাসের সহজ ক্যাচ হয়েছেন কারান (২৩)। এরপর সেট ব্যাটার জেমস ভিন্সকে (৩৮) নিজের তৃতীয় শিকার বানান সাকিব। ক্রিজে থিতু হওয়ার আগেই এবাদত হোসেন বোল্ড করে দেন মঈন আলিকে (২)। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। ইংলিশ অধিনায়ক বাটলার ১৫ ও ক্রিস ওকস ৭ রানে অপরাজিত ব্যাট করছেন। জয়ের জন্য এখনও ১০৬ রান করতে হবে ইংল্যান্ডকে, হাতে আছে ১২০ বল আর ৪ উইকেট।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সাকিব-এবাদতের জোড়া আঘাতে চাপে ইংল্যান্ড

আপডেট সময় ০৬:৪৩:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩

রান তাড়া করতে নেমে প্রথম পাওয়ার প্লেতে উড়ন্ত সূচনা পেয়েছিল ইংল্যান্ড। জেসন রয় কিছুটা রয়েসয়ে ব্যাটিং করলেও ফিল সল্টের তাণ্ডবে বিনা উইকেটে দলের রান পঞ্চাশও ছাড়িয়ে গিয়েছিল। ফলে ঘরের মাটিতে সহজেই হোয়াইটওয়াশ হয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়েছিল বাংলাদেশ। তবে টানা তিন ওভারে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরিয়েছিল সাকিব আল হাসান ও পেসার এবাদত হোসেন।

কিন্তু চতুর্থ উইকেটে আবারও বাংলাদেশের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠছিল জেমস ভিন্স-স্যাম কারান জুটি। টাইগার বোলারদের প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে দলের রান একশোও ছাড়িয়ে গিয়েছিল এই জুটি। অবশেষে কারানের উইকেট তুলে নিলেন অফ স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। এরপর আবারও সাকিব ও এবাদত জোড়া আঘাতে হেনেছে ইংল্যান্ড শিবিরে। ফলে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের আশা করছে তামিম ইকবালের দল।

সোমবার (৬ মার্চ) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডারে ব্যর্থতার পরও নাজমুল হোসেন শান্তর ৫৩, মুশফিকুর রহিম ৭০ ও সাকিব আল হাসানের ৭৫ রানে ভর করে ২৪৬ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ।বোলিংয়ে ইংল্যান্ডের পক্ষে পেসার জোফরা আর্চার একাই ৩ উইকেট শিকার করেন। আদিল রশিদ ও স্যাম কারান নেন ২ টি করে উইকেট। এ ছাড়া ক্রিস ওকস আর অভিষিক্ত রেহান আহমেদ লাভ করেন ১টি করে উইকেট। জবাবে রান তাড়া করতে নেমে ইংলিশদের ওপেনিং জুটিটাই বড় একটা ঝড় বইয়ে দেয় বাংলাদেশি বোলারদের ওপর। তবে এরপর দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরেছে টাইগাররা।

নবম ওভারে সাকিব আল হাসান ভাঙেন ৫৪ বলে ৫৪ রানের মারকুটে ওপেনিং জুটি। ২৫ বলে ৩৫ করে কভারে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ দেন সল্ট। এরপরের ওভারে এবাদত হোসেন হানেন আঘাত। মিডঅনে মাহমুদউল্লাহর হাতেই ক্যাচ দেন মালান (০)। এরপর সাকিবের দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড সেট ব্যাটার জেসন রয় (৩৩ বলে ১৯)। ৫৪ থেকে ৫৫, এক রানের মধ্যে ইংল্যান্ডের তিন উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ। কিন্তু প্রমোশন পেয়ে ওপরে উঠা স্যাম কারান আর জেমস ভিন্স ফের প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। চতুর্থ উইকেটে তাদের ৪৯ রানের জুটিটি অবশেষে ভাঙলেন মেহেদি হাসান মিরাজ।

মিরাজকে তুলে মারতে গিয়ে লংঅফ বাউন্ডারিতে লিটন দাসের সহজ ক্যাচ হয়েছেন কারান (২৩)। এরপর সেট ব্যাটার জেমস ভিন্সকে (৩৮) নিজের তৃতীয় শিকার বানান সাকিব। ক্রিজে থিতু হওয়ার আগেই এবাদত হোসেন বোল্ড করে দেন মঈন আলিকে (২)। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান তুলেছে ইংল্যান্ড। ইংলিশ অধিনায়ক বাটলার ১৫ ও ক্রিস ওকস ৭ রানে অপরাজিত ব্যাট করছেন। জয়ের জন্য এখনও ১০৬ রান করতে হবে ইংল্যান্ডকে, হাতে আছে ১২০ বল আর ৪ উইকেট।