০৬:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

সাফের সেরা গোলরক্ষক বাংলাদেশের জিকো

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় ০৭:২৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩
  • / ২১৪ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ সাফের ফাইনালে উঠতে না পারলেও শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার পেলেন আনিসুর রহমান জিকো। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে এবারের আসরের সেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের ফাইনাল শেষে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে সেরা গোলরক্ষকের এই স্বীকৃতি পান জিকো। সেমি শেষে বাংলাদেশ দল দেশে ফিরে আসায় মঞ্চে সশরীরে উপস্থিত থাকতে পারেননি বাংলাদেশ দলের গোলরক্ষক। তাই জিকোর পক্ষ থেকে স্মারক পুরস্কার গ্রহণ করেন সাফের কম্পিটিশন ম্যানেজার আসিফ। তিনি বাংলাদেশে এসে জিকোকে সেটি বুঝিয়ে দেবেন।

সাফে বাংলাদেশের খেলা চারটি ম্যাচেই দুর্দান্ত খেলেছেন জিকো। বেশ কয়েকটি অসাধারণ সেইভ করে দলকে বাঁচিয়েছেন গোল হজম করা থেকে। হজম করেছেন ৫ গোল। তার কল্যাণেই মূলত রক্ষণভাগ নির্ভার হয়ে খেলতে পেরেছে বাংলাদেশ।

সেরা গোলরক্ষক হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতেই নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে আনিসুর রহমান লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। সাফ টুর্নামেন্টের সেরা গোলরক্ষক।’

গত শনিবার অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো সেমিফাইনালে কুয়েতের কাছে হার মানে বাংলাদেশ। ১-০ গোলে পরাস্ত হয়ে হাভিয়ের কাবরেরার শিষ্যদের ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়। সোমবার দেশে ফিরে আসে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

ফাইনালে উঠতে না পারলেও সাফের সেমিফাইনালে জায়গা করে নেওয়ার যে লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশ দল ভারতে গিয়েছিল সেটা পূরণ হয়। ফলে শেষ হয় তাদের ১৪ বছরের দীর্ঘ অপেক্ষা। এর আগে ২০০৯ সালে শেষবার দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত প্রতিযোগিতাটির সেমিতে খেলেছিল তারা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সাফের সেরা গোলরক্ষক বাংলাদেশের জিকো

আপডেট সময় ০৭:২৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই ২০২৩

বাংলাদেশ সাফের ফাইনালে উঠতে না পারলেও শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার পেলেন আনিসুর রহমান জিকো। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে এবারের আসরের সেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের ফাইনাল শেষে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে সেরা গোলরক্ষকের এই স্বীকৃতি পান জিকো। সেমি শেষে বাংলাদেশ দল দেশে ফিরে আসায় মঞ্চে সশরীরে উপস্থিত থাকতে পারেননি বাংলাদেশ দলের গোলরক্ষক। তাই জিকোর পক্ষ থেকে স্মারক পুরস্কার গ্রহণ করেন সাফের কম্পিটিশন ম্যানেজার আসিফ। তিনি বাংলাদেশে এসে জিকোকে সেটি বুঝিয়ে দেবেন।

সাফে বাংলাদেশের খেলা চারটি ম্যাচেই দুর্দান্ত খেলেছেন জিকো। বেশ কয়েকটি অসাধারণ সেইভ করে দলকে বাঁচিয়েছেন গোল হজম করা থেকে। হজম করেছেন ৫ গোল। তার কল্যাণেই মূলত রক্ষণভাগ নির্ভার হয়ে খেলতে পেরেছে বাংলাদেশ।

সেরা গোলরক্ষক হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতেই নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে আনিসুর রহমান লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। সাফ টুর্নামেন্টের সেরা গোলরক্ষক।’

গত শনিবার অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো সেমিফাইনালে কুয়েতের কাছে হার মানে বাংলাদেশ। ১-০ গোলে পরাস্ত হয়ে হাভিয়ের কাবরেরার শিষ্যদের ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়। সোমবার দেশে ফিরে আসে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

ফাইনালে উঠতে না পারলেও সাফের সেমিফাইনালে জায়গা করে নেওয়ার যে লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশ দল ভারতে গিয়েছিল সেটা পূরণ হয়। ফলে শেষ হয় তাদের ১৪ বছরের দীর্ঘ অপেক্ষা। এর আগে ২০০৯ সালে শেষবার দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত প্রতিযোগিতাটির সেমিতে খেলেছিল তারা।