০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

স্বামীর রিট খারিজ, বাবার কাছেই ফিরে গেলেন মেয়ে

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ০৬:৫১:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩
  • / ৯৪ বার পড়া হয়েছে

সাংবাদিক মানিক খন্দকারের স্ত্রী সানজানা ইসলাম জেরিন বাবা-মায়ের কাছে থাকতে চাওয়ায় রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১৫ মে) এ বিষয়ে এক আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন। তিনি বলেন, আদালতের আদেশে সানজানা ইসলামকে নিয়ে তার বাবা হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন। সানজানা ইসলাম তার বাবা-মায়ের কাছে থাকতে চেয়েছেন এবং স্বামীকে ডিভোর্সের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

এ কারণে রিট আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। এর আগে, গত ১৯ এপ্রিল আইনগতভাবে বিয়ে করা স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে আটকে রাখার ঘটনায় আদালতের দ্বারস্থ হন ঢাকার একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক মানিক খন্দকার। রিট দায়েরের প্রেক্ষিতে স্ত্রীকে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে ২০২২ সালের ৬ মার্চ মানিক খন্দকারের সঙ্গে পিরোজপুরের কাউখালীর বাসিন্দা সানজানা ইসলাম জেরিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর কিছুদিন একসঙ্গে বসবাস করেন। তবে চলতি বছর বিষয়টি পারিবারিকভাবে জানাজানি হলে সাংবাদিকের স্ত্রীকে তার বাবা গ্রামের বাড়িতে আটকে রাখেন। বাড়িতে আটকে রাখার পর স্বামীকে তালাক দিতে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে তার পরিবার।

পরিবারের কথা না শুনলে ওই সাংবাদিক ও তাকে মেরে ফেলাসহ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ ঘটনায় রিটকারী সাংবাদিক সংশ্লিষ্ট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে প্রতিকার হিসেবে স্ত্রীকে উদ্ধার চেয়ে তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। শুনানিতে সাংবাদিকের স্ত্রীকে আদালতের সামনে হাজিরের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

স্বামীর রিট খারিজ, বাবার কাছেই ফিরে গেলেন মেয়ে

আপডেট সময় ০৬:৫১:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩

সাংবাদিক মানিক খন্দকারের স্ত্রী সানজানা ইসলাম জেরিন বাবা-মায়ের কাছে থাকতে চাওয়ায় রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১৫ মে) এ বিষয়ে এক আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জে আর খান রবিন। তিনি বলেন, আদালতের আদেশে সানজানা ইসলামকে নিয়ে তার বাবা হাইকোর্টে হাজির হয়েছিলেন। সানজানা ইসলাম তার বাবা-মায়ের কাছে থাকতে চেয়েছেন এবং স্বামীকে ডিভোর্সের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

এ কারণে রিট আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। এর আগে, গত ১৯ এপ্রিল আইনগতভাবে বিয়ে করা স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়িতে আটকে রাখার ঘটনায় আদালতের দ্বারস্থ হন ঢাকার একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক মানিক খন্দকার। রিট দায়েরের প্রেক্ষিতে স্ত্রীকে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে ২০২২ সালের ৬ মার্চ মানিক খন্দকারের সঙ্গে পিরোজপুরের কাউখালীর বাসিন্দা সানজানা ইসলাম জেরিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর কিছুদিন একসঙ্গে বসবাস করেন। তবে চলতি বছর বিষয়টি পারিবারিকভাবে জানাজানি হলে সাংবাদিকের স্ত্রীকে তার বাবা গ্রামের বাড়িতে আটকে রাখেন। বাড়িতে আটকে রাখার পর স্বামীকে তালাক দিতে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে তার পরিবার।

পরিবারের কথা না শুনলে ওই সাংবাদিক ও তাকে মেরে ফেলাসহ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ ঘটনায় রিটকারী সাংবাদিক সংশ্লিষ্ট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে প্রতিকার হিসেবে স্ত্রীকে উদ্ধার চেয়ে তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। শুনানিতে সাংবাদিকের স্ত্রীকে আদালতের সামনে হাজিরের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।