১০:৪০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

সায়েন্সল্যাবে বিস্ফোরণ : ঘটনাস্থলে উৎসুক জনতার ভিড়, তীব্র যানজট

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৪:০৭:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মার্চ ২০২৩
  • / ৫২ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীর সায়েন্সল্যাব এলাকার বাণিজ্যিক ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে ওই এলাকার সড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ভবনটির সামনে ধসে পড়া ইট ছাড়াও দেয়ালের কাঁচ ভেঙে সড়ক ও ফুটপাতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে।

এদিকে মিরপুর রোডের দুই পাশে উৎসুক জনতা ভিড় করেছেন। অনেকেই তাদের পরিচিত কেউ আটকে আছে কি না, খুঁজতে এসেছে। রোববার (৫ মার্চ) সকাল ১০টা ৫০ মিনিটের দিকে সায়েন্সল্যাবের ওই ভবনে হঠাৎ বিকট শব্দে এই বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ভবনটিতে লাগানো মোটা গ্লাস ছাড়াও ইটের দেয়াল ভেঙে ধসে পড়ে। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিস্ফোরণে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় ভবনের দেয়াল ভেঙে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। যার মধ্যে এখন পর্যন্ত ১২ জনকে হাসপাতালে পাঠানোর খবর মিলেছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জানিয়েছেন, বর্তমানে তারা ভবনের ভেতরে খুঁজে দেখছেন কোনো মানুষ আছে কি না। এদিকে, ধসেপড়া দেয়ালের আশপাশের অরক্ষিত দেয়ালও ভেঙার আশঙ্কা থাকায় ওই ভবনের সামনে দিয়ে লোকজনের চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সেইসঙ্গে সড়ক দিয়ে যান চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে রাস্তায় গাড়ির প্রচুর চাপ থাকায় পুলিশের পক্ষ থেকে অল্প করে হলেও যাতে গাড়ি চলাচল করতে পারে সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের রমনা জোনের ডিসি মো. শহীদুল্লাহ। অন্যদিকে গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক বন্ধ থাকায় আশপাশের এলাকায়ও তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। দীর্ঘসময় ধরে যাত্রীদের যানবাহনে বসে থাকতে হচ্ছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপির) রমনা বিভাগের ডিসি মো. শহীদুল্লাহ বলেন, আমরা আশপাশের মার্কেটও বন্ধ রেখেছি। আর সড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকের সমস্যা হচ্ছে। তাই কোনোভাবে চালু রাখা যায় কিনা সে বিষয়টির চেষ্টা করছি। কারণ, আজ রোববার তাই রাস্তায় খুব চাপ।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সায়েন্সল্যাবে বিস্ফোরণ : ঘটনাস্থলে উৎসুক জনতার ভিড়, তীব্র যানজট

আপডেট সময় ০৪:০৭:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মার্চ ২০২৩

রাজধানীর সায়েন্সল্যাব এলাকার বাণিজ্যিক ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে ওই এলাকার সড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ভবনটির সামনে ধসে পড়া ইট ছাড়াও দেয়ালের কাঁচ ভেঙে সড়ক ও ফুটপাতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে।

এদিকে মিরপুর রোডের দুই পাশে উৎসুক জনতা ভিড় করেছেন। অনেকেই তাদের পরিচিত কেউ আটকে আছে কি না, খুঁজতে এসেছে। রোববার (৫ মার্চ) সকাল ১০টা ৫০ মিনিটের দিকে সায়েন্সল্যাবের ওই ভবনে হঠাৎ বিকট শব্দে এই বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ভবনটিতে লাগানো মোটা গ্লাস ছাড়াও ইটের দেয়াল ভেঙে ধসে পড়ে। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিস্ফোরণে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় ভবনের দেয়াল ভেঙে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। যার মধ্যে এখন পর্যন্ত ১২ জনকে হাসপাতালে পাঠানোর খবর মিলেছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জানিয়েছেন, বর্তমানে তারা ভবনের ভেতরে খুঁজে দেখছেন কোনো মানুষ আছে কি না। এদিকে, ধসেপড়া দেয়ালের আশপাশের অরক্ষিত দেয়ালও ভেঙার আশঙ্কা থাকায় ওই ভবনের সামনে দিয়ে লোকজনের চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সেইসঙ্গে সড়ক দিয়ে যান চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে রাস্তায় গাড়ির প্রচুর চাপ থাকায় পুলিশের পক্ষ থেকে অল্প করে হলেও যাতে গাড়ি চলাচল করতে পারে সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের রমনা জোনের ডিসি মো. শহীদুল্লাহ। অন্যদিকে গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক বন্ধ থাকায় আশপাশের এলাকায়ও তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। দীর্ঘসময় ধরে যাত্রীদের যানবাহনে বসে থাকতে হচ্ছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপির) রমনা বিভাগের ডিসি মো. শহীদুল্লাহ বলেন, আমরা আশপাশের মার্কেটও বন্ধ রেখেছি। আর সড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকের সমস্যা হচ্ছে। তাই কোনোভাবে চালু রাখা যায় কিনা সে বিষয়টির চেষ্টা করছি। কারণ, আজ রোববার তাই রাস্তায় খুব চাপ।