০৩:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

২৪ ঘণ্টায়ও পুরোপুরি নেভেনি বঙ্গবাজারের আগুন

নিজস্ব সংবাদ দাতা
  • আপডেট সময় ১০:৪৪:১৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ এপ্রিল ২০২৩
  • / ৪৭ বার পড়া হয়েছে

২৪ ঘণ্টা পরও রাজধানীর বঙ্গবাজারের আগুন এখনও পুরোপুরি নেভেনি। কিছু কিছু জায়গায় এখনও থেমে থেমে আগুন জ্বলছে।

বুধবার (৫ এপ্রিল) সকালে বঙ্গবাজারের এনেক্সকো টাওয়ারের বেশ কিছু জায়গায় পানি ছেটাতে দেখা গেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের। এনেক্সকো টাওয়ারের এক কর্মীচারী বলেন, এনেক্সকো টাওয়ারে কাপড়ের দোকান ও গোডাউন থাকায় এখনও অনবরত ধোঁয়া বের হচ্ছে। দোকান মালিকরা মালামাল বের করার চেষ্টা করছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের উপপরিচালক আক্তারুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, খোলা জায়গায় আগুন না থাকলেও এনেক্সকো টাওয়ারের ৫ থেকে ৭ তলায় কিছুটা আগুন থাকতে পারে। আমরা সেটি নির্বাপন করছি। এর আগে, মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) সকাল ৬টা ১০ মিনিটে বঙ্গবাজারে আগুনের সূত্রপাত হয়। বঙ্গবাজার থেকে আশপাশের আরও চারটি মার্কেটে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, র‍্যাব ও ওয়াসাসহ অনেক বাহিনী ও সংস্থার চেষ্টায় দুপুর সাড়ে ১২ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডে সাধারণ মানুষ হতাহত না হলেও ফায়ার সার্ভিসের আট জন আহত হয়েছেন। আগুনে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার দোকান পুড়ে গেছে।

ট্যাগস

নিউজটি শেয়ার করুন

২৪ ঘণ্টায়ও পুরোপুরি নেভেনি বঙ্গবাজারের আগুন

আপডেট সময় ১০:৪৪:১৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ এপ্রিল ২০২৩

২৪ ঘণ্টা পরও রাজধানীর বঙ্গবাজারের আগুন এখনও পুরোপুরি নেভেনি। কিছু কিছু জায়গায় এখনও থেমে থেমে আগুন জ্বলছে।

বুধবার (৫ এপ্রিল) সকালে বঙ্গবাজারের এনেক্সকো টাওয়ারের বেশ কিছু জায়গায় পানি ছেটাতে দেখা গেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের। এনেক্সকো টাওয়ারের এক কর্মীচারী বলেন, এনেক্সকো টাওয়ারে কাপড়ের দোকান ও গোডাউন থাকায় এখনও অনবরত ধোঁয়া বের হচ্ছে। দোকান মালিকরা মালামাল বের করার চেষ্টা করছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের উপপরিচালক আক্তারুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, খোলা জায়গায় আগুন না থাকলেও এনেক্সকো টাওয়ারের ৫ থেকে ৭ তলায় কিছুটা আগুন থাকতে পারে। আমরা সেটি নির্বাপন করছি। এর আগে, মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) সকাল ৬টা ১০ মিনিটে বঙ্গবাজারে আগুনের সূত্রপাত হয়। বঙ্গবাজার থেকে আশপাশের আরও চারটি মার্কেটে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, র‍্যাব ও ওয়াসাসহ অনেক বাহিনী ও সংস্থার চেষ্টায় দুপুর সাড়ে ১২ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডে সাধারণ মানুষ হতাহত না হলেও ফায়ার সার্ভিসের আট জন আহত হয়েছেন। আগুনে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার দোকান পুড়ে গেছে।