১২:১৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

হাসিনা এবং তার সরকার এখন ডুবুডুবু অবস্থায় : রিজভী

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:১৩:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩
  • / ৪২ বার পড়া হয়েছে

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, শেখ হাসিনা এবং তার সরকার এখন ডুবুডুবু অবস্থায়। এই ডুবন্ত অবস্থা থেকে জনগণকে যদি বিভ্রান্ত করা যায় সেজন্য জিয়াউর রহমানের নামে মামলা করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ অভিযোগ করেন তিনি। রিজভী বলেন, বহুদলীয় গণতন্ত্র চালু করেছিলেন জিয়াউর রহমান, যিনি স্বাধীনতার ঘোষক, নতুনভাবে তার বিরুদ্ধে গতকাল একটি মামলা দেওয়া হয়েছে। মামলাটা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেওয়া হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পর অভ্যুত্থান-পাল্টা অভ্যুত্থানের মধ্যে মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ বীর উত্তম, কর্নেল নাজমুল হুদা বীর বিক্রম ও লেফটেন্যান্ট কর্নেল এ টি এম হায়দার বীর উত্তমকে হত্যার ঘটনার প্রায় পাঁচ দশক পর এ মামলা হয় গতকাল বৃহস্পতিবার। এতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে অভিযুক্ত করা হয়। কর্নেল নাজমুল হুদার মেয়ে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নাহিদ ইজহার খান ঢাকার শেরেবাংলা নগর থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

এ প্রসঙ্গে রুহুল কবির রিজভী বলেন, যিনি মামলা করেছেন তিনি মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল হুদা (নাজমুল হুদা) সাহেবের মেয়ে। কর্নেল হুদা সাহেবের মেয়ে যে মামলাটি দিলেন তার মা (নীলুফার হুদা) একটা বই লিখেছেন ‘কর্নেল হুদা ও আমার যুদ্ধ’। তার মায়ের লেখা বইটা তো মেয়ে পড়ে দেখেননি। সেখানে তিনি লিখেছেন, খালেদ মোশাররফ এবং কর্নেল হুদাকে সুরক্ষিত করার জন্য কর্নেল নওয়াজিসকে জিয়াউর রহমান নির্দেশ দিয়েছিলেন। যে মেয়েটি গতকাল মামলা করেছেন তারই মা কিন্তু এই বই লিখেছেন।

নিজের মায়ের লেখা বইকে অগ্রাহ্য করে শেখ হাসিনার কথায় তিনি মামলা করলেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি যারা মামলা দিচ্ছেন তাদের শেখ হাসিনার কথা না শোনা ভালো। কারণ, এতে আপনারাও জনগণের কাছে বিচ্ছিন্ন হবেন, জনগণ আপনাদের ভালো চোখে দেখবে না।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

হাসিনা এবং তার সরকার এখন ডুবুডুবু অবস্থায় : রিজভী

আপডেট সময় ১০:১৩:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, শেখ হাসিনা এবং তার সরকার এখন ডুবুডুবু অবস্থায়। এই ডুবন্ত অবস্থা থেকে জনগণকে যদি বিভ্রান্ত করা যায় সেজন্য জিয়াউর রহমানের নামে মামলা করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ অভিযোগ করেন তিনি। রিজভী বলেন, বহুদলীয় গণতন্ত্র চালু করেছিলেন জিয়াউর রহমান, যিনি স্বাধীনতার ঘোষক, নতুনভাবে তার বিরুদ্ধে গতকাল একটি মামলা দেওয়া হয়েছে। মামলাটা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেওয়া হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পর অভ্যুত্থান-পাল্টা অভ্যুত্থানের মধ্যে মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ বীর উত্তম, কর্নেল নাজমুল হুদা বীর বিক্রম ও লেফটেন্যান্ট কর্নেল এ টি এম হায়দার বীর উত্তমকে হত্যার ঘটনার প্রায় পাঁচ দশক পর এ মামলা হয় গতকাল বৃহস্পতিবার। এতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে অভিযুক্ত করা হয়। কর্নেল নাজমুল হুদার মেয়ে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নাহিদ ইজহার খান ঢাকার শেরেবাংলা নগর থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

এ প্রসঙ্গে রুহুল কবির রিজভী বলেন, যিনি মামলা করেছেন তিনি মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল হুদা (নাজমুল হুদা) সাহেবের মেয়ে। কর্নেল হুদা সাহেবের মেয়ে যে মামলাটি দিলেন তার মা (নীলুফার হুদা) একটা বই লিখেছেন ‘কর্নেল হুদা ও আমার যুদ্ধ’। তার মায়ের লেখা বইটা তো মেয়ে পড়ে দেখেননি। সেখানে তিনি লিখেছেন, খালেদ মোশাররফ এবং কর্নেল হুদাকে সুরক্ষিত করার জন্য কর্নেল নওয়াজিসকে জিয়াউর রহমান নির্দেশ দিয়েছিলেন। যে মেয়েটি গতকাল মামলা করেছেন তারই মা কিন্তু এই বই লিখেছেন।

নিজের মায়ের লেখা বইকে অগ্রাহ্য করে শেখ হাসিনার কথায় তিনি মামলা করলেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি যারা মামলা দিচ্ছেন তাদের শেখ হাসিনার কথা না শোনা ভালো। কারণ, এতে আপনারাও জনগণের কাছে বিচ্ছিন্ন হবেন, জনগণ আপনাদের ভালো চোখে দেখবে না।