০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচন: সব পদে আ.লীগপন্থিদের নিরংকুশ জয়

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১১:৩০:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০২৩
  • / ৬৪ বার পড়া হয়েছে

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনে (২০২৩-২৪) সভাপতি ও সম্পাদকসহ ১৪টি পদের সবকটিতে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে মনোনীত প্রার্থীরা। নির্বাচনে সভাপতি ও সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে মোমতাজ উদ্দিন ফকির ও মো. আবদুন নূর। 

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের ভোটগ্রহণ শেষে রাত পৌনে ২টায় ফল ঘোষণা শুরু করে সোয়া ২টার দিকে শেষ হয় বলে জানান উপস্থিত বেশ কয়েকজন আইনজীবী। সমিতির দক্ষিণ হলে নির্বাচন পরিচালনা সংক্রান্ত উপকমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান ফল ঘোষণা করেন।

সমিতির নির্বাচনে বরাবরই মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়ে থাকে দুটি প্যানেলের মধ্যে। একটি হচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন আইনজীবীদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ (সাদা হিসেবে পরিচিত) মনোনীত প্যানেল। অন্যটি বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল (নীল হিসেবে পরিচিত)।

ঘোষিত ফল অনুসারে, সাদা প্যানেলের প্রার্থী মোমতাজ উদ্দিন ফকির তিন হাজার ৭২৫ ভোট পেয়ে সভাপতি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। সভাপতি পদে নীল প্যানেলের প্রার্থী মাহবুব উদ্দিন খোকন ২৯৩ ভোট পেয়েছেন। সাদা প্যানেলের প্রার্থী মো. আবদুন নূর তিন হাজার ৭৪১ ভোট পেয়ে সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। এই পদে নীল প্যানেলের প্রার্থী মো. রুহুল কুদ্দুস ৩০৯ ভোট পেয়েছেন।

সহসভাপতির দুটি পদে সাদা প্যানেল থেকে মো. আলী আজম ও জেসমিন সুলতানা জয়ী হয়েছেন। কোষাধ্যক্ষ পদে একই প্যানেলের এম. মাসুদ আলম চৌধুরী জয়ী হয়েছেন। সহসম্পাদক হিসেবে জয় পেয়েছেন এবিএম নূর-এ-আলম ও মোহাম্মদ হারুন-উর রশিদ। সদস্য সাতটি পদে সাদা প্যানেল থেকে নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন মহিউদ্দিন আহমেদ (রুদ্র), মনিরুজ্জামান রানা, শফিক রায়হান শাওন, মো. সাফায়েত হোসেন (সজীব), মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. নাজমুল হুদা ও সুভাষ চন্দ্র দাস।

নির্বাচন পরিচালনা সংক্রান্ত উপকমিটি নিয়ে আপত্তি তুলে বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থীদের প্রত্যক্ষভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকার পর এই জয় পেলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা। গত নির্বাচনে (২০২২-২৩) সভাপতি ও সম্পাদকসহ সাতটি পদে জয় পেয়েছিলেন আওয়ামী লীগ–সমর্থিত আইনজীবীরা। অপর সাতটি পদে জয় পেয়েছিলেন বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচন: সব পদে আ.লীগপন্থিদের নিরংকুশ জয়

আপডেট সময় ১১:৩০:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০২৩

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনে (২০২৩-২৪) সভাপতি ও সম্পাদকসহ ১৪টি পদের সবকটিতে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে মনোনীত প্রার্থীরা। নির্বাচনে সভাপতি ও সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে মোমতাজ উদ্দিন ফকির ও মো. আবদুন নূর। 

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের ভোটগ্রহণ শেষে রাত পৌনে ২টায় ফল ঘোষণা শুরু করে সোয়া ২টার দিকে শেষ হয় বলে জানান উপস্থিত বেশ কয়েকজন আইনজীবী। সমিতির দক্ষিণ হলে নির্বাচন পরিচালনা সংক্রান্ত উপকমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান ফল ঘোষণা করেন।

সমিতির নির্বাচনে বরাবরই মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়ে থাকে দুটি প্যানেলের মধ্যে। একটি হচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন আইনজীবীদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ (সাদা হিসেবে পরিচিত) মনোনীত প্যানেল। অন্যটি বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল (নীল হিসেবে পরিচিত)।

ঘোষিত ফল অনুসারে, সাদা প্যানেলের প্রার্থী মোমতাজ উদ্দিন ফকির তিন হাজার ৭২৫ ভোট পেয়ে সভাপতি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। সভাপতি পদে নীল প্যানেলের প্রার্থী মাহবুব উদ্দিন খোকন ২৯৩ ভোট পেয়েছেন। সাদা প্যানেলের প্রার্থী মো. আবদুন নূর তিন হাজার ৭৪১ ভোট পেয়ে সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। এই পদে নীল প্যানেলের প্রার্থী মো. রুহুল কুদ্দুস ৩০৯ ভোট পেয়েছেন।

সহসভাপতির দুটি পদে সাদা প্যানেল থেকে মো. আলী আজম ও জেসমিন সুলতানা জয়ী হয়েছেন। কোষাধ্যক্ষ পদে একই প্যানেলের এম. মাসুদ আলম চৌধুরী জয়ী হয়েছেন। সহসম্পাদক হিসেবে জয় পেয়েছেন এবিএম নূর-এ-আলম ও মোহাম্মদ হারুন-উর রশিদ। সদস্য সাতটি পদে সাদা প্যানেল থেকে নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন মহিউদ্দিন আহমেদ (রুদ্র), মনিরুজ্জামান রানা, শফিক রায়হান শাওন, মো. সাফায়েত হোসেন (সজীব), মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. নাজমুল হুদা ও সুভাষ চন্দ্র দাস।

নির্বাচন পরিচালনা সংক্রান্ত উপকমিটি নিয়ে আপত্তি তুলে বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থীদের প্রত্যক্ষভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকার পর এই জয় পেলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা। গত নির্বাচনে (২০২২-২৩) সভাপতি ও সম্পাদকসহ সাতটি পদে জয় পেয়েছিলেন আওয়ামী লীগ–সমর্থিত আইনজীবীরা। অপর সাতটি পদে জয় পেয়েছিলেন বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা।